channel 24

সর্বশেষ

  • অমর একুশে ফেব্রুয়ারি উদযাপনে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

  • করোনা ভাইরাসে প্রাণহানি কিছুটা বেড়েছে, তবে কমেছে আক্রান্তের হার

  • 'বর্ণবাদের' অভিযোগ তিন সাংবাদিককে বহিষ্কার করলো চীন

  • ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনঃমূল্যায়নের চিন্তা করছে সরকার: অর্থমন্ত্রী

  • ঢাকার চারপাশে নদীপাড়ে ধর্মীয় স্থাপনা না ভেঙে সংস্কার করবে সরকার

  • ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়: ওসিসহ ৭ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা

  • চুড়িহাট্টায় আগুনে মারা যাওয়া ৩ জনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি

  • পরীক্ষা হলে সাহায্য না করায় সহপাঠীকে ছুরিকাঘাত, আটক ১

  • তুরাগের ধৌড় এলাকায় বিআইডব্লিউটিএ'র উচ্ছেদ অভিযান

  • সার্ভেয়ারের বাসা থেকে ঘুষের ৯৩ লাখ টাকা উদ্ধার, আটক ১

  • শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় তাপস পালকে শেষ বিদায়

  • বঙ্গোপসাগরে দুটি ট্রলারডুবে ৪ জনের মৃত্যু

  • এনামুল বাছিরের মহাপরিচালক পদে পদোন্নতির মামলা খারিজ

  • জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফী, এটাই শেষ: বিসিবি সভাপতি

  • সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া যাবার প্রস্তুতিকালে ১৭ রোহিঙ্গা উদ্ধার

সরকার চাইলে দ্রুত বিচার হয়, না চাইলে ৭০ বার চার্জশিট পেছায়: রুমিন

সরকার চাইলে দ্রুত বিচার হয়, না চাইলে ৭০ বার চার্জশিট পেছায়: রুমিন

রুমিন ফারহানা বলেছেন, 'সরকার চাইলে দেশে বিচার দ্রুত হয়, আর না চাইলে ৭০ বার মামলার চার্জশিট পেছায়।' বুধবার (১৫ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা বলেন, 'সরকারের ইচ্ছামতো চলে বলেই খালেদা জিয়া জামিন পান না। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে, বিএনপির এক লাখ কর্মীর নামে মামলা দিয়ে, মুক্তিযুদ্ধকে ব্যবহারের মাধ্যমে জাতিকে বিভাজন করে, ভিন্নমত দমন করে রাষ্ট্রপতির জাতীয় ঐকমত্যের ডাক জাতির সঙ্গে প্রহসন ছাড়া কিছু নয়।'

তিনি বলেন, 'সম্ভবত আগামীবার রাষ্ট্রপতির ভাষণেও একই রকম বক্তব্য দেবেন। কারণ মানুষ নিজেদের কথা বিশ্বাস করে না, কিন্তু অন্যদেরকে বিশ্বাস করাতে চায়। এ জন্য এ কথাটি মানুষ বারবার বলে। বর্তমান সরকার জনগণের ম্যান্ডেটহীন সরকার। তাই নিজেদের টিকিয়ে রাখার জন্য দেশের চরম অর্থনৈতিক উন্নয়ন হচ্ছে বলে জোর প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছে। রাষ্ট্রপতি এমন এক সময় উন্নয়নের দাবি করলেন, যখন দেশের অর্থনীতি সকল সূচকে নিম্নমুখী। অর্থনীতি প্রচণ্ড বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে।'

তিনি আরও বলেন, 'দেশের এসব সমস্যার সঙ্গে যোগ হয়েছে বাক স্বাধীনতার সমস্যা। হামলা, হুমকি ও বিজ্ঞাপন দাতাদের ওপর প্রভাব খাটিয়ে গণমাধ্যমের ওপর চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। সম্প্রতি প্রকাশিত আইন ও সালিশ কেন্দ্রের প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত বছর ১৪২ জন সাংবাদিক শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। বিকল্প মাধ্যম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নিপীড়নমূলক নির্যাতন চলছে ডিজিটাল আইনের নামে।'

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর