channel 24

সর্বশেষ

  • ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর স্বাস্থ্যের কিছুটা উন্নতি

  • করোনায় দেশে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৬৩৫

  • ডিএনসিসির মশক নিধন অভিযান শুরু

  • কক্সবাজারকে দেশের প্রথম রেড জোন ঘোষণা

  • ঢাকাতেই করোনা আক্রান্ত সাড়ে ৭ লাখের বেশি: দ্য ইকোনমিস্ট

  • টর্নেডোর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চার গ্রাম, নিহত ১

  • রংপুরে বিভিন্ন মসজিদের নামে সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাৎ

  • আবহওয়া অনুকূলে থাকায় ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় লিচুর বাম্পার ফলন

  • এডিপিতে এবার বিদ্যুৎখাতে বরাদ্দ প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা

  • বাজেটে কর অবকাশ সুবিধা চান ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প সংশ্লিষ্টরা

  • করোনায় জীবনের মায়া ভুলে সেবা দিয়েও ৫ মাস বেতনহীন

  • সব সংকটে শক্ত হালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • করোনা চিকিৎসা: 'আমরা চাই না হাসপাতালটি বন্ধ হোক'

  • যুক্তরাষ্ট্রে বিমান দুর্ঘটনা, দুই শিশুসহ নিহত ৫

  • সাবেক মেয়র কামরান করোনায় আক্রান্ত

পুলিশ কেস রিপোর্ট থেকে ডেথ সার্টিফিকেট, সবই দিতেন তিনি!

পুলিশ কেস রিপোর্ট থেকে ডেথ সার্টিফিকেট, সবই দিতেন তিনি!

পুলিশ কেস রিপোর্ট, জন্ম সনদ, ডেথ সার্টিফিকেট, মেডিকেল ছুটিসহ বিভিন্ন কাজের জাল ছাড়পত্র দেয়া চক্রের এক সদস্যকে আটক করেছে র‍্যাব।

সোমবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে আরিফ নামের এ চতুর্থ শ্রেণির এক কর্মচারীকে আটক করা হয়। এসময় তাকে সাথে নিয়ে হাসপাতালে অভিযান চালায় র‍্যাব।

উদ্ধার করা হয় জাল সিল, চিকিৎসকের ভুয়া স্বাক্ষরসহ বেশ কিছু আলামত।

পরে র‍্যাব কর্মকর্তা মেজর জাহাঙ্গীর জানান, দীর্ঘ দিন ধরে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করতো এ চক্র। দালাল চক্রের মাধ্যমে মূলত জালিয়াতি চক্রটির কাছে বিভিন্ন জাল সনদ ও ইনজুরি সার্টিফিকেটের চাহিদা যায়। তারা মোটা অঙ্কের টাকা নেয়ার পর অল্প সময়ের মধ্যেই জাল সনদ সরবরাহ করে। পুলিশের যেকোনো মামলায় প্রতিবেদনের জন্য অনেক ক্ষেত্রে ইনজুরি সনদ দরকার হয়, যা নরমালি একটা অফিসিয়াল সিস্টেমের মধ্যে হাসপাতাল থেকে পেতে হয় এবং তা সময়সাপেক্ষ। এ সুযোগটি নিয়ে দালাল চক্রটি অল্প সময়ের ব্যবধানে জালিয়াতি চক্রটির কাছ থেকে মেডিকেল লিভের জন্য মেডিকেল সনদ, ইনজুরি সনদ সরবরাহ করত। এ ক্ষেত্রে যথাযথ কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষরও তারা জাল করতো।

তিনি আরও বলেন, মেডিকেল কলেজের মাধ্যমে যেকোনো প্রয়োজনে মেডিকেল সনদ নিতে গেলে সত্যতা থাকতে হয়, সময়ও লাগে। কিন্তু এ চক্রটি কেউ মারধরের শিকার হয়নি, ইনজুরি হয়নি কিন্তু তার ইনজুরি সনদ দরকার, তাদের জাল ইনজুরি সনদ সরবরাহ করে আসছে। যার ওপর ভিত্তি করে অনেকে ভুতুড়ে মামলাও দায়ের করছেন। দীর্ঘদিন ধরে চক্রটি এ জালিয়াতি করে আসছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর