channel 24

সর্বশেষ

  • করোনায় দেশে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৬৩৫

  • ডিএনসিসির মশক নিধন অভিযান শুরু

  • কক্সবাজারকে দেশের প্রথম রেড জোন ঘোষণা

  • ঢাকাতেই করোনা আক্রান্ত সাড়ে ৭ লাখের বেশি: দ্য ইকোনমিস্ট

  • টর্নেডোর তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চার গ্রাম, নিহত ১

  • রংপুরে বিভিন্ন মসজিদের নামে সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাৎ

  • আবহওয়া অনুকূলে থাকায় ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় লিচুর বাম্পার ফলন

  • এডিপিতে এবার বিদ্যুৎখাতে বরাদ্দ প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা

  • বাজেটে কর অবকাশ সুবিধা চান ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প সংশ্লিষ্টরা

  • করোনায় জীবনের মায়া ভুলে সেবা দিয়েও ৫ মাস বেতনহীন

  • সব সংকটে শক্ত হালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • করোনা চিকিৎসা: 'আমরা চাই না হাসপাতালটি বন্ধ হোক'

  • যুক্তরাষ্ট্রে বিমান দুর্ঘটনা, দুই শিশুসহ নিহত ৫

  • সাবেক মেয়র কামরান করোনায় আক্রান্ত

  • করোনায় মৃতের সংখ্যায় তৃতীয় স্থানে ব্রাজিল; প্রতি মিনিটে এক জনের মৃত্যু

ওয়াসার পানি সুপেয়, সংস্থাটির এমন দাবি অসত্য

ওয়াসার পানি সুপেয়, সংস্থাটির এমন দাবি অসত্য

ওয়াসার পানি সুপেয়, সংস্থাটির এমন দাবি অসত্য। ওয়াসার পানিতে মিলেছে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ও মলের জীবাণু। হাইকোর্টে দেয়া বিশেষজ্ঞ কমিটির রিপোর্টে ওঠে এসেছে এসব তথ্য। যা এসেছে চ্যানেল 24 এর হাতে। সুপেয় পানি নিশ্চিতে ওয়াসা ও দুই সিটি করপোরেশনকে সমন্বিতভাবে কাজ করার সুপারিশ করেছে বিশেষজ্ঞ কমিটি।

রাজধানীবাসীর জন্য সুপেয় পানির একমাত্র জোগানদাতা ওয়াসা। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, তাদের সরবরাহ করা পানি সুপেয়। কিন্তু গত জুলাইয়ে হাইকোর্টের নির্দেশে গঠিত কমিটি জানায়, তাদের সরবরাহ করা পানিতে মিলেছে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া ও মলের জীবাণু। কিন্তু তা মানতে চায়নি ওয়াসা।

এমন বাস্তবতায় আরেকটি বিশেষজ্ঞ কমিটিকে পানি পরীক্ষায় দায়িত্ব দেন হাইকোর্ট। সেই প্রতিবেদন বলছে, ওয়াসার দাবি ঠিক নয়। একাধিক জায়গা থেকে পানির নমুনা জোগাড় করে পরীক্ষা করে এই কমিটি। যাতে ক্ষতিকর ই-কোলাই ও ব্যাকটেরিয়া পাওয়ার সত্যতা মিলেছে।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নুর উস সাদিক জানান, বিশেষজ্ঞ কমিটি তাদের প্রতিবেদনে চারটি মন্তব্য তুলে ধরে। যাতে বলা হয়েছে, ওয়াসা ও দুই সিটি করপোরেশন সমন্বিতভাবে কাজ করলে, ওয়াসার লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে ব্যাকটেরিয়া কিংবা জীবাণু ঢুকতো না। সুপেয় পানির জন্য তৃতীয় পক্ষকে দিয়ে নজরদারি করা, সচেতনাতামূলক কার্যক্রম চালানো ও বাসাবাড়ির রিজার্ভ ট্যাংক নিয়মিত পরিষ্কার রাখার সুপারিশও করা হয় প্রতিবেদনে। সেইসঙ্গে তাগিদ দেন সব ধরনের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার।

রিটকারী আইনজীবী তানভীর আহমেদ বলছেন, তারা চান সারা বছর যেন এ মামলাটি মনিটরিং করা হয়।

চলতি সপ্তাহেই বিশেষজ্ঞ কমিটির এ প্রতিবেদনের ওপর শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর