channel 24

সর্বশেষ

  • রিজেন্ট চেয়ারম্যান সাহেদের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে মামলা

  • মালদ্বীপে বকেয়া বেতনের দাবিতে পুলিশের সাথে শ্রমিকদের সংঘর্ষ, ৩৯ বাংলাদেশি আটক

  • পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি বিধায়কের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

  • থমকে যাওয়া সেই নৌপথে আবারও দুরন্ত গতিতে ছুটবে জলযান

  • সাহেদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

  • দু'বছর ধরে লাইসেন্স ছাড়াই লাজ ফার্মার ব্যবসা

  • জাভি হার্নান্দেজই হচ্ছেন বার্সেলোনার কোচ: ক্লাব প্রেসিডেন্ট

  • আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলতে বাধা নেই ম্যান ইউ'র

  • টাকা চাইলেই পাওনাদারদের ওপর নামতো জেকেজির নির্যাতনের খড়গ

  • বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ১০টি নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে

  • হজ্জ্ব ক্যাম্পে কোয়ারেন্টিন শেষে বাড়ি ফিরলো ৯৬ কুয়েত প্রবাসী

  • সর্দিজ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ৬ জনের মৃত্যু

  • ৭ মার্চকে 'জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস' ঘোষণার প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় সম্মতি

  • লাজ ফার্মায় র‌্যাবের অভিযান

  • সাবরিনার কাছে রিমান্ডে মিলতে পারে ভুয়া করোনা সনদ বাণিজ্যের তথ্য

ফের আলোচনায় ডাকসু জিএস রাব্বানী, এমফিলে ভর্তি নিয়ে প্রশ্ন

ফের আলোচনায় ডাকসু জিএস রাব্বানী, এমফিলে ভর্তি নিয়ে প্রশ্ন

আবারও আলোচনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানী। সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অভিযোগ, রাব্বানীর এমফিলে ভর্তির বিষয়টি তাদের অজানা। অপরাধবিজ্ঞান বিভাগ বলছে, প্রস্তাবনা ঠিক মতো হাতে পেলেও সময় কম থাকায় হয়তো ভুল হয়ে গেছে। প্রো-ভিসি জানান, ঘটনা সত্য হলে তা দুঃখজনক। তবে খতিয়ে দেখারও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

রাজনীতিতে বয়স আর বয়স নিয়ে রাজনীতি সব সময়ই আলোচিত বিষয়। বয়স কত হলে মূল দল বা অঙ্গ সংগঠনের পদ-পদবী অধিকারে থাকবে, তা নিয়ে তর্ক-বিতর্ক বহুদিনের। আর নির্বাচন ঘিরে যা উস্কে উঠে বারে বারে। খোদ ডাকসু ঘিরেও এই বিতর্ক নতুন কিছু নয়।

কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীতার জন্য বয়সসীমা এবং ছাত্রত্বের শর্ত বেঁধে দিয়েছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। স্নাতকোত্তরের পর ছাত্রত্ব না থাকায় আগ্রহী অনেকে তখন তড়িঘড়ি করে ভর্তি হন সান্ধ্যকালীন মাস্টার্স কিংবা এমফিলে।

এরপর নির্বাচনি লড়াইয়ে অনেকে জয়ীও হন। এখন প্রশ্নে উঠেছে অনেকের ভর্তি প্রক্রিয়া নিয়ে। ছাত্রলীগের ৩৪ নেতা ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদে সান্ধ্যকালীন মাস্টার্সে ভতি হন। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে কোন রকম প্রক্রিয়া না মেনে ভর্তি হওয়ার। এবার একই ধরণের অভিযোগ উঠেছে খোদ ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে। শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে যিনি ছাত্রলীগ থেকে পদত্যাগ করেছেন। তার ভর্তি নিয়ে ইতোমধ্যে প্রশ্ন উঠেছে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সভায়।

এই অনুষদের অধীনে অপরাধ বিজ্ঞান বিভাগে এমফিলে ভর্তি হয়েছিলেন রাব্বানী। নিয়ম অনুযায়ী বিভাগে প্রস্তাবনা জমা দিতে হবে প্রথমে। পরে একাডেমকি কমিটি সেটা গ্রহণ করলে তা ফ্যাকাল্টি মিটিংয়ে এজেন্জাভুক্ত হবে। এরপর তা বোর্ড অব অ্যাডভান্স স্টাডিজ হয়ে যাবে একাডেমকি কাউন্সিলে।

এ নিয়ে অপরাধবিজ্ঞান বিভাগে যোগাযোগ করলে তারা জানান, রাব্বানী সেপ্টেম্বর মাসেই তার প্রোপোজল জমা দিয়েছিলেন। তবে এই বিভাগ জানুয়ারীর ২২ তারিখে তড়িঘড়ি করে জমা দিতে গিয়ে সব ধাপের প্রক্রিয়া মানতে পারেনি।

এ নিয়ে গোলাম রাব্বানীর মতামত জানতে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

তবে প্রক্রিয়া উপেক্ষা করে ভর্তির ঘটনাগুলোকে দুঃখজনক বলছেন প্রোভিসি। বলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা ছিল গর্বের, যা সম্প্রতি প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। তাই সবগুলো অভিযোগ খতিয়ে দেখারও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে এমন অযাচিত ঘটনা যাতে আর না ঘটে, সেজন্য পরবর্তীতে আরো সচেতন থাকবেন বলেও জানান।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর