channel 24

সর্বশেষ

  • আশুলিয়ায় করোনা জয়ী পুলিশ সদস্যদের সংবর্ধনা

  • চট্টগ্রাম বন্দরের কেমিক্যাল শেডে আগুন

  • মেঘনার ভাঙনে দিশেহারা নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুরের লাখো মানুষ

  • ঢাকা মেডিকেলে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে ডিবি কার্যালয়ে সাহেদ

  • বাংলাদেশসহ ১৩ দেশ থেকে ইতালি প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বহাল

  • জেকেজির আরিফ চৌধুরী ৪ দিনের রিমান্ডে

  • সফেদার পুষ্টিগুণ

  • বাংলাদেশের প্রথম হেলিপোর্ট নির্মাণে কাজ চলছে

  • মরিচের টেপা পচা বা অ্যানথ্রাকনোজ রোগ

  • ছিন্নমূল মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন সিলেটের টিভি সাংবাদিকরা

  • চীনাবাদামের ছত্রাকজনিত টিক্কা রোগ

  • ক্যাসিনোকাণ্ড: ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জয় গোপাল কারাগারে

  • রিকশা ব্যবসাও ছাড়েননি সাহেদ, এখানেও আশ্রয় নেন জালিয়াতির

  • চট্টগ্রামে ঘরে ঘরে চিকিৎসাসেবা ও ওষুধ পৌঁছে দেবে বিএনপি

  • কক্সবাজার সৈকতে ভেসে আসা বর্জ্য অপসারণ শুরু

ওসি মোয়াজ্জেমের ডিভিশনের বিষয়ে নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ

ওসি মোয়াজ্জেমের ডিভিশনের বিষয়ে নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ

সোনাগাজী থানার প্রাক্তন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনকে ডিভিশনের বিষয়ে নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (২৪ জুন) বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

আসামি মোয়াজ্জেম হোসেনের পক্ষে আইনজীবী ফারুক আহমেদ শুনানি করেন। শুনানিতে তিনি বলেন, ‘আসামি মোয়াজ্জেম হোসেন বাংলাদেশ সরকারের নবম গ্রেডের একজন কর্মকর্তা ছিলেন। সে অনুযায়ী তিনি প্রথম শ্রেণির নাগরিক। যদিও একজন ওসি সরাসরি প্রথম শ্রেণির নাগরিক না, তবে এ বিষয়ে হাইকোর্টের একটি নির্দেশনা আছে। দয়া করে আপনি ডিভিশন দেওয়ার নির্দেশ দেন।’

এরপর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নজরুল ইসলাম শামীম ডিভিশনের বিরোধিতা করে বলেন, ‘আসামি বর্তমানে বরখাস্ত। তাই তার ডিভিশন বিষয়ে আপত্তি রয়েছে।’ উভয়পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক কারাবিধি অনুযায়ী জেল সুপারকে ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ দেন।

গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির ২১ দিন পর ৬ জুন রাজধানীর শাহবাগ থেকে গ্রেপ্তার করা মোয়াজ্জেম হোসেনকে। গ্রেপ্তারের পর সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনাল মোয়াজ্জেমকে কারাগারে পাঠান। তাকে রাখা হয়েছে কেরাণীগঞ্জ কারাগারে। পরবর্তী শুনানি ৩০ জুন।

উল্লেখ্য, ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে তার মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে গত ২৭ মার্চ সোনাগাজী থানায় সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার বিরুদ্ধে মামলা করেন। এরপর অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের নামে নুসরাতের বক্তব্য ভিডিও করেন ওসি মোয়াজ্জেম। পরে সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়েও দেন তিনি।

ভিডিও করে তা ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে ১৫ এপ্রিল ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সুমন। বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ ও মামলার নথি পর্যালোচনা করে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন ২৭ মে ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন। এরপরও তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তিনি আত্মসমর্পণও করেননি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর