channel 24

সর্বশেষ

  • ফের শুরু ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান, আশুলিয়ায় মাদকসহ আটক ২১

  • শেরপুরে দরিদ্র ও অসহায় শিক্ষার্থীদের জীবন বদলে দিচ্ছেন শাহীন মিয়া

  • দেশে করোনা আক্রান্ত চার লাখ ছুঁইছুঁই

  • বান্দরবানের পাহাড়ি এলাকায় কাজু বাদামের চাষের উদ্যোগ

  • মাস্ক ছাড়া সরকারি-বেসরকারি কোনো সেবা নয়

  • প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালে মুখোমুখি মাহমুদউল্লাহ-নাজমুল একাদশ

  • বিস্ফোরণের দু:সহ অভিজ্ঞতা নিয়ে দেশে ফিরেছে যুদ্ধজাহাজ 'বিজয়'

  • জনগণকে বোকা বানাচ্ছে সরকার: ফখরুল

  • ধর্ষকদের জন্য আওয়ামী লীগের দরজা বন্ধ: কাদের

  • আশুলিয়ায় মিনি ক্যাসিনো থেকে ২১ জন আটক

  • নবীর প্রতি অসম্মান: গাজায় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

  • গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ: কিশোরগঞ্জে দগ্ধদের মধ্যে এক নারীর মৃত্যু

  • দেশে ফিরলে গ্রেপ্তার হবে পিকে হালদার: অ্যাটর্নি জেনারেল

  • পদ্মাসেতুতে বসানো হলো ৩৪তম স্প্যান

  • সিলেটে আমরণ অনশনে রায়হানের মা ও স্বজনরা

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস চক্রের দুই সদস্য আটক

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস চক্রের দুই সদস্য আটক

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন বিক্রির প্রলোভন দেখানো দুই অভিযুক্তসহ ৯ জনকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। এদের মধ্যে ৩ শিক্ষার্থী ও ৪ অভিভাবক রয়েছেন। পুলিশ জানায়, সামাজিক মাধ্যমের বিভিন্ন গ্রুপে, ১০ থেকে ১৪ লাখ টাকায় প্রশ্ন পাইয়ের দেয়ার আশ্বাস দেয় চক্রটি।

বৃহস্পতিবার রাত দশটার কিছু পরে, রাজধানীর মহাখালি মোড়ে, ফোনে ব্যস্ত দুই তরুণ। হঠাৎই দৃশ্যপটে আইনশৃংখলা বাহিনী। পরে জানা গেলো, শুক্রবারের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন বিক্রির প্রলোভন দিতেই তাদের বিচরণ ঐ এলাকায়।

পুলিশি পাহারায় থাকা অবস্থায়ই একের পর এক ফোন আসতে থাকে আশিক নামে এক তরুণের মোবাইলে। যার বেশিরভাগই পরীক্ষার্থী। বিক্রেতা সেজে সেখানে হাজির হয় পুলিশ। এতে মহাখালির টার্মিনালের বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তিন শিক্ষার্থীকে।

যাদের মধ্যে একজন এসেছিলেন বাবা-মাসহ, একজন বাবার সাথে, আরেকজন এসেছিলেন গৃহশিক্ষককে নিয়ে। তারা জানালেন, ১০-১৪ লাখ টাকায় প্রশ্ন নিতে এসেছিলেন।

প্রশ্ন বিক্রির প্রলোভন দেখানো আশিক ও এহসান নামে দুই যুবক জানান, ফেসুবকের একটি গ্রুপে বিভিন্ন সময় নামে বেনামে নানা পোস্ট দেয়া হয়। সেখানেই শুক্রবারের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন পাইয়ে দিতে আগ্রহীদের সাথে আলাপ হয়। তবে বলা হয়, কোনো হার্ড কপি দেয়া হবে না, মুখস্ত করিয়ে সরাসরি নিয়ে যাওয়া হবে কেন্দ্রে।

ডিবি'র ডিসি (উত্তর) মশিউর রহমান জানায়, প্রতারণার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেয়ার ফন্দি এঁটেছিলা চক্রটি। তবে, আসলেই প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে কিনা তারও তদন্ত চলছে।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনার মূল হোতা ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সৈকত আহমদের খোঁজে চলছে অভিযান।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর