channel 24

সর্বশেষ

  • নোয়াবের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় এ কে আজাদকে ফুলেল শুভেচ্ছা

  • চট্টগ্রামে রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনার জন্য বাস চালক দায়ী: তদন্ত কমিটি

  • বিয়ের আগে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন

  • চাকরি দিচ্ছে বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজ

  • অ স্ত্র প্রতিযোগিতা নয়, শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গড়তে সম্পদ ব্যবহার করুন: প্রধানমন্ত্রী

  • নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা দিনের পর দিন চলতে পারে না: নির্বাচন কমিশনার

  • পেগাসাস স্পাইওয়্যারের কার্যক্রম বন্ধে হাইকোর্টের রুল

  • ভাইকে ফাঁসাতে গিয়ে নিজেই ফেঁসে গেল যুবক

  • স্বাস্থ্য সচিব-ডিজির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল

  • নৌকার মনোনয়ন পাওয়ায় চেয়ারম্যানের ছেলের হাতবোমা বিস্ফোরণ করে উল্লাস

  • অর্থপাচারকারীদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা তৈরিতে আইনের সংশোধন চায় দুদক

  • ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’: সমুদ্রবন্দরগুলোতে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

  • পুলিশ হেফাজত থেকে পালাল রোহিঙ্গা কালাম

  • বিমানবন্দরে আটকে দেয়া হলো জ্যাকুলিনকে

  • দেশের অর্থনৈতিক চাকা সচল রাখতে অবদান রাখছে নাভানা গ্রুপ

কোন ফল কারা খাবেন, কীভাবে খাবেন

কোন ফল কারা খাবেন, কীভাবে খাবেন

সুষম ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যতালিকায় অন্তত একটি ফল থাকা আবশ্যক। প্রতিদিনের ভিটামিন ও খনিজ উপাদানের চাহিদার অনেকটা ফলের মাধ্যমেই পূরণ করার যায়। ফল খেয়ে সবচেয়ে বেশি উপকার পাওয়া যায় মৌসুমি ফল থেকে। কারণ একেক মৌসুমের ফলের একেক ধরনের উপকারিতা আছে।

বেশির ভাগ ফলই অত্যন্ত সহজপাচ্য। এতে থাকে সহজ শর্করা-ফ্রুকটোজ, গ্লুকোজ ও লেভ্যুলোজ থাকায় ফল হজমে সমস্যা করে না, কিছু ক্ষেত্রে সাহায্য করে। কিছু ফলে আঁশ বেশি থাকে বলে অনেক সময় হজম হতে চায় না। তবে বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করতে ও ওজন কমাতে ফাইবার বা আঁশজাতীয় খাবার উপকারী।

ফলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ভিটামিন এ, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম ইত্যাদি থাকে। ভিটামিন সম্পূর্ণ পেতে তাজা ও কাঁচা ফল খোসাসহ খাওয়াই ভালো। ফল বেশি দিন ফ্রিজে রাখলে অনেক সময় এর গুণাগুণ কিছু নষ্ট হতে পারে। তাই ফ্রিজে রাখলে মুখবন্ধ পলিথিন ব্যাগে রাখা উচিত।

আরও পড়ুন: ক্যালসিয়ামের ঘাটতি মেটাবে যেসব খাবার

কিডনি রোগীদের অনেক সময় বেশি পটাসিয়ামযুক্ত ফল খেতে নিষেধ করা হয়। এ ক্ষেত্রে চিকিত্‍সকের পরামর্শ নেয়া ভালো। এমনিতে পটাসিয়ামযুক্ত ফল রক্ত চলাচল বাড়ায় ও হৃদরোগীদের জন্য উপকারী।

অতি শর্করাযুক্ত ফলমূল ডায়াবেটিসের রোগীদের রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই বলে ডায়াবেটিসের রোগীদের ফল খাওয়া একেবারে নিষেধ নয়। আমড়া, পেয়ারা, জাম্বুরা, জাম, বরই ইত্যাদি চাইলে খাওয়া যাবে। কিন্তু মিষ্টি ফলগুলোর ক্ষেত্রে খেতে হবে হিসাব করে।

আরও পড়ুন: রক্তস্বল্পতা থেকে মুক্তি দেবে এই ৫ আয়রন সমৃদ্ধ পানীয়

ফলের রস বানিয়ে খাওয়ার চেয়ে গোটা ফল খাওয়া বেশি উপকারী। কারণ ফলের রসে এর খোসা ও অন্যান্য অংশ বাদ পড়ে, ফলে বাদ পড়ে যায় কিছু গুণাগুণও। ফাইবার বা আঁশের পরিমাণও কমে যায়।

ফল সালাদ করে, নাশতা হিসেবে বা ডেজার্ট হিসেবে খাওয়ার অভ্যাস করুন। উচ্চ রক্তচাপের রোগীরা লবণ দিয়ে ফল খাবেন না। প্রতিদিন ভাতের সঙ্গে লেবু খান। এটাও ফলের তালিকায় যোগ হবে।

এসিএন/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

লাইফস্টাইল খবর