channel 24

সর্বশেষ

  • আজ জাতিসংঘ দিবস

  • চুরি করতে গিয়ে নুরুল দম্পতিকে হত্যা করে রিকশা চালক: পিবিআই

  • স্বপ্নের পায়রা সেতু উদ্বোধন আজ

  • বাবরদের ভারত বধের টোটকা দিয়েছেন ইমরান খান

  • মুহিবুল্লাহ হত্যা: আদালতে আজিজুলের স্বীকারোক্তি

  • প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার, ক‌লেজ শিক্ষক আটক

  • নিয়ন্ত্রণে বাড্ডার আগুন

  • আপেল যখন বিপদের কারণ!

  • হজমের সমস্যা সমাধানের কার্যকরী ৬ উপায়

  • অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে নারী উদ্যেক্তারা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • বাড্ডায় ফার্নিচারের দোকানে আগুন

  • নাটক-সিরিয়ালে ‘আলিঙ্গন’ নিষিদ্ধ করলো পাকিস্তান

  • ড. সমীর কুমার সাহাকে বিজ্ঞান সম্মাননা দিয়েছে পথিকৃৎ ফাউন্ডেশন

  • নীরব ঘাতক কিডনি রোগ: প্রতিকার ও করণীয় (ভিডিও)

  • ১০ দফা দাবি বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান মালিক-শ্রমিক

তৈলাক্ত ত্বক নিয়ে প্রচলিত যত ভুল ধারণা

তৈলাক্ত ত্বক নিয়ে প্রচলিত যত ভুল ধারণা

সুন্দর, সতেজ ত্বক পেতে কে না চায়। কিন্তু ত্বকের ধরণ অনুযায়ী কারও ত্বক শুষ্ক, কারও বা তৈলাক্ত। ত্বক তৈলাক্ত নিয়ে অস্বস্তিতে থাকতে হয় সব সময়। তার উপর চিন্তা থাকে- এই বুঝি ব্রণ উঠে গোটা মুখটা ভরে গেল। তৈলাক্ত ত্বকে ব্রণের সমস্যা বেশি হয় একথা সবসময় সত্যি নয়। এছাড়া তৈলাক্ত ত্বক নিয়ে আরও কিছু প্রচলিত ধারণ আছে, যেমন ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার না করা, বারবার মুখ ধোয়া বা বেশি ব্রণ হওয়ার মতো বিষয়গুলো তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে বলা হলেও সব ধারণা সঠিক নয়।

তৈলাক্ত ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের প্রয়োজন নেই
ত্বক শুষ্ক হোক বা তৈলাক্ত, ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখতে সব ধরনের ত্বকেই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা প্রয়োজন। 

মুম্বাইয়ের ‘অ্যাম্ব্রোসিয়া আইস্থেটিক্স’য়ের প্রতিষ্ঠাতা ও ত্বক বিশেষজ্ঞ ডা. নিকেতা সোনাভেন বলেন, ‘তৈলাক্ত ত্বক নিয়ন্ত্রণে রাখার মূল চাবিকাঠি হল অন্যান্য পণ্য থেকে বাড়তি তেল যোগ না করে আর্দ্র রাখা। আর্দ্রতার অভাবে ত্বক আরও বেশি তেল নিঃসরণ শুরু করে’।

তিনি আরও বলেন, ‘তাই তৈলাক্ত ত্বকের জন্য হালকা ও লোমকূপ বন্ধ করবে না এমন ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত।’

অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসের ফলে ত্বক তৈলাক্ত হয়
অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসের ফল ভোগ করে আমাদের গোটা শরীর। সুস্বাস্থ্যের জন্য স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসের ভূমিকা অপরিসী। তবে তৈলাক্ত ত্বক মানেই অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসের অভ্যস্ততা- এমন ধারণা সঠিক নয়। বংশগতি ও পরিবেশ কারণেও ত্বক তৈলাক্ত হতে পারে।

ডা. সোনাভেন বলেন, ‘বংশগতি, হরমোন এমনকি পরিবেশগত বিষয়ও ত্বক তৈলাক্তার জন্য দায়ী। আর এসব মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিতে পারে অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস।’

নিয়মিত এক্সফলিয়েট ত্বকের তৈলাক্ততা কমায়
ত্বক ভালো রাখতে এক্সফলিয়েট করা জরুরি কিন্তু তা প্রতিদিন নয়। অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো না। অতিরিক্ত এক্সফলিয়েট করলে ত্বক আরও বেশি তেল নিঃসরণ করে এবং একইভাবে দিনে দুবারের বেশি মুখ ফেইশওয়াশ দিয়ে পরিষ্কার করলে ত্বকের প্রাকৃতিক তেল বা সিবাম কমে গিয়ে শুষ্কতার সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ডা. সোনাভানে বলেন, ‘তৈলাক্ত ত্বক এক্সফলিয়েট করে ব্রণ, ব্ল্যাকহেডস এবং লোমকূপের ময়লার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় ঠিকই কিন্তু অতিরিক্ত এক্সফলিয়েট করা লালচেভাব, র‌্যাশ এমনকি বাড়তি সিবাম নিঃসরণের জন্য কারণ হতে পারে।’

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য সানস্ক্রিন ভালো নয়
তৈলাক্ত ত্বকও সূর্যালোকে ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাই রোদে পোড়া থেকে বাঁচতে সানস্ক্রিন ব্যবহার করা জরুরি। এই ধরনের ত্বকে জেল বা ‘ম্যাটিফাইং’ সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উপকারী, এতে বাড়তি সাদা বা ফ্যাকাশে ভাব দেখা দেয় না ও বাড়তি তেল নিঃসরণ হয় না। পাশাপাশি সূর্যালোক থেকেও সুরক্ষা পাওয়া যায়।

তৈলাক্ত ত্বক মানেই ব্রণ
তৈলাক্ত ত্বকে সিবাম লোমকূপে আটকে থেকে তেল ও ময়লা আটকে ফেলে। এছারাও মৃত কোষ লোমকূপে জমাট বেঁধে ব্রণ সৃষ্টি পারে। তবে ব্রণ হওয়ার এটাই একমাত্র কারণ নয়।

হঠাৎ করে ত্বকে ব্রণের সমস্যা দেখা দিলে বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে নেওয়া ও ত্বক উপযোগী প্রসাধনী ব্যবহার করে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।

এসিএন/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

লাইফস্টাইল খবর