channel 24

সর্বশেষ

  • বরিশাল থেকে রাজধানীর উদ্দেশে ছেড়েছে তিনটি লঞ্চ

  • মডেল পিয়াসা গ্রেপ্তার

  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিরাপত্তা ব্যবস্থার পুনর্বিন্যাস

  • সিরাজগঞ্জে ব্রিজের অভাবে ২৫ গ্রামের মানুষের দুর্ভোগ

  • বেড়াতে গিয়ে পিকাপের ধাক্কায় বাবার মৃত্যু

  • ভুয়া পরিচয়ে নিয়মিত টকশো করতেন ইশিতা!

  • বিধি-নিষেধে ঢাকায় কমেছে গ্রেপ্তার-জরিমানা

  • রংপুরে বখাটের ছুরিকাঘাতে আহত মাদরাসাছাত্রীর মৃত্যু

  • এবার এমপি শিমুলের বিরুদ্ধে জিডি করলেন সুজিত সরকার

  • এক স্বামীকে নিয়ে দুই বধূর টানাটানি

  • ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে চিরুনি অভিযানের নির্দেশ

  • চতুর্থবারের মতো বিপিএল শুরুর সূচি দিলো বাফুফে

  • যুক্তরাষ্ট্র আর ড্রেসেলের শ্রেষ্ঠত্বে শেষ হলো অলিম্পিক সাঁতার

  • টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সমালোচনা নিয়ে বিরক্ত ডমিঙ্গো

  • আফগানিস্তানে তালেবান ও সরকারি বাহিনীর মধ্যে তুমুল লড়াই

যে সাধারণ খাবার দূর করবে লিভারের চর্বি

যে সাধারণ খাবার দূর করবে লিভারের চর্বি

বিভিন্ন কারণেই লিভারে চর্বি জমে যেতে পারে। লিভারে চর্বি জমার এ রোগকে বলা হয় ফ্যাটি লিভার। ফ্যাটি লিভারকে দুইটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করেছেন চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা। অ্যালকোহলিক ও নন-অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার। অনিয়মিত জীবনযাপন বা মদ্যপানের কারণে হতে পারে ফ্যাটি লিভার।

অতিরিক্ত ওজনের কারণে এই রোগের ঝুঁকি বেড়ে যায় বহু গুণ। আমেরিকান একটি সংস্থার তথ্য মতে, দেশটির প্রায় এক-তৃতীয়াংশ মানুষই ফ্যাটি লিভারে আক্রান্ত। অনেক সময় অতিরিক্ত প্রক্রিয়াজাত খাবার খাওয়ার ফলে বহু অল্প বয়সীদেরও লিভারে চর্বি জমা হতে দেখা যায়। 

লিভারের প্রধান কাজ হচ্ছে রক্তের দুষিত পদার্থের ছাঁকনি হিসেবে কাজ করা। তাই লিভারে অতিরিক্ত চর্বি জমে যাওয়া মানে লিভার তার নিজের কাজ ঠিক মত করতে পারবে না। আর তখনই শুরু হবে নানান শারীরিক জটিলতা। এই সমস্যা থেকে বাঁচার সবচেয়ে কার্যকরী উপায় হচ্ছে স্বাস্থ্যকর ও সুষম খাদ্য গ্রহণ করা। ঠিক এমন ৫টি খাবারের কথাই এখন জেনে নিন।

১. বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে ফ্যাটি লিভারের বিরুদ্ধে কফি খুবই কার্যকরী একটি পানীয়। যারা নিয়মিত কফি পান করেন, তাদের ফ্যাটি লিভারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে যায় অনেকাংশেই। লিভারের স্বাস্থ্যকর এনজাইম উৎপাদন ও বিভিন্ন প্রদাহের বিরুদ্ধে লড়াই করে কফি।

২. লিভারের রোগীদের জন্য আরও একটি জরুরি খাদ্য উপাদান হচ্ছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড। স্যালমন, টুনা, কোরাল, ট্রাউট ইত্যাদি বিভিন্ন সামুদ্রিক মাছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায়। এই এসিড লিভারে জমে থাকা চর্বি দূর করতে সাহায্য করে। 

৩. শুধু সামুদ্রিক মাছই নয়, আখরোটেও থাকে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড। পর্যাপ্ত পরিমাণে আখরোট খেলে যকৃতের কার্যকারিতা বাড়ে বহু গুণ।

৪. গ্রিন টি'র উপকারিতা সম্পর্কে নতুন করে কিছু বলার প্রয়োজন নেই। ফ্যাটি লিভারে আক্রান্ত রোগীদের জন্য এক আদর্শ পানীয়র নাম গ্রিন টি। এই চা রক্তে কোলেস্ট্রোরেলের মাত্রা কমিয়ে যকৃতের চর্বি কমাতে সহায়তা করে। 

৫. অলিভ অয়েলও ফ্যাটি লিভারের বিরুদ্ধে খুব কার্যকরী। সাধারণ তেল দিয়ে রান্না করলে রক্তে কোলেস্ট্রোরেলের মাত্রা বেড়ে যায় ফলে লিভারেও বাড়ে চর্বির পরিমাণ। তবে অলিভ অয়েলে রান্না করা খাবার খুবই স্বাস্থ্যকর। 

সূত্রঃ হেলথলাইন

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

লাইফস্টাইল খবর