channel 24

সর্বশেষ

  • দেড় কোটি টাকায় বিক্রি হলো হুররাম সুলতান

  • প্রার্থী হয়ে লাউয়ের বীজ বিলাচ্ছেন লাল

  • সংবিধানে মুক্তিযুদ্ধ ও বীর মুক্তিযোদ্ধার বিষয় যুক্ত করতে রিট

  • দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা দিলো ট্রেন

  • নরসিংদীতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সং ঘর্ষে নি হ ত ২

  • মুসলিম থেকে হিন্দু হলেন ইন্দোনেশিয়ার জাতির জনকের মেয়ে

  • বাংলাদেশ ম্যাচের আগে শক্তি বাড়াল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

  • আরিয়ানের তদন্তকারী সমীরের বিরুদ্ধে ঘুষের অভিযোগ

  • আবাসিক হোটেল থেকে ঢাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত ম র দে হ উদ্ধার

  • গুনে গুনে পাঁচ গোল হজম করল বায়ার্ন মিউনিখ

  • আরিয়ান-কাণ্ডে নতুন মোড়: অন্যতম সাক্ষী কিরণ গোসাভি আটক

  • প্রেমে ব্যর্থ হয়েই সুমাইয়াকে খু ন করে মনির

  • স্ত্রীর ইচ্ছাপূরণে ১৯ লাখ টাকার গহনা দান করে দিলেন স্বামী

  • পাটুরিয়ায় কাত হয়ে যাওয়া ফেরির উদ্ধারকাজ ফের শুরু

  • দৌলতখানে নৌকা সমর্থিত প্রার্থীর অফিসে ভাঙচুর

লটারিতে ১৩ কোটি টাকা জিতলেন অটোচালক!

লটারিতে ১৩ কোটি টাকা জিতলেন অটোচালক!

কপাল ফিরতে সময় লাগে না। এক সেকেন্ডই যথেষ্ট যে কারও ভাগ্যের চাকা ঘুরতে। তেমনই একজন কপালওয়ালা হলেন ভারতের কেরালার অটোচালক জয়পালান পি আর। রাজ্যের এরনাকুলাম জেলার কোচির মারাদুর বাসিন্দা জয়পালান। তার বয়স ৫৮ বছর। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানা গেছে।

দেয়ার মতো আহামরি পরিচয় না থাকলেও মাত্র ৩০০ রুপি দিয়ে লটারি কিনে রাতারাতি কোটিপতি হয়ে গেছেন তিনি। লটারি ভাগ্য তার এতই সুপ্রন্ন যে, রাজ্য সরকারের থিরুভোনাম বাম্পার লটারির ১২ কোটি রুপি (প্রায় ১৩ কোটি ৮৯ লাখ ৮৯ হাজার ৮৫৯ টাকা) জিতে নিয়েছেন মাত্র ৩০০ রুপি দিয়েই।

প্রথম পুরস্কার জেতার পর নিকটবর্তী ব্যাংকের শাখায় গিয়ে লটারির মূল কপি জমা দেন জয়পালান। কর এবং সংস্থাটির কমিশন কাটার পর এখন প্রায় ৭.৪ কোটি রুপি (প্রায় ৮ কোটি ৫৬ লাখ ৪২ হাজার ৫৪২ টাকা ) পাবেন জয়পালান।

স্থানীয় গণমাধ্যমকে জয়পালান বলেন, মীনাক্ষী লাকি সেন্টার থেকে গত ১০ সেপ্টেম্বর তিনি এই লটারি কিনেছিলেন। জিততে পারে এমন একটি নম্বর বাছাই করে লটারি কেনেন জয়পালান। লটারির দাম ছিল ৩০০ রুপি। জয়পালান জানান, তিনি নিয়মিতই লটারি কেনেন। এর আগেও ৫ হাজার রুপি জিতেছিলেন বলে জানান তিনি।

জয়পালান জানান, রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) টিভি স্ক্রিনে তার টিকিটের নম্বর ভেসে ওঠার পরই প্রথম পুরস্কার পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হন তিনি। তবে নিজের লটারির কথা কেবল তার ছেলেকেই বলেছিলেন জয়পালান। পরিবারের আর কোনও সদস্য বা বন্ধুবান্ধবদের বলেননি।

পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়ার জন্য সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) পত্রিকায় লটারির নম্বর চেক করেন জয়পালান। নিশ্চিত হয়ে লটারি নিয়ে সরাসরি ব্যাংকে জমা করেন তিনি। পুরস্কারের এত টাকা দিয়ে কি করবেন জানতে চাইলে জয়পালান বলেন, আমার কিছু ঋণ আছে সেগুলো শোধ করবো। আদালতে দুটি মামলাও আছে, সেগুলোরও সমাধান করতে চাই। আমার বাচ্চাদের ভালো শিক্ষা ও খাবার দিতে চাই। আমার বোনদের আর্থিকভাবে সহায়তা করতে চাই।

প্রথম পুরস্কার কে পেয়েছেন তা নিয়ে এর আগে কিছুটা ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল। দুবাইয়ে বসবাসরত কেরালার ওয়ানাড় জেলার সাইদ আলাভি প্রথম পুরস্কার পাওয়ার দাবি করেছিলেন। তিনি জানান, এক বন্ধুর মাধ্যমে লটারি কিনেছিলেন তিনি। পরে জানা যায়, তার বন্ধু তাকে ধোঁকা দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, রাজ্য সরকারের লটারি বিভাগ জানিয়েছে, এ বছর তারা থিরুভোনাম বাম্পার লটারির ৫৪ লাখ টিকিট ছাপিয়েছে। সবগুলো টিকিটই নাকি বিক্রি হয়ে গেছে। গত বছর ৪৪ লাখ টিকিট ছেপেছিল লটারি বিভাগ। এ বছর টিকিট বিক্রি করে রাজ্য সরকারের আয় হয়েছে ১২৬ কোটি রুপি।

এইউ

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর