channel 24

সর্বশেষ

  • প্রার্থী হয়ে লাউয়ের বীজ বিলাচ্ছেন লাল

  • সংবিধানে মুক্তিযুদ্ধ ও বীর মুক্তিযোদ্ধার বিষয় যুক্ত করতে রিট

  • দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা দিলো ট্রেন

  • নরসিংদীতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সং ঘর্ষে নি হ ত ২

  • মুসলিম থেকে হিন্দু হলেন ইন্দোনেশিয়ার জাতির জনকের মেয়ে

  • বাংলাদেশ ম্যাচের আগে শক্তি বাড়াল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

  • আরিয়ানের তদন্তকারী সমীরের বিরুদ্ধে ঘুষের অভিযোগ

  • আবাসিক হোটেল থেকে ঢাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত ম র দে হ উদ্ধার

  • গুনে গুনে পাঁচ গোল হজম করল বায়ার্ন মিউনিখ

  • আরিয়ান-কাণ্ডে নতুন মোড়: অন্যতম সাক্ষী কিরণ গোসাভি আটক

  • প্রেমে ব্যর্থ হয়েই সুমাইয়াকে খু ন করে মনির

  • স্ত্রীর ইচ্ছাপূরণে ১৯ লাখ টাকার গহনা দান করে দিলেন স্বামী

  • পাটুরিয়ায় কাত হয়ে যাওয়া ফেরির উদ্ধারকাজ ফের শুরু

  • দৌলতখানে নৌকা সমর্থিত প্রার্থীর অফিসে ভাঙচুর

  • একই রাতে হোঁচট খেল বার্সা-রিয়াল

ষষ্ঠ শ্রেণির দুই শিক্ষার্থীর অ্যাকাউন্টে জমা হলো হাজার কোটি টাকা!

ষষ্ঠ শ্রেণির দুই শিক্ষার্থীর অ্যাকাউন্টে জমা হলো হাজার কোটি টাকা!

পড়াশোনার সহায়তায় সরকারি অনুদানের জন্য উত্তর বিহারে গ্রামীণ ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন ষষ্ঠ শ্রেণির দুই শিক্ষার্থী। বাবা-মা অ্যাকাউন্টে সরকারি অনুদানের টাকা এসেছে কি না জানতে চাওয়ায় অ্যাকাউন্ট চেক করতে গিয়ে চোখ কপালে ওঠার মতো অবস্থা দুই শিক্ষার্থীর। তারা দেখতে পান তাদের অ্যাকাউন্টে রয়েছে ৯০৬ কোটি রুপি, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১ হাজার ১১৫ কোটি টাকা। 

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বিহার রাজ্যের কাটিহার জেলার বাগাউরা পঞ্চায়েতের পাসতিয়া গ্রামে।

আরও পড়ুন: আফগানিস্তানে স্কুল খুলছে, তবে…

বিষয়টিতে হতবাক গ্রামীণ ব্যাংকের কর্মকর্তারা। এত অর্থ কীভাবে ওই দুই শিক্ষার্থীর অ্যাকাউন্টে জমা হলো, তা খতিয়ে দেখছেন তারা। 

এদিকে এ ঘটনা দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে অনেকেই নিজেদের অ্যাকাউন্ট চেক করতে শুরু করেন। তাদের আশা ছিল, যদি বড় অঙ্কের টাকা তাদের অ্যাকাউন্টেও জমা পড়ে!

এনডিটিভি ও ইন্ডিয়া টুডের খবরে বলা হয়েছে, গুরুচন্দ্র বিশ্বাস এবং আশিস কুমার দুইজনই একই গ্রামের বাসিন্দা। আশিসের অ্যাকাউন্টে ৬ কোটি ২ লাখ রুপি আর গুরুচরণের অ্যাকাউন্টে পাওয়া যায় ৯০০ কোটি রুপি।

গ্রামীণ ব্যাংকের ম্যানেজার মনোজ গুপ্ত খবরটি শুনে স্তম্ভিত হয়ে যান। এবং সঙ্গে সঙ্গে ওই দু’জনের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকার লেনদেনের প্রক্রিয়া বন্ধ করে দেন।

ওই জেলার ম্যাজিস্ট্রেট উদয় মিশরা বলেছেন, ব্যাংকের ব্যবস্থাপক আমাদের জানিয়েছেন, কম্পিউটার সিস্টেমে ত্রুটির কারণে এমনটি হয়েছে। আসলে ওই দুই শিক্ষার্থীর ব্যাংক স্টেটমেন্টে বিপুল অর্থ দেখা যাবে, কিন্তু তারা তা তুলতে পারবে না। কারণ, টাকাগুলো দুই অ্যাকাউন্টে জমা পড়েনি। 

এদিকে এই ঘটনার দুইদিন আগে বিহারেরই খাগাড়িয়া জেলার এক শিক্ষকের অ্যাকাউন্টে হঠাৎই সাড়ে পাঁচ লাখ রুপি ঢুকে যায়। কিন্তু এই টাকা পেয়ে শিক্ষক রঞ্জিত দাস সেটা ফেরত দিতে অস্বীকার করেন। শুধু অস্বীকারই নয়, ওই টাকা থেকে ১ লাখ ৬০ হাজার ৯৭০ রুপি খরচও করে ফেলেন। বিষয়টি নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ জমা পড়লে পুলিশ রঞ্জিতকে গ্রেপ্তার করে।

এএ

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর