channel 24

সর্বশেষ

  • মধ্যরাত থেকে যেসব এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ

  • যশোরে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীদের হামলায় নৌকার ২০ কর্মী আহত

  • পান্থপথে ময়লার গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু : ডিএনসিসির সেই চালক গ্রেপ্তার

  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ক্রমবর্ধমান সহিংসতা সীমান্তের বাইরেও ছড়িয়ে পড়তে পারে: প্রধানমন্ত্রী

  • আমতলীতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান রাফেজা বেগম

  • ২২ কোটি টাকা লোকসানের বোঝা মাথায় নিয়ে আখ মাড়াই শুরু

  • শেরপুরে আ.লীগ নেতাকে বহিষ্কারের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ

  • করোনার নতুন ধরন ‘ভয়ংকর’, দেশে দেশে সতর্কতা

  • আকর্ষণীয় বেতনে চাকরি দিচ্ছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

  • নতুন সময়ে মাঠে গড়াবে দ্বিতীয় দিনের খেলা

  • সন্ত্রাসীদের কোনো ধর্ম নেই: ভারতের হাইকমিশনার

  • চরের অবশিষ্ট মানুষকে দ্রুত বিদ্যুৎ দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

  • যাদের কারণে হুমকির মুখে শোয়েবের ১৮ বছরের রাজত্ব

  • পাকিস্তান ম্যাচ শুরুর আগে ভয়ে কাঁপছিলেন কোহলিরা: ইনজামাম

  • মারা গেলেন পৃথিবীর প্রবীণতম নারী

নাইন-ইলেভেনে উদ্ধার তৎপরতায় ঝাঁপিয়ে পড়েন নৌযান চালকরা

নাইন-ইলেভেনে উদ্ধার তৎপরতায় ঝাঁপিয়ে পড়েন নৌযান চালকরা

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে জঙ্গি হামলার পর, সাধারণ মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসেন, নৌযান চালকরা। নিজের জীবনের কথা না ভেবে ঝুঁকি নিয়ে উদ্ধার তৎপরতায় ঝাঁপিয়ে পড়েন তারা। উদ্ধার করেন নারী-শিশুসহ অসংখ্য লোককে।

নিউইয়র্কে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টা ৫ মিনিট; বদলাতে থাকে ইতিহাসের গতিপথ; নিউইয়র্কের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে আছড়ে পড়ে যাত্রীবাহী একটি বিমান; যা দেখে হতভম্ব পুরো বিশ্ব; এর রেশ কাটতে না কাটতেই আঘাত হানে আরেকটি বিমান।

নিউইয়র্কবাসী সাক্ষী হয় ভয়াবহতম এক অধ্যায়ের। ধ্বংসযজ্ঞ থেকে বাঁচতে সবাই যখন এদিক ওদিক ছুটছেন, ঠিক সেইসময়ে এগিয়ে আসে ছোট বড় বিভিন্ন নৌযান।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ফেরি ক্যাপ্টেন রিচার্ড নারুসজেউইক বলেন, 'খুব সুন্দর একটা দিন ছিল। আমরা যাত্রীদের ফেরিতে করে নিউজার্সিতে পারাপার করছিলাম। হঠাৎই টুইন টাওয়ারে বিমানের আঘাতে পাল্টে গেল পুরো চিত্র। বোটের দিকে দৌড়াচ্ছে সবাই। তাদের উদ্ধারে আমরা ঝাঁপিয়ে পড়ি।'

অসম সাহসিকতায় রিচার্ডের মতো এগিয়ে আসে আরও অনেক ক্যাপ্টেন। লোয়ার ম্যানহাটন থেকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয় প্রায় পাঁচ লাখ মানুষকে।

চেলসা স্ক্রিমারের ক্যাপ্টেন সেন কেনেডি বলেন, 'যখন প্রথম টাওয়ারটি ধসে পড়লো, মনে হচ্ছিলো কালো মেঘ ধেঁয়ে আসছে। মানুষজন জীবন বাঁচাতে হুড়োহুড়ি করতে থাকে।'

সাবেক ফেরি ক্যাপ্টেন রিচার্ড নারুসজেউইক বলেন, 'অনেকেই পানিতে ঝাপিয়ে পড়ে সাঁতার কাটতে থাকে। অন্তঃসত্ত্বা এক নারীকে সাঁতার কাটতে থেকে দেখে উদ্ধার করি। ফেরি, ছোট নৌকা, জাহাজ, যেভাবে পেরেছি তাদের উদ্ধার করেছি।'

ইতিহাসের ভয়াবহতম এই বিমান হামলার ক্ষত শুকাবার নয়। তবে, বিপদগ্রস্তদের সহায়তায় এমন নির্ভীক অভিযাত্রীরা প্রশংসিত হবেন যুগের পর যুগ।

আরকে

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর