channel 24

সর্বশেষ

  • জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান হলেন শাফিন আহমেদ

  • খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ল আরও ছয় মাস

  • চাকরি দিচ্ছে সিটি ব্যাংক

  • ইভ্যালির গ্রেপ্তার কর্ণধারের বিরুদ্ধে আরেক মামলা

  • নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস খাদে, আহত ৩০

  • যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ক্ষতিপূরণ চায় কাবুল হা ম লায় নি হ তদের পরিবার

  • আফগানিস্তানের মেয়েরা প্রাথমিকের অনুমতি পেলেও পায়নি মাধ্যমিকের

  • প্রথমবার মহাকাশ ঘুরে এলেন চার সাধারণ নভোচারী

  • স্বামীর চাপাতির কোপে গুরুতর আহত স্ত্রী

  • বিচ্ছেদ চেয়ে শ্রাবন্তীর মামলা

  • দেশীয় গাছের ক্ষতি করে পরিবেশ নষ্ট করছে বিদেশি প্রজাতি

  • ব্যাংক কর্মীদের ছাঁটাই বন্ধে বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন নির্দেশনা

  • নিজের কিডনি দিয়ে বড় ভাইকে নতুন জীবন দিলেন ছোট ভাই

  • ডিআইজি পার্থ গোপালকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

  • অনিশ্চয়তায় অস্ট্রেলিয়ার পাকিস্তান সফরও

অভিমানী বাবুল সুপ্রিয়র বার্তা 'অলবিদা চললাম'

অভিমানী বাবুল সুপ্রিয়র বার্তা 'অলবিদা চললাম'

দীর্ঘদিন মন্ত্রী ছিলেন ভারতের খ্যাতিমান বাঙালি গায়ক বাবুল সুপ্রিয়। ভারতের লোকসভায় পশ্চিমবঙ্গের একসময়ের একমাত্র বাঙালি এমপি তিনি। কিন্তু মন্ত্রিত্ব যাওয়ার পর ফেসবুকেই 'দুঃখ' করেন বাবুল সুপ্রিয়। দলের সভাপতির সঙ্গেও 'ঠোকাঠুকি'। এবার ফেসবুকে রাজনীতি ছাড়ার ঘোষণা দিলেন বাবুল সুপ্রিয়। তার এই সিদ্ধান্তের নেপথ্যে মন্ত্রিত্ব চলে যাওয়া একটা কারণ। এটিও উল্লেখ করেন তিনি।

'অলবিদা চললাম' দিয়ে শুরু বাবুলের ফেসবুকের পোস্ট। সক্রিয় রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস নেওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে তিনি লিখেছেন, 'সবার সব কথা শুনলাম। বাবা, মা, স্ত্রী, কন্যা, দু-একজন প্রিয় বন্ধুবান্ধব। সবটুকু শুনে বুঝে অনুভব করেই বলি তৃণমূল, কংগ্রেস, সিপিএম, কোথাও নয়। কেউ আমাকে ডাকেনি। আমিও কোথাও যাচ্ছি না। আমি একটা দলেরই খেলোয়াড়। চিরকাল মোহনবাগানকে সমর্থন করেছি। আর শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ বিজেপিই করেছি।

আরও পড়ুন: উদ্দেশ্যহীন হেঁটেছিলেন বিদ্যা বালান! 

বাবুল মনে করেন, রাজনীতি না করেও সমাজসেবা করা যায়। নিজেকে একটু গুছিয়ে নিই। রাজনীতি আগেও ছাড়তে চেয়েছিলেন। ছাড়তে দেননি অমিত শাহ, জেপি নাড্ডা। এটিও স্পষ্ট করেন তিনি।

বাবুলের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলীপের 'মধুর' সম্পর্ক। তবে রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে বর্তমানে তার সম্পর্ক যে ভালো নয়, তাও বাবুল স্পষ্ট করে দিয়েছেন ফেসবুক পোস্টে। আসানসোলের সাংসদের কথায়, ২০১৪ আর ২০১৯-র মধ্যে অনেক ফারাক।

বিজেপির টিকিটে আমি একাই ছিলাম জানিয়ে বাবুল বলেন, বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিই প্রধান বিরোধী দল। ভোটের আগে থেকেই কিছু কিছু ব্যাপারে রাজ্য নেতৃত্বের সাথে মতবিরোধ হচ্ছিল বাবুলের।
 
মন্ত্রিত্ব যাওয়ার পর থেকে অভিমান হয়েছিল বাবুল সুপ্রিয়র। খুব বেশি প্রকাশ্যেও আসছিলেন না। ফলে দলের সঙ্গে যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে, তার ইঙ্গিত ছিলই। বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য বলেন, বাবুল সুপ্রিয় দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত দুঃখজনক। উনি অত্যন্ত সৎ রাজনীতিক। রাজনীতিতে এই ধরনের মানুষের দরকার আছে।

একেএম/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর