channel 24

সর্বশেষ

  • ভিয়েনায় এশিয়া-প্যাসিফিক গ্রুপের সভাপতির দায়িত্ব নিলেন মোহাম্মদ মুহিত

  • মহাখালীতে কৃষিবিদ ফাউন্ডেশন ফর হিউম্যানিটির উদ্যোগে সপ্তাহব্যপী খাবার বিতরণ

  • খ্যাতির মোহেই আলোচনায় থাকতেন হেলেনা: র‌্যাব

  • ব্যান্ডেজ খুলতে গিয়ে নবজাতকের আঙ্গুল কেটে ফেলল নার্স

  • এবার ১০ মিনিটে দু’বার টিকা নিয়ে ভাইরাল বাশারুজ্জামান

  • বেড না পেয়ে হাসপাতালের সামনে মৃত্যু

  • পলাশবাড়ীতে কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় ৪ সিএনজি যাত্রী নিহত

  • হেলেনা জাহাঙ্গীরের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

  • করোনায় বাড়ছে মৃত্যু, রাজধানীতে নেই সচেতনতা

  • মোবাইল চুরির অপবাদে হাত-পা বেঁধে শিশু নির্যাতন

  • একদিনে আরও ১৭০ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

  • উদ্দেশ্যহীন হেঁটেছিলেন বিদ্যা বালান!

  • গোবিন্দগঞ্জে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ২

  • ১ আগস্ট থেকে খুলছে রপ্তানিমুখী শিল্প-কারখানা

  • অনুমোদনহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে: তথ্যমন্ত্রী

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন কাল, প্রার্থীদের বেশিরভাগই কট্টর ও রক্ষণশীল

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন কাল, প্রার্থীদের বেশিরভাগই কট্টর ও রক্ষণশীল

কাল ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এবার প্রার্থীদের বেশিরভাগই কট্টর ও রক্ষণশীল। যাদের মধ্যে সবচেয়ে আলোচনায়, খামেনির ঘনিষ্ঠ ইব্রাহিম রায়িসি। অভিযোগ আছে, তার জয় নিশ্চিতে বাকি হেভিওয়েট নেতাদের প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে।

ইরানের এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ৭ প্রার্থীর মধ্যে ৫ জনই কট্টর ও রক্ষণশীল। সংস্কারপন্থী ও মধ্যপন্থী আছেন দুইজন। 

ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ৭ প্রার্থী:

১.সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি, বিচার বিভাগের প্রধান। 
২. সাঈদ জালালি, রাজনৈতিক ও কূটনীতিক
৩. মোহসেন রেজায়ি; সিনিয়র সামরিক কর্মকর্তা, বিপ্লবী গার্ড 
৪. আলি রেজা জাকানি
৫. আমির হোসাইন কোয়াজিজাদে হাসেমি
৬. আব্দুল নাসের হেমাতি
৭. মোহসেন মেহের আলীজাদে, সাবেক গভর্নর, ইস্পাহান 

রেভ্যুলেশনারী গার্ডের মোহসেন রেজায়ি কিংবা ইস্পাহানের সাবেক গভর্নর মোহসেন মেহেরের মতো প্রার্থী মাঠে থাকলেও, বেশি আলোচনায় ইব্রাহিম রায়িসি। খামেনির ঘনিষ্ঠ রক্ষণশীল এ নেতা গত নির্বাচনে ছিলেন দ্বিতীয় অবস্থানে।   

সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি
বয়স: ৬০ 
বিচার বিভাগের প্রধান

নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি: 
১. দুর্নীতি দমন
২. দারিদ্র ও বৈষম্য দূরীকরণ
৩. পরমানু চুক্তিতে ফেরা 
৪. যুব বেকারত্ব কমানো

তিনি বলেন, দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট সব চুক্তির মতো পরমাণু চুক্তিতেও ফিরেবো আমরা। অভ্যন্তরীণ সরকার ব্যবস্থা আরো শক্তিশালী করা হবে। 

রায়িসির শক্ত প্রতিপক্ষ ভাবা হচ্ছে, সাবেক কূটনীতিক ও পরমাণু আলোচক সাঈদ জলিলিকে। ১৩র নির্বাচনে ৪২ লাখ ভোট পেয়ে তৃতীয় স্থানে ছিলেন তিনি।

সাঈদ জালিলি
সাবেক কূটনীতিক
বয়স: ৫৫

নির্বাচনি প্রতিশ্রুতি
১. ৬ জাতির পরমাণু চুক্তি কার্যকর করা
২. অর্থনীতি পুনরুদ্ধার
৩. কর্মসংস্থান বৃদ্ধি
৪. বেকারত্ব কমানো 

রায়িসি জিতলে, ইরানের সঙ্গে বহি:বিশ্বের দুরত্ব আরো বাড়বে বলছেন বিশ্লেষকরা। 

ইরানের রাজনৈতিক বিশ্লেষক সানাম ভাকিল বলেন, মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিতর্কিত অতীত আছে রায়েসির। এ দায়ে যুক্তরাষ্ট্র আর ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নিষেধাজ্ঞাও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এমন একজন নেতা যখন প্রেসিডেন্ট হবেন, খুব স্বাভাবিকভাবেই ইরানের সাথে বর্হিবিশ্বের দুরত্ব আরো বাড়বে। 

জনমত জরিপ বলছে ভোটে অনাগ্রহি তরুণরা। ভোটের হার নামতে পারে ৫০ ভাগের নিচে। 

একেতো করোনা মহামারীর প্রথম ধাক্কায় নাস্তানাবুদ ইরান। তারওপর পশ্চিমা অবরোধে ভয়াবহ অর্থনৈতিক চাপেও দেশটি। এছাড়া মধ্যপ্রাচ্য সৌদি- ইসরায়েল ও মার্কিন প্রভাব বলয়ের বিরুদ্ধে, চলমান ছায়াযুদ্ধেও অগ্রভাগে তেহরান। এ অবস্থায় আগামীতে পথচলা খুব একটা সহজ হবে না ইরানের নতুন নেতার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর