channel 24

সর্বশেষ

  • টিআইবির অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার পেয়েছে সার্চলাইট

  • অস্ত্র মামলায় রিজেন্টের সাহেদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

  • ভারতে ২৪ ঘণ্টায় ৮২ হাজার করোনা রোগী শনাক্ত

  • বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন মাহবুবে আলম

  • করোনায় বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি ১০ লাখ ছাড়িয়েছে

  • কৃষি আইনের প্রতিবাদে বিজেপি জোট ছাড়ল আকালি দল

  • ট্রাম্প গত ১৫ বছরের মধ্যে ১০ বছর কোনো আয়কর দেননি

  • ধানমন্ডিতে নির্মাণাধীন ভবনের বেলকনি ধসে ৩ জনের মৃত্যু

  • বছর ব্যবধানে নিত্যপণ্যের দাম বেড়েছে ৫ থেকে ৬৫ শতাংশ

  • গত ৪৫ বছরে সফল রাজনীতিবীদের নাম শেখ হাসিনা: কাদের

  • চট্টগ্রামে ধর্ষণের শিকার এক তরুণী, আটক ২

  • এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: সাইফুর-অর্জুন পাঁচ দিনের রিমান্ডে

  • দেশের ইতিহাস বিকৃতির জনক জিয়াউর রহমান: ওবায়দুল কাদের

  • এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধর্ষণ: রাজন ও আইনুল নামে আরও দুজন আটক

  • অ্যাটর্নি জেনারেলের সম্মানে আজ বসবে না সুপ্রিম কোর্ট

লেবাননে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৭, ধ্বংসস্তূপে চলছে উদ্ধার কাজ

লেবাননে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৭, ধ্বংসস্তূপে চলছে উদ্ধার কাজ

লেবাননের বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৭ জনে। আহত পাঁচ হাজার। গৃহহীন তিন লাখের বেশি মানুষ। ধ্বংসস্তূপে দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে উদ্ধার কাজ। আহতদের চিকিৎসায়, হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বিস্ফোরণের কারণ এখনও জানা না গেলেও কর্মকর্তাদের অবহেলার বিষয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে তদন্ত কমিটি। এরইমধ্যে বন্দরের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকে গৃহবন্দি রাখা হয়েছে।

লেবাননের বৈরুতের একটি হাসপাতালে কাতরাচ্ছে, মাত্র চারদিনের শিশু সোফিয়া। ভয়াবহ বিস্ফোরণে গুরুতর আহত সে।

সুখের সংসার ছিলো আমাদের। মাত্র কয়েক সেকেন্ডেই সব এলোমেলো হয়ে গেলো। সোফিয়ার মতোই কয়েক হাজার মানুষের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। আহতের অনেকে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন।

দুর্ঘটনায় আহত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সদস্যরা আশঙ্কামুক্ত। এরইমধ্যে হাসপাতাল ছেড়েছেন কয়েকজন। বার্তা সংস্থা এপির সাথে সাক্ষাতকারে সেদিনকার ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন এই নৌ কর্মকর্তা।

ইউএনআইএফআইএলের মেরিটাইম টাস্কফোর্স ক্যাপ্টেন এম জয়নাল আবেদিন বলেন, সবদিনের মতোই নিজেদের কাজে ব্যস্ত ছিলাম আমরা। প্রথমে ছোট আগুন দেখতে পাই। এর মিনিট দুই পরেই বড় বিস্ফোরণে এলোমেলো হয়ে যায় চারপাশ। মনে হচ্ছিলো আরেক হিরোশিমার বিস্ফোরণ।

ভয়াবহ এই বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত নগরীতে রুপ নিয়েছে লেবাননের বৈরুত। গৃহহীন হয়েছে তিন লাখের বেশি মানুষ। ধ্বংসস্তুপে চলছে উদ্ধার অভিযান। দেশটিতে চলছে তিনদিনের রাষ্ট্রীয় শোক আর দুই সপ্তাহের জরুরী অবস্থা। বিস্ফোরণে সরকারের অবহেলাকে দায়ী করে ক্ষোভে ফুসছে লেবাননবাসী।

সাধারণ নাগরিকরা জানান, সরকারের অবহেলা, অব্যবস্থাপনা আর দুর্নীতির কারণেই এমন বিস্ফোরণ হয়েছে। বিচার চাইবো কার কাছে। যদি সুযোগ পেতাম এই মুহূর্তে লেবানন ছেড়ে চলে যেতাম। এখানে কোন ভবিষ্যত নেই সাধারণ মানুষের।  

বন্দরে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুদে সম্পৃক্ত বেশ কয়েকজন বন্দর কর্মকর্তাকে গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে। জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির হুশিয়ারী দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম ডিফেন্স কাউন্সিল।

কঠিন এই সময়ে লেবাননের পাশে দাড়িয়েছে বিভিন্ন দেশ। ত্রান ও উদ্ধারকারী দল পাঠিয়েছে জার্মানি, ফ্রান্স ও রাশিয়া। আর্থিক সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। বিস্ফোরণের ঘটনায় স্বাধীন তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর