channel 24

সর্বশেষ

  • বিদ্যুৎ সঞ্চালন ব্যবস্থা বেসরকারি খাতে ছেড়ে দিচ্ছে সরকার

  • 'বন্দুকযুদ্ধে' সাত্তার হত্যা: ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণের নির্দেশ

  • কুমিল্লায় জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ছয়জনের মৃত্যু

  • কুড়িগ্রামে বাস-প্রাইভেটকার সংঘর্ষে নিহত ৪

  • গাড়ির ক্রেতা আকর্ষণে মূল্যছাড়সহ নানা অফার

  • ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি স্বর্ণের মূল্য ৩৫০০ টাকা কমানোর ঘোষণা

  • ৯ বছরেও তারেক মাসুদ স্মৃতি জাদুঘর না হওয়ায় হাতাশ স্বজনরা

  • সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বিচার শুরু

  • সামান্য বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা ও খানাখন্দে বেহাল রংপুর নগরীর রাস্তা

  • সাবরিনা-আরিফসহ ৮ আসামির অভিযোগ গঠনের শুনানি ২০ আগস্ট

  • চটকদার বিজ্ঞাপনে প্রতারণার ফাঁদ, ১২শ' কোটি টাকার চেকসহ আটক ১

  • দ্বিতীয় দিনের মতো দুদকে স্বাস্থ্যের সাবেক ডিজি

  • গোলাম সারওয়ারের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী আজ

  • কুমিল্লায় একসাথে ৫ সন্তান প্রসব

  • ফরিদপুর ভাঙ্গা থানার ওসির বিরুদ্ধে উপজেলা আ. লীগের সংবাদ সম্মেলন

ভারতে একদিনে শনাক্তের নতুন রেকর্ড, আক্রান্ত ছাড়ালো ৮ লাখ

ভারতে একদিনে শনাক্তের নতুন রেকর্ড, আক্রান্ত ছাড়ালো ৮ লাখ

ভারতে একদিনে সর্বোচ্চ ২৭ হাজারের বেশি শনাক্ত নিয়ে মোট আক্রান্ত আট লাখ ছাড়িয়েছে। এরমধ্যে গেলো নয় দিনেই দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে দুই লাখের বেশি।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বুলেটিনের জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৭ হাজার ১৪৪। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৫১৯ জনের। দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যার নিরিখে এখনও পর্যন্ত এটিই সর্বাধিক। এই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ১৯ হাজার ৮৭৩ জন। ভারতে এখন মৃত্যুহার ২ দশমিক ৬৯ শতাংশ এবং সুস্থতার হার ৬২ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

রাজ্যভিত্তিক হিসাবে, মোট আক্রান্তের ৯০ শতাংশই মহারাষ্ট্র, তামিল নাড়ু ও দিল্লির। মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক। মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাণিজ্যনগরী মুম্বাই। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, মহারাষ্ট্রে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৩৮ হাজার ৪১৬। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ৮৯৩ জনের। কোভিড-১৯ সারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ৬২৫ জন। মহারাষ্ট্রে এখন অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৯৫ হাজার ৯৪৩।

দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। দক্ষিণের এই রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৩০ হাজার ২৬১। মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৮২৯ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮২ হাজার ৩২৪ জন। এই রাজ্যে অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৪৬ হাজার ১০৮।

তৃতীয় স্থানে রয়েছে রাজধানী শহর দিল্লি। এখানে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯ হাজার ১৪০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৩০০ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৪ হাজার ৬৯৪ জন। দিল্লিতে অ্যাকটিভ কেস ২১ হাজার ১৪৬।

চতুর্থ স্থানে রয়েছে গুজরাট। এই রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ হাজার ৬৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২২ জনের, সুস্থ হয়েছেন ২৮ হাজার ১৪৭ জন, অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৯ হাজার ৯০০।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর