channel 24

সর্বশেষ

  • বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করেছে জাতিসংঘ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি খুনে মাফিয়াদের বিচার চান স্বজনরা

  • বাসভাড়া বৃদ্ধি মরার উপর খাড়াঁর ঘা

  • সীমিত পরিসরে সেবার নামে বাসভাড়া ৮০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব

  • চট্টগ্রামে এবার চিকিৎসা পেলেন না স্বাস্থ্য পরিচালকের মা!

  • কক্সবাজারে নতুন করে ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত

  • ভার্চুয়াল শপথ নিলেন ১৮ বিচারপতি

  • করোনাকালে অসহায়দের পাশে 'ওল্ড ল্যাবরেটরি অ্যাসোসিয়েশন'

  • মেহেরপুরে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন তিন চিকিৎসক

  • রিয়াল বেতিস-সেভিয়া ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফিরছে লা লিগা

  • প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা ছাড়া কোনো রোগীকে ফেরত দেওয়া যাবে না

  • সোমবার শুরু হচ্ছে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চলাচল

  • কাল শুরু হচ্ছে সীমিত আকারে ট্রেন চলাচল

  • চট্টগ্রামে ১০ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুন

  • চলে গেলেন সাবেক তারকা ফুটবলার গোলাম রব্বানী হেলাল

আম্পানের তাণ্ডব: পশ্চিমবঙ্গকে ১ হাজার কোটি রুপি সহায়তার ঘোষণা মোদির

আম্পানের তাণ্ডব: পশ্চিমবঙ্গকে ১ হাজার কোটি রুপি সহায়তার ঘোষণা মোদির

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তাণ্ডবের পর ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে টেলিফোনে সহমর্মিতা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর দুর্গত এলাকা ঘুরে দেখে পশ্চিমবঙ্গকে ১ হাজার কোটি রুপি সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিকে এখনও বিভিন্ন জায়গায় মিলছে মরদেহ। কলকাতাসহ বিভিন্ন স্থানে পানি, বিদ্যুৎ আর ত্রাণের দাবিতে চলছে বিক্ষোভ।

সময় যতই গড়াচ্ছে পশ্চিমবঙ্গজুড়ে ততই স্পষ্ট হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের ক্ষতচিহ্ন। কলকাতার পথে পথে তান্ডবলীলার ছাপ। 

বলা হচ্ছে ১৭৩৭ সালের পর এমন দুর্যোগ আর দেখেনি পশ্চিমবঙ্গ। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত। উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, নদিয়া, হুগলি ও হাওড়া জেলা। এসব এলাকায় ১ লাখ হেক্টর ফসলি জমি এবং ৮০ হাজার হেক্টর ধানি জমি তলিয়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত পশ্চিমবঙ্গের অন্তত ৫ লাখ বাড়িঘর। কেউবা স্বামী আবার কেউবা হারান প্রিয় সন্তান।

ঝড়ের ২৩ ঘন্টা পর টুইট করে বিরোধীতার সমালোচনায় পড়েন প্রধানমন্ত্রী। শুক্রবার সকাল ১১ টায় উড়ে আসেন কলকাতায়। এর মধ্য দিয়ে ৮৩ দিন পর প্রথম কোনো রাজ্য সফরে প্রধানমন্ত্রী। বিরোধ ভুলে মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে সঙ্গে নিয়েই দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে যান মোদি। রাজারহাট, গোসাবা, মিনাখা, হাসনাবাদ, কুলতুলি, ডায়মন্ড হারবার, সন্দেশখালি ও হিজলগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকায় ক্ষয়ক্ষতি নিরূপনে চলে এরিয়াল সার্ভে।

আম্পানকে জাতীয় দুর্যোগ আখ্যা দেয়ার দাবি জানান মুখ্যমন্ত্রী। পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশা সরকারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীসহ কেজরিওয়ালসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। ঘূর্ণিঝড় দুর্গত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে টেলিফোনে সহমর্মিতা জানান বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, পানি ও বিদ্যুতে আর ত্রাণের দাবিতে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন স্থানে চলছে বিক্ষোভ। বেহালা থেকে টালিগঞ্জ, গড়িয়া থেকে যাদবপুর ও উত্তর কলকাতার বিভিন্ন স্থানে একই চিত্র। মরার ওপর খাড়ার ঘা, মোবাইলের সংযোগের দুরবস্থা।

দুর্গত বেশিরভাগ এলাকায়ই কাজ শুরু হয়েছে। যেসব স্থানে ধ্বংসযজ্ঞ এবং ক্ষয়ক্ষতির ছাপ এখন ম্পষ্ট হচ্ছে। উদ্ধার অভিযানে অনেক সময় লাগবে। পশ্চিমবঙ্গে রাজ্য সরকারের সঙ্গে কাধে কাধ মিলিয়ে কাজ করছে আমাদের দুর্যোগ মোকাবেলা দল। 

ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় এরই মধ্যে ১ হাজার কোটি রুপি বরাদ্দ করেছে রাজ্য সরকার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর