channel 24

সর্বশেষ

  • বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করেছে জাতিসংঘ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি খুনে মাফিয়াদের বিচার চান স্বজনরা

  • বাসভাড়া বৃদ্ধি মরার উপর খাড়াঁর ঘা

  • সীমিত পরিসরে সেবার নামে বাসভাড়া ৮০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব

  • চট্টগ্রামে এবার চিকিৎসা পেলেন না স্বাস্থ্য পরিচালকের মা!

  • কক্সবাজারে নতুন করে ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত

  • ভার্চুয়াল শপথ নিলেন ১৮ বিচারপতি

  • করোনাকালে অসহায়দের পাশে 'ওল্ড ল্যাবরেটরি অ্যাসোসিয়েশন'

  • মেহেরপুরে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন তিন চিকিৎসক

  • রিয়াল বেতিস-সেভিয়া ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফিরছে লা লিগা

  • প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা ছাড়া কোনো রোগীকে ফেরত দেওয়া যাবে না

  • সোমবার শুরু হচ্ছে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চলাচল

  • কাল শুরু হচ্ছে সীমিত আকারে ট্রেন চলাচল

  • চট্টগ্রামে ১০ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুন

  • চলে গেলেন সাবেক তারকা ফুটবলার গোলাম রব্বানী হেলাল

শতাধিক আরোহী নিয়ে করাচির আবাসিক এলাকায় বিমান বিধ্বস্ত

শতাধিক আরোহী নিয়ে করাচির আবাসিক এলাকায় বিমান বিধ্বস্ত

১০৭ আরোহী নিয়ে পাকিস্তানের করাচির আবাসিক এলাকায় বিধ্বস্ত হয়েছে পাক এয়ারলাইন্সের একটি বিমান। এতে বিপুল প্রাণহানির শঙ্কা করা হচ্ছে। এরই মধ্যে ১৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বেশ কিছু বাড়ি মাটির সঙ্গে মিশে গেছে। দুর্ঘটনাস্থল থেকে ৬ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। উদ্ধারকাজে যোগ দিয়েছে পাক আর্মি কুইক রিয়াকশন ফোর্স এবং পাকিস্তান রেঞ্জার্স। পাক বিমান কর্তৃপক্ষ জানায়, ফ্লাইটটি লাহোর থেকে করাচি যাচ্ছিলো।

স্থানীয় সময় দুপুরে করাচি এয়ারপোর্টে অবতরণের ঠিক এক মিনিট আগে পাশের একটি আবাসিক এলাকায় বিধ্বস্ত হয় এয়ারবাস A320'র বিমানটি। 

মুহুর্তেই ধোয়ার কুন্ডলিতে ছেয়ে যায় মডেল কলোনির কাছে জিন্নাহ গার্ডেন এলাকা। ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে বেশ কয়েকটি বাড়ি। পুরোপুরি মাটির সঙ্গে মিশে গেছে কয়েকটি গাড়ি। 

পাকিস্তান বিমান কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র আবদুল সাত্তার জানান, পিকে 8303র ফ্লাইটটিতে ৯৯ যাত্রী এবং ৮ ক্রু ছিলেন। যে টি বিমানটি লাহোর থেকে করাচি আসছিলো। এর যাত্রী তালিকায় ছিলেন ব্যাংক অব পাঞ্জাবের প্রেসিডেন্ট জাফর মাসুদ।অবশ্য তিনি জীবিত বলে নিশ্চিত করেছে তার পরিবার।

উদ্ধারকাজে যোগ দিয়েছে পাক আর্মি কুইক রিয়াকশন ফোর্স এবং পাকিস্তান রেঞ্জার্স। মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় শোক জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, পাক সেনা প্রধান কামার জাবেভ এবং  সিন্ধ প্রদেশের গভর্নর। 

করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে অন্যান্য দেশের মতো পাকিস্তানের উড়োজাহাজ চলাচল স্থগিত ছিলো। মাত্র কদিন আগে বাণিজ্যিক ফ্লাইটের ওপর থেকে সে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয়।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর