channel 24

সর্বশেষ

  • নারায়ণগঞ্জ জেলা সম্পূর্ণরূপে লকডাউন

  • বিশ্বে প্রাণহানি ৭৮ হাজার ছাড়ালো, জাপানে জরুরি অবস্থা জারি

  • অভিনব কায়দায় মাস্ক চুরি করলো যুক্তরাষ্ট্র!

  • করোনা আতঙ্কের মাঝে সুখবর দিলেন সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ

  • ২২০টি করোনা শনাক্তের কিট দিলেন সাবেক এমপি রুহী

  • করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি

  • জামালপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুটি বিশেষ বাজার চালু

  • ঢাকার বাইরে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত নারায়ণগঞ্জবাসী, টাঙ্গাইল লকডাউন

  • করোনা উপসর্গ নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে ৪ জনের মৃত্যু

  • চিকিৎসা না দিয়ে ফিরিয়ে দেয়ায় রাস্তায় নবজাতক প্রসব

  • কর্মহীন হয়ে পড়া খেটে খাওয়া মানুষদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন অনেকেই

  • বান্দরবানে নিজস্ব উদ্যোগে সুরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে ম্রো জনগোষ্ঠি

  • বঙ্গবন্ধুর খুনি আব্দুল মাজেদ গ্রেপ্তারের পর কারাগারে

  • লকডাউনের মাঝেই জার্মানিতে বায়ার্ন মিউনিখের অনুশীলন শুরু

  • মারা গেলেন ফুটবল কোচ রাদোমির অ্যান্টিচ

গত ৪ দিনে বিশ্বজুড়ে ১ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

গত ৪ দিনে বিশ্বজুড়ে ১ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস আগের চেয়ে অনেক দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মহাপরিচালক টেড্রোস আধানম গেব্রিয়াসুস।

সোমবার (২৩ মার্চ) জেনেভায় ভার্চুয়াল এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বৈশ্বিক এই মহামারি দ্রুত বিস্তার লাভ করছে। ডিসেম্বেরের শেষে চীনে প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর এক লাখ মানুষকে আক্রান্ত করতে এটি সময় নিয়েছিল ৬৭ দিন। কিন্তু পরের ১ লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়েছে ১১ দিনে। আর সংখ্যাটা ৩ লাখে পৌঁছাতে সময় লেগেছে মাত্র ৪ দিন।

মহাপরিচালক বলেছেন, এই ভয়াবহ ভাইরাসটি সঙ্গে মোকাবেলা করা এখনো সম্ভব। এজন্য আমি আসন্ন জি-২০ সম্মেলনে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের একসঙ্গে প্রতিরোধ সরঞ্জাম উৎপাদনে কাজ করার জন্য আহ্বান জানাবো। সম্মেলনে প্রতিটি দেশকে এই সংকটময় সময়ে ঐক্য হওয়ার জন্য আহ্বান করব। কারণ, বিশ্বের মোট জিডিপির ৮০ শতাংশ এসব দেশের।

তিনি আরও বলেন, প্রতিটি দেশেকে  একত্রে কাজ করতে হবে। প্রতিটি দেশের  স্বাস্থ্যকর্মীদের রক্ষাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে। যদি অগ্রাধিকার না দেই, তাহলে অনেক মানুষের মৃত্যু হবে। কেননা যারা চিকিৎসা দিবেন তারাই যদি অসুস্থ হয়ে পড়েন তাহলে সেবা দেওয়ার লোক কোথায় পাব।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব মতে, ২৬ মিলিয়নের বেশি স্বাস্থকর্মী করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেবেন।

ধারণা করা হচ্ছে সরকারি হিসাবে আক্রান্তের যে সংখ্যা জানানো হচ্ছে, এটা প্রকৃত আক্রান্তের একটা অংশ মাত্র। অনেক দেশ শুধু গুরতর অসুস্থদের, যাদের হাসপাতালে ভর্তি করানোর প্রয়োজন শুধু তাদেরই করোনা পরীক্ষা করাচ্ছে। আধানম বলেন, আমরা শুধু নীরব দর্শক নই। আমরা এই বৈশ্বিক মহামারির গতিপথ পরিবর্তন করতে পারি।

তিনি বলেন, জিততে হলে, আমাদের নির্দিষ্ট লক্ষ্যে কৌশল গ্রহণ করে ভাইরাসটির বিরুদ্ধে আরও ভয়াবহ আক্রমণাত্মক পথে হাঁটতে হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক পুনরায়, সন্দেহজনক প্রত্যেককে পরীক্ষা করানো, আইসোলেট করাসহ আক্রান্ত সবার সেবা নিশ্চিত করার কথা বলেছেন। এছাড়া আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে তাদের কোয়ারেন্টাইন করার আহ্বানও জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, পরীক্ষা এবং উপযুক্ত প্রমাণ ছাড়াই ওষুধ আক্রান্তদের দেওয়া হলে তা মানুষের মধ্যে মিথ্যা আশার সঞ্চার করবে। এর মাধ্যমে ভালোর চেয়ে বরং খারাপই হবে বেশি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর