channel 24

সর্বশেষ

  • 'সাহারা খাতুন ছিলেন রাজপথে আন্দোলনের বলিষ্ঠ কণ্ঠ'

  • মিরপুরে সেপটিক ট্যাংক থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার

  • প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোর ৮ বার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

  • রাজস্ব আদায়ে অশনিসংকেত; সামষ্টিক অর্থনীতিতে বড় ধরণের প্রভাব পড়ার আশঙ্কা

  • রাস্তায় নারীর মরদেহ; সিসি ক্যামেরার ফুটেজে মিললো খুনির হদিস

  • মৌলভীবাজারে চুরির অপবাদে দুই শিশুকে নির্যাতন

  • হাটহাজারীতে করোনা আক্রান্তদের পাশে তরুণরা

  • সুনামগঞ্জে নদীর পানি বাড়ায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

  • সাহেদের প্রধান সহযোগী তারেক শিবলী ৫ দিনের রিমান্ডে

  • ঝিনাইদহে ঐতিহ্যবাহী তেঁতুল গাছ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

  • 'সাহেদের অপকর্ম সম্পর্কে জানতে সময় লাগলেও ছাড় নয়'

  • কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ইএক্সপি যাচ্ছে অনলাইনে; চট্টগ্রাম কাস্টমসে শুল্কায়ন শুরু

  • ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ছুটছে ম্যান ইউ'র জয়রথ

  • করোনার ভুয়া সনদকাণ্ডে ইতালিতে বিপাকে বাংলাদেশিরা

  • দেশে করোনায় আরও ৩৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৯৪৯

হিংসার আগুনে জ্বলে দিল্লি এখন ভুতুড়ে নগরী

হিংসার আগুনে জ্বলে দিল্লি এখন ভুতুড়ে নগরী

প্রায় অর্ধশত মানুষের প্রাণহানির এক সপ্তাহ পরও এখনো থমথমে দিল্লি। যেন এক যুদ্ববিধ্বস্ত নগরী। সড়কগুলো যেন যুদ্ধবিধ্বস্ত ধ্বংসস্তূপ। সহিংসতার থামার পর ক্রমেই স্পষ্ট হচ্ছে তাণ্ডবের ভয়াবহতা।

চিকিৎসাধীন অনেকেই বর্ণনা দিচ্ছেন দাঙ্গার নির্মমতা। মুস্তাফাবাদের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শাবানা পারভীন। গর্ভবতী এ নারীও সেদিনের প্রতিহিংসার শিকার।

শাবানা বলেন, 'দুর্বৃত্তরা আমার ঘরে ঢুকে বেদম পিটাতে থাকে। পায়ে এবং হাতে চোট লাগে। ওদের বললাম আমি গর্ভবর্তী কিন্ত তারপরও নিপীড়ন থামেনি। প্রতিবেশি এক হিন্দু পরিবারের সহায়তায় হাসপাতালে এসেছি।'

শাবানার মত হাসপাতালে মৃত্যুশয্যায় থাকা অনেকেই ভুলতে পারছেন না ভয়াবহ সেদিনের কথা।

সালিম কাসার নামে বকেজন বলছেন, 'হেলমেট পড়ে ধারালো ছুরি, স্টিক এবং রড নিয়ে এসে আমার ভাইকে গণহারে মারতে থাকে একদল দুর্বৃত্ত। পরে তাকে আগুনে ফেলে দেয়। সেখান থেকে লাফিয়ে বেরিয়ে আসার পর, ফের তাকে গুলি করে ফেলে দেয় জ্বলন্ত আগুনে।'

এমন উত্তপ্ত পরিস্থিতিতেই পশ্চিমবঙ্গে সফরে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তার এ সফরের প্রতিবাদে আগে থেকেই মাঠে ছিলো তৃণমূল-বাম ও কংগ্রেস নেতাকর্মীরা। বিভিন্ন স্থানে চলে বিক্ষোভ। পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া।

অবশ্য অমিত শাহর সমর্থনে রাজপথে ছিলো বিজেপিও। দুপুরে শহীদ মিনার মঞ্চে ওঠেন অমিত শাহ। ঘোষণা দেন, যে করেই হোক বাংলায় নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করবেন।

অমিত শাহ বলেন, 'সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন-সিএএ নিয়ে সংখ্যালঘুদের ভয় দেখাচ্ছে তৃণমূল। ৭০ বছরে এখানে আশ্রিত শরণার্থীদের নাগরিকত্ব ছিলো। বিজেপি তাই, হিন্দু-বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান, জৈন এবং শিখদের নাগরিকত্ব দেয়ার ব্যবস্থা করেছে। মমতা যতই বিরোধীতা করুক মোদি সরকার সিএএ কার্যকর করবে।'

এদিকে, নাগরিকত্ব আইনের পক্ষে ভারতের বিভিন্নস্থানে মিছিল করেছে বিজেপি সমর্থকরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর