channel 24

সর্বশেষ

  • দেশে করোনায় ২৪ ঘন্টায় প্রাণহানি ৩, নতুন করে শনাক্ত ৫৪

  • র‍্যাবের মহাপরিচালক হলেন চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন

  • বেনজীর আহমদকে পুলিশ মহাপরিদর্শক করে প্রজ্ঞাপন

  • করোনা সংক্রমণ রোধে ঢাকার ৫০টির বেশি এলাকার ও বাড়ি লক ডাউন

  • করোনায় ঘরবন্দি বেশিরভাগ মানুষ, সুস্থ থাকতে সুষম খাদ্যাভাস ও শরীর চর্চার পরামর্শ

  • দেশে করোনার সামাজিক সংক্রমণ শুরু, ১৫ জেলায় মিলেছে রোগী

  • মহামারি সংক্রমণ আইন প্রথমবারের মতো কার্যকর, তবে মানছেন না কেউ

  • ঢাকা মেডিকেলে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন যুবকের মৃত্যু

  • বঙ্গবন্ধুর খুনি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) মাজেদের মৃত্যু পরোয়ানা জারি

  • টাঙ্গাইলে করোনা রোগী শনাক্ত, আশেপাশের ৩৫ টি বাড়ি লকডাউন

  • বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অর্থ তহবিল বন্ধের হুঁশিয়ারি ট্রাম্পের

  • চীনের উহানে খুলে দেওয়া হয়েছে বিমানবন্দর ও রেল স্টেশন

  • করোনা উপসর্গে কাপাসিয়ায় মেডিকেল ছাত্রের মৃত্যু

  • নিউইয়র্ক যেন মৃত্যুনগরী

  • করোনায় প্রাণহাণি ছাড়ালো ৮২ হাজার

করোনা ভাইরাসে প্রাণহানি কিছুটা বেড়েছে, তবে কমেছে আক্রান্তের হার

করোনা ভাইরাসে প্রাণহানি কিছুটা বেড়েছে, তবে কমেছে আক্রান্তের হার

চীনে করোনায় নতুন করে প্রাণ গেছে ১৩৬ জনের। নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২ হাজার ৫ জনে। উহানসহ বিভিন্ন শহরে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হওয়া অনেকেই নিজেদের প্লাজমা দান করছেন গুরুতর অসুস্থদের জন্য।

সিঙ্গাপুরে কভিড নাইনটিনে আক্রান্ত ৫ বাংলাদেশির চিকিৎসা চলছে। এর মধ্যে ১৩ দিন ধরে ন্যাশনাল সেন্টার ফর ইনফেকশাস ডিজিস বা এনসিআইসিডিতে চিকিৎসাধীন ৩৯ বছর বয়সী এক বাংলাদেশির অবস্থা আশঙ্কাজনক। জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড একে আবদুল মোমেন। রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট আইইডিসিআর জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ৭৪টি নমুনা পরীক্ষায় করোনার অস্তিত্ব মেলেনি।

জাপানের ইয়োকোহামায় গত ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে কোয়ারেন্টাইনে প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসেস জাহাজের ৩ হাজার ৭শ' মানুষ। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র নিজ নাগরিকদের ফিরিয়ে নেয়ার পর বুধবার, ভাইরাসমুক্ত ৫শ' জনকে নেয়া হয় জাপানের স্থানীয় হাসপাতালে। সেখানে থাকতে হবে আরও কিছুদিন।

চীনে মঙ্গলবার কিছুটা বেড়েছে প্রাণহানি। তবে আক্রান্তের হার কমেছে।

ন্যাশনাল হেলথ কমিশনের মুখপাত্র মিং ফেং বলেন, ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৭শ' ৪৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ১৩২ জনই হুবেই প্রদেশে, হেলংঝিয়াং, সানডং, গুয়ানডং এবং গুইঝুতেতে মারা গেছে একজন করে।

উহানসহ বিভিন্ন শহরে হাসপাতাল থেকে সুস্থ হওয়া অনেকেই নিজেদের প্লাজমা দান করছেন গুরুতর অসুস্থদের জন্য। সংকিং শহরে রক্ত সংগ্রহের পর রক্তরস আলাদা করে আশঙ্কাজনক রোগীদের দেয়া হয় কনভ্যালেসসেন্ট প্লাজমা থেরাপি।

শিয়ানতান সেন্ট্রাল হাসপাতালের চিকিৎসক হু লিই বলেন, এ পর্যন্ত দাতাদের কাছ থেকে কোনো বিরুপ প্রতিক্রিয়া মেলেনি। এতে চিকিৎসাও ভালোভাবে চলছে। এক্সরেতে আমরা দেখেছি রোগীদের ফুসফুস ভালোভাবেই কাজ করছে।

দক্ষিণ কোরিয়ায় নতুন করে ২০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। চীন থেকে নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে শুরু করেছে ইউক্রেন। আর চীনের নাগরিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে রাশিয়া।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর