channel 24

সর্বশেষ

  • ওয়েস্ট হ্যামকে ২-০ গোলে হারিয়ে ম্যানচেস্টার সিটির জয়

  • ইউরোপা লিগে আজকের খেলা

  • চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন: আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী যারা

  • দিনাজপুরে গোলাগুলিতে ২ ডাকাত নিহত, আহত ৪ পুলিশ

  • টটেনহ্যামের মাঠে জয় লাইপজিগের

  • ভ্যালেন্সিয়াকে বিধ্বস্ত করলো আটালান্টা

  • কাল শুরু হচ্ছে নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

  • ফের স্বর্ণের দাম বাড়ায় হতাশ ক্রেতা-বিক্রেতারা

  • চট্টগ্রাম সিটিতে কাউন্সিলর প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে আ.লীগ

  • অমর একুশে ফেব্রুয়ারি উদযাপনে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

  • করোনা ভাইরাসে প্রাণহানি কিছুটা বেড়েছে, তবে কমেছে আক্রান্তের হার

  • 'বর্ণবাদের' অভিযোগ তিন সাংবাদিককে বহিষ্কার করলো চীন

  • ডাকঘর সঞ্চয়ের সুদহার পুনঃমূল্যায়নের চিন্তা করছে সরকার: অর্থমন্ত্রী

  • ঢাকার চারপাশে নদীপাড়ে ধর্মীয় স্থাপনা না ভেঙে সংস্কার করবে সরকার

  • ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়: ওসিসহ ৭ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা

চীনে মাত্র ১০ দিনে হাসপাতাল নির্মাণ!

চীনে মাত্র ১০ দিনে হাসপাতাল নির্মাণ!

আলাদিনের চেরাগের দৈত্যের যাদু নয়। নয় কোনো অলৌকিক স্থাপনা। মাত্র ১০দিনেই হাসপাতাল তৈরি করছে চীন। দেশটির উহান শহরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় জরুরি ভিত্তিতে শুরু হয়েছে এক হাজার শয্যার হাসপাতালের নির্মাণ কাজ। আগামী মাসে এমন অস্বাভাবিক দ্রুততায় আরেকটি হাসপাতাল তৈরি করবে চীন।

বিশ্বময় আতঙ্ক ছড়ানো রহস্যময় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু চীনের উহান শহর থেকে। যাতে এরইমধ্যে প্রাণ গেছে অনেকের।

ভাইরাস প্রতিরোধে উহানের বাসিন্দাদের শহর ত্যাগে বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। হাসপাতাল আর ফার্মেসিতে আক্রান্ত রোগীদের ভীড় সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে চিকিৎসকরা।

এমন পরিস্থিতি মোকাবেলায় উহানে জরুরী ভিত্তিতে দুইটি বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণ শুরু হয়েছে। এরমধ্যে ফেব্রুয়ারীর প্রথম সপ্তাহের মধ্যে এক হাজার শয্যার হাসপাতালটির নির্মাণ কাজ শেষের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ২৫ হাজার স্কয়ার মিটার এলাকা জুড়ে প্রায় ৪০ টি এক্সভেটর দিয়ে দিনরাত চলছে খনন কাজ।

চীনের বিভিন্ন শহর থেকে অভিজ্ঞ প্রকৌশলীরা নির্মাণকাজের তদারকি করছেন। বিভিন্ন প্রদেশ থেকে হাজার খানেক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পাঠানো হয়েছে উহানে। ১৩শ শয্যা বিশিষ্ট দ্বিতীয় হাসপাতালটির কাজও ফেব্রুয়ারীর মাঝামাঝি শেষ হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

জ্যেষ্ঠ ফেলো ইয়াংঝং হুয়াং বলেন, অল্প সময়ে বিশাল বিশাল প্রকল্প শেষের রেকর্ড রয়েছে চীনের। এখানকার প্রকৌশলীরাও বিশ্বসেরা। তাই যথাসময়েই শেষ হবে হাসপাতালের নির্মাণ কাজ।   

তবে এটিই প্রথম নয়। এরআগে ২০০৩ সালে, সার্স রোগীদের চিকিৎসায় মাত্র সাত দিনে বেইজিংয়ের হাসপাতাল নির্মাণ করে রেকর্ড গড়ে চীন।  যাতে এক্স-রে রুম, আইসিইউ, ল্যাবরেটরিসহ আধুনিক হাসপাতালের প্রায় সব সুবিধাই ছিলো। এতে সাতশোর বেশি রোগীকে জরুরী ভিত্তিতে চিকিৎসা দেয়া হয়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর