channel 24

সর্বশেষ

  • রিজেন্ট হাসপাতাল ও জেকেজি সম্পর্কে জানা ছিল না: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • রিজেন্ট চেয়ারম্যান সাহেদের পাসপোর্ট জব্দ

  • লাভের আশায় গরু পালন করে দাম নিয়ে দুশ্চিন্তায় খামারীরা

  • আগামী মাসে মাঠে গড়াচ্ছে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ

  • আবারও মনোবিদ আজহার আলীর ওপর আস্থা বিসিবির

  • আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফুটবল দলের আবাসিক ক্যাম্প

  • সাউদাম্পটন টেস্টে ৯৯ রানে পিছিয়ে ইংল্যান্ড

  • বিএফডিসিতে অসহায় শিল্পীদের সহায়তা করলেন অনন্ত-বর্ষা

  • সিলেটে বিষ খাইয়ে হত্যাচেষ্টা, মা-ছেলে কারাগারে

  • কুমিল্লায় ব্যবসায়ী আকতার হত্যার ঘটনায় মামলা

  • সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচন: সিইসি

  • বানের জলে ডুবছে লোকালয়; সুরমা উপচে তলিয়েছে সুনামগঞ্জ শহর

  • এখনও অধরা রিজেন্ট কাণ্ডের নাটের গুরু সাহেদ

  • সাংবাদিকদের মাঝে করোনাকালীন সহায়তার চেক বিতরণ

  • অনলাইন থেকে গরু কিনলেন তিন মন্ত্রী

উইঘুর মুসলিমদের করুণ নির্যাতনের গোপন নথিপত্র ফাঁস

উইঘুর মুসলিমদের করুণ নির্যাতনের গোপন নথিপত্র ফাঁস

চীনে উইঘুর মুসলিমদের ওপর চিনপিং সরকারের নির্যাতনের একের পর এক তথ্য সাম্প্রতিক সময়ে উঠে এসেছে গণমাধ্যমে। এবার চীনের সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের নির্যাতন সংক্রান্ত নথিপত্র ফাঁস হয়েছে মার্কিন প্রত্রিকা নিউইর্য়ক টাইমসে। এতে উঠে এসেছে দেশটির প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের সময়ে, বিভিন্ন আটক কেন্দ্রে উইঘুর মুসলিমদের করুণ নির্যাতনের চিত্র।

চীনের উত্তর পশ্চিমের প্রদেশ জিনজিয়াং, যার জনসংখ্যার ৪৫ ভাগের বেশি উইঘুর মুসলিম। অভিযোগ রয়েছে গোটা প্রদেশকে উইঘুর বন্দীশালায় পরিণত করেছে চীন সরকার।

এবার, গোপন সরকারি নথি ঘেঁটে উইঘুর ও অন্যান্য মুসলিমদের নির্যাতনের নতুন চিত্র তুলে ধরেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক দ্য নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকা। ৪০৩ পৃষ্ঠার নথিতে দেখা যায়, চীনা প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং সহ দেশটির সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে উইঘুরদের নিপীড়নের আদেশ দেয়া হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৪ সালে জিনজিয়াংয়ের রেলস্টেশনে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতের ঘটনায় উইঘুরদের দায়ী করেন, চীনা প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং। এর কয়েক সপ্তাহ পর, সেখানকার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে দফায় দফায় বৈঠকে সন্ত্রাসবাদ ঠেকানোর নামে উইঘুর দমনের নির্দেশ দেন তিনি।

বন্দীশালাগুলোকে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে দেখায় চীন সরকার। আটককৃতদের সন্তানদের বলা হতো, তাদের বিশেষ প্রশিক্ষণে রাখা হয়েছে। এমনকি লোকবলেও অভাবে জিনজিয়াংয়ে ফসলের আবাদও হয়না ঠিকমতো।

২০১৬ তে চেন কুয়ানগুয়ো, প্রদেশটির ক্ষমতা নেয়ার পর উইঘুর নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়। তাঁর নির্দেশে নতুন বন্দীশালা নির্মান ও মুসলিমদের আটক করা হয়। এতে সরকারি ও স্থানীয় কোন কর্মকর্তা দ্বিমত পোষণ করলে তাদেরও শাস্তি দিতেন চেন কুয়ানগুয়ো।

কাগজে কলমে তিব্বতের মতো জিনজিয়াংও স্বায়ত্তশাসিত এলাকা হলেও, বাস্তবে চীনের কেন্দ্রীয় সরকারের কঠোর নিয়ন্ত্রনে প্রদেশটি। জাতিসংঘের তথ্যমতে, চীনজুড়ে কয়েকশো বন্দীশালায় ১০ লাখের বেশি উইঘুর মুসলিমকে আটক রেখে নির্যাতন করছে চীন সরকার।

২০১৬ তে চেন কুয়ানগুয়ো, প্রদেশটির ক্ষমতা নেয়ার পর উইঘুর নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়। তাঁর নির্দেশে অনেক বন্দীশালা নির্মান ও মুসলিমদের আটক করা হয়। এতে সরকারি ও স্থানীয় কোন কর্মকর্তা দ্বিমত পোষণ করলে তাদেরও শাস্তি দিতেন চেন কুয়ানগুয়ো।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর