channel 24

সর্বশেষ

  • সিরাজগঞ্জে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ৫০

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ির আঙ্গিনায় গাঁজা চাষ, ১ নারী আটক

  • মর্নিং বার্ড লঞ্চ শত্রুতামূলকভাবে ডোবানো হয়েছে: নৌ পুলিশ

  • ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট করোনায় আক্রান্ত

  • ১৮২০ তৃণমূল ফুটবলার আর্থিক সহায়তা পাচ্ছে

  • খুলনায় আটক পাটকলের ২ শ্রমিক নেতা কারাগারে

  • এশিয়া কাপ স্থগিতের শঙ্কায় আকরাম খান

  • করোনায় ফেনীর সিভিল সার্জনের মৃত্যু

  • ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট দিয়ে মাঠে গড়াচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

  • নানা পরিচয়ে একের পর এক ব্যবসা বাগিয়েছেন রিজেন্টের মালিক

  • বাংলাদেশ থেকে এক সপ্তাহের জন্য ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা দিলো ইতালি

  • মৃতের হাত বেঁধে টাকা আদায়: প্রশান্তি হাসপাতালের বিরুদ্ধে ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

  • প্যাপিনোমেলনের পুষ্টিগুণ

  • মরিচ গাছের পাতা কুকড়ানো বা লিফ কার্ল রোগ

  • আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত ঘেরে চিংড়ির রোগ নির্ণয় ভ্রাম্যমাণ মৎস্য ক্লিনিক

সরকার গঠনে ব্যর্থ হয়ে দিশেহারা নেতানিয়াহু, চলছে ফিলিস্তিনি হত্যাযজ্ঞ

সরকার গঠনে ব্যর্থ হয়ে দিশেহারা নেতানিয়াহু, চলছে ফিলিস্তিনি হত্যাযজ্ঞ

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের নির্বিচার হামলায় দুদিনে নারী শিশুসহ নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে, ৩৪ জনে। হামলা থেকে বাদ যায়নি, স্কুল-মসজিদও। আরব এমপিদের অভিযোগ, সরকার গঠনে ব্যর্থ হয়ে দিশেহারা হয়ে উঠেছেন নেতানিয়াহু। তাই চলছে ফিলিস্তিনি হত্যাযজ্ঞ।

চোখের জলে প্রিয়জনকে শেষ বিদায়। কারো বাবা, কারো বা প্রিয় সন্তান। ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকাজুড়ে এখন স্বজনদের আহজারি আর বারুদের গন্ধ। গেল দুদিনে ইসরায়েলি বর্বরতার শিকার তারা।

প্রত্যক্ষদর্শী একজন জানায়, জানালা থেকে দেখছিলাম প্রথমে ঐ বাড়িতে বোমা হামলা। এরপর ড্রোন থেকে ছোড়া রকেটে চোখের পলকে পুড়ে ছাই মোটরসাইকেলে থাকা বাবা ও তার দুই ছেলে।

ইসরায়েলি নির্মমতার শুরু মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) ভোরে। ইসলামিক জিহাদ নেতা বাহা আবু আল আতার বাড়ি লক্ষ্য করে প্রথমে বিমান হামলা চালায় ইসরায়েল। জবাবে তেলআবিব লক্ষ্য করে কয়েকটি রকেট ছোড়ে ফিলিস্তিনিরা। এরপরই গাজার স্কুল, মসজিদসহ বিভিন্ন স্থাপনায় অন্তত ৫০ টিরও বেশি বিমান হামলা চালায় ইসরায়েল।

বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) সকালে দেইর আল বালাহ এলাকায় ইসরায়েলি বোমায় প্রাণ হারান, নারী-শিশুসহ একই পরিবারের ৬ জন। আহত হন আরো ১২ জন।

নাজা ইসা নামে এক ফিলিস্তিনি বলেন, কেন এভাবে আমার ঘর গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে? ইসরায়েলি টিভি প্রচার করছে, আমাদের ঘর নাকি হামাসের কাসেম ব্রিগেডের আস্তানা। অথচ ওদের সাথে আমাদের কোনো সর্ম্পক নেই।

হাসপাতালে আহতদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল খিদরা জানান, ক্ষনে ক্ষনে বাড়ছে নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিদের প্রাণহানির সংখ্যা। কেবল বুধবারই নিহত হয়েছেন অন্তত ১৯ জন। গুরুতর আহত হয়ে ভর্তি হয়েছেন ৫৫ জন।

এমন নির্মমতায় জার্মানি, জর্ডানসহ অনেক দেশ নিন্দা জানালেও নির্বিকার ইসরায়েল সরকার।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলছেন, সেনাবাহিনীর পারফরম্যান্সে আমি খুবই খুশি। এখন চাইলেই যেকোনো স্থানে লুকিয়ে থাকা সন্ত্রাসীদের আস্তানায় গিয়ে হামলা চালাতে পারছে, ইসরায়েলি বাহিনী। এটা আমাদের শক্তিমত্তার প্রকাশ।

ইসরায়েলের আরব এমপিদের অভিযোগ, পার্লামেন্ট নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে ব্যর্থ হয়ে দিশেহারা নেতানিয়াহু ফিলিস্তিনিদের হত্যায় মেতে উঠেছেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

আন্তর্জাতিক খবর