channel 24

সর্বশেষ

  • চাকুরির বাজারে বিশ্ববিদ্যালয় সনদ পর্যাপ্ত নয়: সিপিডি

  • মেধার পাশাপাশি শারীরিকভাবে যোগ্যদের বাছাই করছি: আইজিপি

  • নারীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা, শিলের আঘাতে প্রবাসীর মৃ ত্যু

  • বগুড়ায় কমছে আলু আবাদ, বিকল্প চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা

  • সড়কে শৃঙ্খলা আনতে যাত্রী কল্যাণ সমিতির ২০ দফা সুপারিশ

  • যৌন নি র্যা তনের বিরোধ নিষ্পত্তিতে উবারকে গুনতে হচ্ছে ৭৭ কোটি টাকা

  • ঢাকা ওয়াসার আয় বেড়েছে ৪ গুণ

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় লাইসেন্সবিহীন অটোরিকশার দাপট (ভিডিও)

  • জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষার রুটিন বাতিলের দাবি

  • গোমস্তাপুরে পুলিশ পরিচয়ে ১৫ গরু ডাকাতি

  • শেষ হতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের দিন

  • ১৯৫৪ বিশ্বকাপজয়ী দলের শেষ সদস্যের মৃত্যু

  • জোর করে আফগান নারীকে বিয়ে করা যাবে না: তালেবান

  • নাটোরের অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার, যুবক আটক

  • আলো স্বল্পতায় বন্ধ তৃতীয় সেশনের খেলা

মাথাব্যথা যখন স্ট্রোকের লক্ষণ (ভিডিও)

মাথাব্যথা যখন স্ট্রোকের লক্ষণ (ভিডিও)

স্ট্রোক হলো সম্পূর্ণভাবে মস্তিষ্কের রক্তনালীর একটি রোগ। স্বাভাবিকভাবেই এর সঙ্গে মাথাব্যথার সম্পর্ক নিবিড়। হবে হঠাৎ মাথাব্যথায় অনেকেই স্ট্রোক হলো কিনা ভেবে ঘাবড়ে যান। স্ট্রোক ছাড়াও আরও বিভিন্ন রোগের উপসর্গ হিসেবে মাথা ব্যথা হতে পারে।

মাথাব্যথা ও স্ট্রোক সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ে চ্যানেল টোয়েন্টিফোরে নিয়মিত স্বাস্থ্যবিষয়ক আয়োজন ‘হেল্থ গাইড’ অনুষ্ঠানে আলোচনা করেছেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্স এন্ড হসপিটালের নিউরোলজি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ডা. এম. আমির হোসেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেছেন ডা. সানজিদা হোসেন পাপিয়া।

মাথাব্যথা বিভিন্ন সাধারণ কারণ নিয়ে আলোচনায় ডা. আমির হোসেন জানান, নিউরোলজিস্টদের কাছে যেসব রোগী আসেন তাদের বেশিরভাগেরই মাথাব্যথার কারণ নিয়ে উদ্বেগের খুব খারাপ কারণ থাকে না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দুশ্চিন্তার কারণে মাথাব্যথা হয়ে থাকে।

মাথাব্যথার দ্বিতীয় কারণ হিসেবে তিনি মাইগ্রেনের কথা বলেছেন। এক্ষেত্রেও অতটা উদ্বেগের কারণ নেই এবং এই রোগের চিকিৎসা আছে বলে জানান এই চিকিৎসক। পাশাপাশি সিসটেমিক ইলনেস যেমন জ্বর, ডেঙ্গু, করোনা ইত্যাদি কারণেও মাথাব্যথা হয়ে থাকে বলে জানিয়েছেন ডা. আমির হোসেন।

তবে স্ট্রোক বা টিউমারের কারণে যে মাথাব্যথা হয় তা অনেকটাই দুর্লভ বলে মনে করেন এই স্নায়ু রোগ বিশেষজ্ঞ। তিনি বলেন, ‘১০০ জনের মধ্যে ১ জন বা তারও কম রোগীর এসব কারণে মাথাব্যথা হয়।’

আরও পড়ুন: বয়োসন্ধিকালে অনিয়মিত মাসিক ও করণীয় (ভিডিও)

মাথাব্যথার ধরণ দেখে মাথাব্যথার কারণ নির্ণয় করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন ডা. আমির হোসেন। তিনি বলেন, ‘প্রথমত ব্যাকগ্রাউন্ড হিস্ট্রি নিতে হবে, দুশ্চিন্তার কারণে মাথাব্যথা হচ্ছে কিনা, পরিবারে মাইগ্রেনের ইতিহাস আছে কিনা ইত্যাদি পর্যালোচনা করে রোগ আন্দাজ করা যায়।’

তিনি আরও জানান, মাইগ্রেনের ক্ষেত্রে সাধারণত একদিকে মাথাব্যথা হয়, আলোভীতি বা ফটোফোবিয়া অথবা শব্দভীতি বা ফনোফোবিয়া থাকে, সঙ্গে বমির ভাব হতে পারে বা বমি হতে পারে।

আর যদি দেখা যায় রোগীর জীবনে দুশ্চিন্তার কারণ রয়েছে, মাথাকে চেপে ধরে, টনটন করে, ঘুমের সমস্য থাকে তবে ধরে নেয়া হয় এটা দুশ্চিন্তাজনিত মাথাব্যথা।

স্ট্রোক বা টিউমারজনিত মাথাব্যথার ক্ষেত্রে তিনি বলেন, স্ট্রোক সাধারণত হঠাৎ করেই ঘটে থাকে, হঠাৎ একটা রক্তনালী ব্লক হয়ে গেলে বা ছিঁড়ে গেলে হঠাৎ করেই মাথাব্যথা শুরু হয়; সেই সঙ্গে বমি থাকবে, খিঁচুনী থাকবে, অজ্ঞান হয়ে যেতে পারে- তাহলে সেটা স্ট্রোকজনিত মাথাব্যথা।

আরও পড়ুন: ফুসফুসের জটিলতা ও এর চিকিৎসায় পেলিয়াটিভ কেয়ার (ভিডিও)

আর যদি টিউমার হয় তাহলে সাধারণত সকালের দিকে মাথাব্যথা হবে, বমি হবে, মাথা ঘোরাবে। এভাবে মাথাব্যথার ধরণ দেখে মাথাব্যথার কারণটা সন্দেহ করা যায় বলে জানান এ নিউরোলজিস্ট।

মাইগ্রেন হলে কী ধরনের সমস্যা হয় এবং এই রোগের চিকিৎসার ওপর আলোকপাত করেছেন ডা. আমির হোসেন। তিনি বলেন, ‘স্ট্রোক যেমন হঠাৎ করে আসবে, মাইগ্রেনটা আসবে বারবার। অর্থাৎ কিছুদিন ভালো থাকবে, আবার আসবে।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘মাইগ্রেনের লক্ষণগুলো পরীক্ষা করার পাশাপাশি পারিবারিক ইতিহাস পর্যালোচনা করে অন্যান্য খারাপ মাথাব্যথা আছে কিনা সেগুলো বাদ দিয়ে রোগ নির্ণয় করা হয়।’ 

এরপর দুই ধরনের চিকিৎসা পদ্ধতি আছে বলে জানান ডা. আমির। আলো, শব্দ বা দুশ্চিন্তায় সমস্যা এসব থেকে দূরে থাকতে হবে। চা-কফি-চকলেট বা আইসক্রিম খেলে যদি সমস্যা হয় তবে এ ধরনের খাবার থেকেও দূরে থাকতে হবে।

চিকিৎসার দ্বিতীয় ভাগে আছে ওষুধ। যখন মাথাব্যথা হবে তখন এক ধরনের ওষুধ, আবার মাথাব্যথা যেন না ওঠে সেজন্য প্রতিরোধমূলক ওষুদ দিয়ে চিকিৎসা করতে হবে। মাইগ্রেনের ধরন, বয়স, লিঙ্গ অনুযায়ী ওষুধ নির্বাচন করতে হবে। 

তিনি বলেন, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মানুষ শুধু মাথাব্যথার ওষুধ খায় কিন্তু মাইগ্রেন প্রতিরোধের জন্য ওষুধ খায় না বলে এই রোগ পুরোপুরি সেরে ওঠে না।

মাইগ্রেন নিয়ন্ত্রণযোগ্য, নিরাময়যোগ্য নয় বলে মত দিয়েছে ডা. আমির। তবে চিকিৎসা করলে একটা বয়সের পরে এটা অনেক সময় ভালো হয়ে যায় বা অন্য রোগের মাথাব্যথায় কনভার্ট হয়ে যায়।

আরও পড়ুন: যেভাবে হার্ট অ্যাটাক ও হার্ট ফেইলিউর থেকে রক্ষা পাবেন (ভিডিও)

স্ট্রোক হলে তাৎক্ষণিক করণীয় সম্পর্কে আলোচনা করেছেন স্নায়ু রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. আমির হোসেন। তিনি বলেন, ‘স্ট্রোক সম্পর্কে ভুল আমাদের ধারণা আছে, অনেকে মনে করেন হার্ট অ্যাটাক। হৃদরোগ হাসপাতালে চলে যান। স্ট্রোক শুধুমাত্র মস্তিষ্কের রক্তনালীর রোগ।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘মস্তিষ্কের রক্তনালী ব্লক হয়ে গেলে তাকে বলে ইশকেমিক স্ট্রোক এবং রক্তনালী ছিড়ে গেলে বলে হ্যামোরেজিক স্ট্রোক। স্ট্রোক হলে সাধারণত শরীরের এক পাশ অবশ হয়ে যায়, মুখ বেঁকে যায়, কথা জড়িয়ে যায় বা কথা বন্ধ হয়ে যায়। পাশাপাশি মাথব্যথা, মাথা ঘোরানো, খিুঁচনি, অজ্ঞান হয়ে যাওয়া এই ধরনের ‍উপসর্গ দেখা দিতে পারে।’ 

ডা. আমির হোসেন বলেন, ‘এই উপসর্গগুলো হঠাৎ দেখা দিলে ধারণা করতে হবে স্ট্রোক হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে দ্রুত নিউরোলজিস্টের কাছে বা হাসপাতালে নিয়ে পরীক্ষা করতে হবে স্ট্রোক কিনা। দুই ধরনের স্ট্রোকের মধ্যে হ্যামোরেজিক স্ট্রোকে মাথাব্যথা বেশি হয়। এটা হলে আমাদের দ্রুত চিকিৎসা করতে হবে।’

আলোচনার বাকি অংশ ভিডিওতে...

এসিএন/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর