channel 24

সর্বশেষ

  • কুষ্টিয়ায় ট্যাংকের বিষক্রিয়ায় ২ শ্রমিকের মৃত্যু

  • ফেনীতে মাদ্রাসাছাত্রীকে জবাই: চাচাতো ভাই আটক

  • সার্কভুক্ত দেশগুলোতে ব্যাপকহারে বাড়ছে আক্রান্ত ও প্রাণহানি

  • দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির পেছনে দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট

  • সাকিব-মোস্তাফিজকে ছাড়াই শুরু টাইগারদের অনুশীলন

  • রাজধানী ছাড়ছে মানুষ, দুই ঘাটে উপচেপড়া ভিড়

  • ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে নষ্ট ১৫০ কোটি চিংড়ি পোনা

  • জুমাতুল বিদায় মসজিদে মুসল্লিদের ঢল

  • খুলে দেয়া হলো হলিডে মার্কেট

  • প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে উঠতে পারছেন না হতদরিদ্ররা

  • বিধিনিষেধের মধ্যেই রাজধানী ছাড়ছে মানুষ

  • করোনায় ভালো নেই মা হাজেরা ও তার পথশিশুরা

  • ধুঁকছে মানিকগঞ্জের হাসপাতালগুলো, বাড়ছে দুর্ভোগ

  • চারদিন পরে নিভল সুন্দরবনের আগুন

  • বাংলাদেশের দেয়া চিকিৎসা সামগ্রী উপহার গেল ভারতে

ঢাকা মেডিকেলে 'অক্সিজেট সিপ্যাপ ভেন্টিলেটরের' ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু

ঢাকা মেডিকেলে 'অক্সিজেট সিপ্যাপ ভেন্টিলেটরের' ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু

অক্সিজেট নামে একটি সিপ্যাপ ভেন্টিলেটর তৈরি করেছে বুয়েটের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ। যা বিদ্যুৎ ছাড়াই অক্সিজেন সিলিন্ডার বা মেডিকেল অক্সিজেন লাইনের সাথে যুক্ত করে করোনা আক্রান্ত রোগীকে উচ্চগতির অক্সিজেন সরবরাহ করতে পারে। এরইমধ্যে ঢাকা মেডিকেলে এর তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয়েছে।

করোনা আক্রান্ত রোগীদের অনেকেরই শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেয়। স্যাচুরেশন কমে যাওয়ায় প্রয়োজন পড়ে অক্সিজেনের। ভর্তি হতে হয় হাসপাতালে। অবস্থার অবনতি হলে চাপ পড়ে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র আইসিইউ-তে। কিন্তু এখানে বেড সংখ্যা সীমিত থাকায় দেখা দেয় সংকট।

যা নিরসনের একটা পদ্ধতি বের করেছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়-বুয়েটের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ। এখানকার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি দল 'অক্সিজেট' নামে 'সিপ্যাপ যন্ত্র' তৈরি করেছে। যা অক্সিজেন সিলিন্ডার বা মেডিকেল অক্সিজেন লাইনের সাথে যুক্ত করলে অক্সিজেনের নির্ধারিত 

গতি বাড়াতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। যা বিদ্যুৎ ছাড়াই একটি সুক্ষ্ম ভেঞ্চুরি ভাল্ভের মাধ্যমে বাতাস ও অক্সিজেনের সংমিশ্রন ঘটিয়ে ফ্লো-বাড়ায় প্রতি মিনিটে অন্তত ৬০ লিটার।

মেডিকেল অক্সিজেন সাপ্লাই ও দ্বৈত ফ্লো মিটারের সাহায্যে এটি প্রয়োজনে শতভাগ পর্যন্ত অক্সিজেন কনসেনট্রেশন দিতে পারে। এর ফলে স্বল্প খরচেই সাধারণ ওয়ার্ডে রোগীদের উচ্চগতির অক্সিজেন সাপোর্ট দেয়া যাবে বলেও জানান গবেষক ও চিকিৎসকরা। বর্তমানে ঢাকা মেডিকেলে এর তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল চলছে।

গবেষকরা জানান, বাংলাদেশ চিকিৎসা গবেষণা পরিষদের অনুমোদন সাপেক্ষে এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহায়তায় চতুর্থ ধাপে আরও বড় আকারে ট্রায়াল করা সম্ভব হবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর