channel 24

সর্বশেষ

  • তুরস্কে দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮

  • নিজ দেশে ফিরতে অস্বীকৃতি জানালেন বেলারুশ দৌড়বিদ

  • টিভি পর্দায় আজকের খেলা

  • বরিশাল থেকে রাজধানীর উদ্দেশে ছেড়েছে তিনটি লঞ্চ

  • মডেল পিয়াসা গ্রেপ্তার

  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিরাপত্তা ব্যবস্থার পুনর্বিন্যাস

  • সিরাজগঞ্জে ব্রিজের অভাবে ২৫ গ্রামের মানুষের দুর্ভোগ

  • বেড়াতে গিয়ে পিকাপের ধাক্কায় বাবার মৃত্যু

  • ভুয়া পরিচয়ে নিয়মিত টকশো করতেন ইশিতা!

  • বিধি-নিষেধে ঢাকায় কমেছে গ্রেপ্তার-জরিমানা

  • রংপুরে বখাটের ছুরিকাঘাতে আহত মাদরাসাছাত্রীর মৃত্যু

  • এবার এমপি শিমুলের বিরুদ্ধে জিডি করলেন সুজিত সরকার

  • এক স্বামীকে নিয়ে দুই বধূর টানাটানি

  • ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে চিরুনি অভিযানের নির্দেশ

  • চতুর্থবারের মতো বিপিএল শুরুর সূচি দিলো বাফুফে

আজ বিশ্ব হার্ট দিবস

আজ বিশ্ব হার্ট দিবস

আজ (২৯ সেপ্টেম্বর) বিশ্ব হার্ট দিবস। বিশ্বজুড়ে হৃদরোগ বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য দিবসটি পালিত হয়ে থাকে।

বাংলাদেশে প্রতিবছর দুই লাখ ৭৭ হাজার মানুষ হৃদরোগে মারা যান, যার ৪ দশমিক ৪১ শতাংশের জন্য দায়ী ট্রান্সফ্যাট। যেসব কারণে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে তার মধ্যে ট্রান্সফ্যাট অন্যতম।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে, দেশে প্রতিবছর প্রায় পৌনে তিন লাখ মানুষ হৃদরোগজনিত অসুস্থতায় মারা যায়। শুধু উচ্চমাত্রায় ট্রান্সফ্যাট গ্রহণের ফলেই হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ২১ শতাংশ এবং হৃদরোগজনিত মৃত্যুঝুঁকি বাড়ে ২৮ শতাংশ । ২০১৭ সালে দেশে ডালডার বাজার ছিলো ২ লাখ ৪২ হাজার টন যা দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার মোট বাজারের প্রায় ৭ শতাংশ।

গবেষণায় দেখা গেছে, দেশের চারটি শীর্ষ ব্র্যান্ডের ডালডাতে, সর্বোচ্চ ট্রান্সফ্যাটের উপস্থিতি প্রায় ২১ গ্রাম। আর গড়ে প্রতি ১০০ গ্রাম ডালডায় মিলেছে ১১ গ্রাম। অথচ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাবে, ১০০ গ্রাম ডালডায়, ট্রান্সফ্যাট থাকার কথা মাত্র ২ গ্রাম। তবে নীতি না থাকায় ক্ষতিকর হওয়া সত্ত্বেও দেশে ডালডার অনুমোদন দিতে হচ্ছে মান নিয়ন্ত্রক সংস্থার।

দিবসটি উপলক্ষে, হৃদরোধের ঝুঁকি, প্রতিকার ও এই রোগের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে, রাজধানীর ইউনিভার্সেল কার্ডিয়াক হাসপাতালে এর উদ্যাগে অনুষ্ঠিত হয় ফ্রি হার্ট ক্যাম্প।

হাসপাতাল প্রাঙ্গণে এই ক্যাম্প চলে সকাল ১০ থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। এছাড়া ফ্রি হার্ট ক্যাম্পে তিন শতাধিক রোগীকে বিনামূল্যে বিশেষায়িত চিকিৎসা পরামর্শ ও ব্যবস্থাপত্র দেন হৃদরোধ বিশেষজ্ঞ, সার্জন, শিশু হৃদরোধ বিশেষজ্ঞ এবং বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। রোগীদের সকল পরীক্ষায় ৩৫ শতাংশ ছাড় দেয়া হয়। ভবিষ্যতে আরও এ ধরণের জনসচেতনতা মূলক অনুষ্ঠানের আয়োজনের করা হবে বলে বলে জানান, হাসপাতালের পরিচালক।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর