channel 24

সর্বশেষ

  • রিজেন্ট হাসপাতালে বিল নিয়ে বাহাস ছিল নিত্যদিনের ঘটনা

  • সাহেদের প্রতারণায় নিঃস্ব চট্টগ্রামের অনেক ব্যবসায়ী

  • সাহারা খাতুনের মরদেহ ঢাকায়, জানাজা শেষে দাফন করা হবে বনানী কবরস্থানে

  • তিস্তার পানি ফের বিপৎসীমার উপরে

  • 'সাহারা খাতুন ছিলেন রাজপথে আন্দোলনের বলিষ্ঠ কণ্ঠ'

  • মিরপুরে সেপটিক ট্যাংক থেকে শিশুর মরদেহ উদ্ধার

  • প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোর ৮ বার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

  • রাজস্ব আদায়ে অশনিসংকেত; সামষ্টিক অর্থনীতিতে বড় ধরণের প্রভাব পড়ার আশঙ্কা

  • রাস্তায় নারীর মরদেহ; সিসি ক্যামেরার ফুটেজে মিললো খুনির হদিস

  • মৌলভীবাজারে চুরির অপবাদে দুই শিশুকে নির্যাতন

  • হাটহাজারীতে করোনা আক্রান্তদের পাশে তরুণরা

  • সুনামগঞ্জে নদীর পানি বাড়ায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

  • সাহেদের প্রধান সহযোগী তারেক শিবলী ৫ দিনের রিমান্ডে

  • ঝিনাইদহে ঐতিহ্যবাহী তেঁতুল গাছ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

  • 'সাহেদের অপকর্ম সম্পর্কে জানতে সময় লাগলেও ছাড় নয়'

শিশুদের জন্য নতুন খাবার তৈরি করেছে আইসিডিডিআর’বি

শিশুদের জন্য নতুন খাবার তৈরি করেছে আইসিডিডিআর’বি

চারটি খাদ্য উপাদান দিয়ে, শিশুদের উপযোগী একটি খাবার তৈরী করেছেন, আইসিডিডিআরবির গবেষকরা। এই খাবার শিশুদের অপুষ্টি রোধে ভূমিকা রাখবে। যা সম্পূরক হিসেবে, ৬ মাস বয়সের পর শিশুদের দেয়া হবে। প্রাথমিকভাবে একে বলা হচ্ছে এমডিসিএফ। এখন চলছে খাবারটির ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল। ফলাফল পেতে লাগবে, ১ বছরের বেশি। এই খাবার বিশ্বব্যাপী গ্রহণযোগ্য হবে বলে আশা গবেষকদের।

১৩ মাসের রাইসা। ডায়রিয়া আর অপুষ্টিতে ভোগায়, চিকিৎসার জন্য মেয়েকে নিয়ে এসেছেন তাঁর মা। এরকম অনেক শিশুকে চিকিৎসা দিচ্ছে আইসিডিডিআর,বি।

আইসিডিডিআরবি'র তথ্য মতে, বাংলাদেশের অর্ধেকের বেশি মানুষ অপুষ্টিতে ভুগছেন। এরমধ্যে তীব্র অপুষ্টির শিকার সাড়ে চার লাখ শিশু আর প্রায় দুই কোটি শিশু ভুগছে মাঝারি মাত্রার অপুষ্টিতে।

অপুষ্টির শিকার অনেক শিশুই পরবর্তিতে পর্যাপ্ত খাদ্যগ্রহণ করলেও সঠিকভাবে বেড়ে উঠতে পারে না। এরফলে তাদের মস্তিষ্কের সঠিক বিকাশ ঘটেনা। এছাড়া বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হবার আশঙ্কা থাকে। তাদের আন্ত্রিক জীবাণু বা গাট মাইক্রোব অপরিপক্ক থাকার ফলে এমন ঘটে। আর এই খাদ্য উপাদান কীভাবে কাজ করছে তা নিয়ে চলছে গবেষণা চলছে।

আইসিডিডিআরবি'র নিউট্রেশন ডিভিশনের জ্যেষ্ঠ পরিচালক তাহমিদ আহমেদ বলেন, শিশুদের অন্ত্রের মধ্যে কিছু কিছু জীবানু আছে যেটা নাকি শিশু পুষ্টির জন্য সহায়ক। ছোলা, বাদাম, বাদামের গুড়া, সয়াবিনের আটা, কাঁচা কলা এই কয়েকটা খাদ্য উপাদানের মধ্যে এমন জিনিস আছে যেটা সেই সহায়ক ব্যাকটেরিয়ার জন্য খুবই ভাল। এতা হালুয়ার মত করা হয়, যার মধ্যে থাকে কিছু চিনি, তেল থাকে যা শিশুদের জন্য টেস্টি এবং কিছু এনার্জির যোগান দেয়। এই খাবারগুলো হচ্ছে সম্পূরক খাবার। এই খাবার অবশ্যই শিশুদের ৬ মাসে পর দিতে হবে।

ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জেফরি গর্ডন এবং আইসিডিডিআরবি,বির নিউট্রিশন অ্যান্ড ক্লিনিক্যাল সার্ভিসেস ডিভিশনের জ্যেষ্ঠ পরিচালক ড. তাহমিদ আহমেদ এই গবেষণা পরিচালনা করে আসছেন। সাথে আছেন দেশের একদল গবেষক।

আর এটির ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলছে দেশের দুটি জায়গায়। ফলাফল আসতে ১ বছরে বেশি সময় লাগতে পারে।

অপুষ্টি মোকাবেলায় এই গবেষণাকে ২০১৯ সালের বিশেষ ব্রেক থ্রো হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে সায়েন্স জার্নাল।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর