channel 24

সর্বশেষ

  • ঢাকা সিটি নির্বাচন: ৩১ জানুয়ারি রাত ১২টা থেকে ১ ফেব্রুয়ারি...

  • সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সব যানবাহন এবং ৩০ জানুয়ারি রাত ১২টা থেকে...

  • ২ ফেব্রুয়ারি ভোর ৬টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা: ইসি

  • হালনাগাদকৃত খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ...

  • সারা দেশে মোট ভোটার যুক্ত ৫৩ লাখ ৬৬ হাজার ১০৫ জন...

  • বর্তমানে ভোটার সংখ্যা ১০ কোটি ৯৬ লাখ ৬ হাজার ১৮৭...

  • এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ কোটি ৫৩ লাখ ২৫ হাজার ২৯২...

  • নারী ভোটার ৫ কোটি ৪২ লাখ ৮০ হাজার ৫৪২ এবং হিজড়া ৩৫৩ জন

  • ১৬ বছরের ওপরে যাদের বয়স, তাদেরও জাতীয় পরিচয়পত্র দেবে ইসি

  • সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগে...

  • ১৪ জেলার ঘোষিত ফলাফল ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট

  • যশোরের পুলেরহাটে ১১ কেজি স্বর্ণসহ ৩ জন আটক

  • নাইমুল আবরারের মৃত্যু: হাইকোর্টে প্রথম আলো সম্পাদকের আগাম জামিন...

  • আনিসুল হকসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার বা হয়রানি না করার নির্দেশ

  • সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলা: ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড; খালাস ২

  • ১৯৮৮ সালের চট্টগ্রাম গণহত্যা মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

গ্রামীণ জনপদে স্বাস্থ্য সেবায় আস্থার প্রতীক কমিউনিটি ক্লিনিক

গ্রামীণ জনপদে স্বাস্থ্য সেবায় আস্থার প্রতীক কমিউনিটি ক্লিনিক

নেই ওষুধের পর্যাপ্ত সরবরাহ। ভবনগুলোও পুরনো। তবুও গ্রামীণ জনপদে স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছে কমিউনিটি ক্লিনিক। যেখান থেকে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরামর্শ ও ২৭ রকম ওষুধ পান তৃণমূলের মানুষ।

দীর্ঘ আট বছর বন্ধ থাকার পর ২০০৯ সালে পুনরায় চালু হওয়া কমিউনিটি ক্লিনিকে আরও ভালো সেবা পাবার প্রত্যাশা সাধারণ মানুষের। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সময় এসেছে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো আরো বৃহৎ পরিসরে কাজ করার।

তবুও এ সব ক্লিনিকেই আস্থা রাখছেন তৃণমূলের সাধারণ মানুষ। এই যেমন, গাজীপুরের আটাবহ ইউনিয়নের চান মিয়া। পরিবার নিয়ে চিকিৎসা সেবা নিতে এসেছেন বাড়ির পাশের বড়ইছুটি কমিউনিটি ক্লিনিকে।

এ সব ক্লিনিক তৈরিতে জমি দিয়েছেন স্থানীয় মানুষজনই। তাদেরই একজন গাজীপুরের কান্দাপাড়ার ছামান উদ্দিন। ৭০ ছুঁইছুঁই এই প্রবীণ প্রাথমিক চিকিৎসা নেন নিজের দান করা জমিতে গড়ে ওঠা কমিউনিটি ক্লিনিকে। জানালেন নিজের ভালোলাগার কথা।

এসব ক্লিনিকে স্বাস্থ্যসেবা পরিচালনা করছেন, বিশেষভাবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সিএইচসিপিরা। দাবি জানালেন, প্রকল্পের বদলে তাদের চাকরি স্থায়ীভাবে রাজস্বখাতে নেয়ার।

আইসিডিডিআরবির গবেষক ইকবাল আনোয়ার জানান, দেশজুড়ে আরও বড় পরিসরে এর কার্যক্রম ছড়িয়ে দেয়ার পরামর্শ তার।

গ্রামীণ জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে ১৯৯৮ সালে দেশব্যাপী প্রতিষ্ঠা করা হয় কমিউনিটি ক্লিনিক। সে-সময় এর সংখ্যা ছিল ১০ হাজার ৬০০টি।

তবে ২০০১ সালে তা বন্ধ করে দেয় বিএনপি-জামাত জোট সরকার। ৮ বছর পর ২০০৯ সালে আবারও চালু করে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর