channel 24

সর্বশেষ

  • ভোলায় মুয়াজ্জিনকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন, আটক ১

  • পল্লবী থানায় বিস্ফোরণের ঘটনায় ৬ পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলি

  • প্রত্যক্ষদর্শীদের লোমহর্ষক বর্ণনায় সিনহা হত্যা

  • দুর্নীতির সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা: প্রধান বিচারপতি

  • করোনাকালে স্বাস্থ্যখাতের নাজুক পরিস্থিতিই নয়, দুর্নীতিও প্রকাশ্যে

  • বাংলাদেশের বিজয় মানে, ভারতের বিজয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • লাইসেন্স নবায়ন না করলে ২৩ আগস্টের পর বেসরকারি হাসপাতাল বন্ধ

  • ময়মনসিংহে বাস চাপায় সিএনজি অটোরিকশার ৭ যাত্রীর মৃত্যু

  • বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন, পুলিশের লাঠিচার্জ

  • সপ্তাহ ব্যবধানে দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জেই বেড়েছে লেনদেন ও সূচক

  • সরকার ঘোষিত প্রণোদনার অর্থ বিতরণে অনিয়ম: সানেম

  • মাশরাফীর পরিবারের চার সদস্য করোনায় আক্রান্ত

  • ২০২১ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে ভারতে

  • সোমবার আবারো সব ফুটবলারদের করোনা পরীক্ষা

  • ওসি প্রদীপের কুকর্ম নিয়ে একে একে মুখ খুলছেন অনেকে

দেশে মানবদেহের কিডনি প্রতিস্থাপন আইন ত্রুটিপূর্ণ ও সংকীর্ণ: ডা. জাফরুল্লাহ

দেশে মানবদেহের কিডনি প্রতিস্থাপন আইন ত্রুটিপূর্ণ ও সংকীর্ণ: ডা. জাফরুল্লাহ

দেশে মানবদেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংযোজন আইন ত্রুটিপূর্ণ ও সংকীর্ণ। রাজধানীতে সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ। বলেন, সারা বিশ্বে বিকল কিডনি রোগীদের প্রতিস্থাপন সহায়ক আইন রয়েছে। তবে দেশে নিকট আত্মীয় ছাড়া অঙ্গ প্রতিস্থাপন সম্ভব হয় না। দাতাদের ক্ষেত্রে এটি আরও উন্মুক্ত করার দাবি জানিয়েছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রসহ কিডনি রোগীরা।

কিডনি ডায়ালাইসিসের ব্যয়, হাসপাতালে যাওয়া আসার ঝক্কি, সময় সবকিছুর সাথে আর কুলিয়ে উঠতে পারছেন না ৪০ বছর বয়সী জাহিদুর রহমান। খুব করে চান কিডনি প্রতিস্থাপন করতে। কিন্তু বাধা আইন। অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংযোজন আইন অনুযায়ী নিকট আত্মীয়, আইনানুগ উত্তরাধিকারী ছাড়া প্রতিস্থাপন সম্ভব নয়। তাই দেশে না পেরে জাহিদুর রহমান সিদ্ধান্ত নেন পাশের দেশে গিয়ে কিডনী প্রতিস্থাপন করাবেন।

দেশে কিডনি রোগে ভোগা বেশিরভাগই চান প্রতিস্থাপন আইনটি সংশোধন করা হোক। তাহলে সপ্তাহে তিনবার চার ঘন্টার ডায়ালাইসিসের যন্ত্রণা আর খরচ থেকে বেঁচে যেতেন।

এই আইনের ত্রুটি-বিচ্যুতি নিয়ে গণস্বাস্থ্য ডায়ালাইসিস সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংযোজন আইনটি সংকীর্ণ। ইউরোপ, অ্যামেরিকা এমনকি এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো যেখানে কিডনি প্রতিস্থাপনে উৎসাহিত করে সেখানে বাংলাদেশে উল্টো।

ডা. জাফরুল্লাহর হিসাবে দেশের বাইরে গিয়ে কিডনি প্রতিস্থাপন করতে বছরে ৮০০ কোটি টাকা চলে যাচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পক্ষ থেকে বলা হয়, যত দ্রুত আইনটি সংশোধন হবে কিডনী রোগীদের কষ্ট, ব্যয় তো কমবেই। উন্নতি হবে দেশের চিকিৎসা খাতেরও।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্বাস্থ্য খবর