channel 24

সর্বশেষ

  • ক্রমেই অসহায় হয়ে উঠছে বিশ্ব

  • স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা সরঞ্জাম দিলো স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস

  • আকিজ গ্রুপের হাসপাতাল তৈরিতে জনতার ক্ষোভ

  • জনগণকে সচেতন হবার আহ্বান জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ

  • শৈশব থেকেই বলিষ্ঠ নেতৃত্বের অধিকারী ছিলেন বঙ্গবন্ধু

  • স্পেনে আরও ৮৩২ জনের প্রাণহানি

  • কাল থেকে সংসদ টেলিভিশনে শ্রেণী ভিত্তিক পাঠদান চলবে

  • ৭ দিন নিষেধাজ্ঞা বাড়লো বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের

  • রাঙ্গামাটিতে জীবাণুনাশক ছিটিয়েছে সেনাবাহিনী

  • ফাঁকা ঢাকা; মানুষের সচেতনতায় কাজ করছে সেনা সদস্যরা

  • শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে স্বাবলম্বী লালমনিরহাটের হাফিজুর

  • 'অর্থনীতি পুনরুদ্ধার প্যাকেজ' বিলে সই করেছেন ট্রাম্প

  • মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নাগরিকের সঙ্গে সম্মানজনক আচরণ করার নির্দেশ

  • বন্ধ হচ্ছে কারখানা; চাকরি হারানোর ঝুঁকিতে ২০ লাখ শ্রমিক

  • চট্টগ্রামে করোনা প্রতিরোধে সেনাবাহিনী ও জেলা প্রশাসনের অভিযান

উদ্ধার অভিযান নিয়ে সেলুলয়েডে নির্মিত হল দ্যা কেইভ

উদ্ধার অভিযান নিয়ে সেলুলয়েডে নির্মিত হল দ্যা কেইভ

সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মান করা হয়েছে দ্যা কেইভ চলচিত্র। থাইল্যান্ডের গুহায় আটকে যাওয়া কিশোর ফুটবলার ও তাদের উদ্ধার অভিযানের গল্পে গিয়ে ছবির মূল ঘটনা। ছবিটি নিয়ে সম্প্রতি ঢাকায় এসেছেন নির্মাতা টম ওয়ালার। চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের ক্যামেরায় কথা বললেন তিনি। আর গল্প-আড্ডায় জানালেন ছবির অল্প কিছু গল্প।

২৩ জুন ২০১৮ সালে গুহায় ঘুরতে গিয়ে নিখোঁজ হন কোচসহ ১২ কিশোর ফুটবলার। হঠাৎ ভারি বৃষ্টিতে গুহায় পানি ঢুকলে আটকা পড়ে তারা। ৯ দিন পর গুহার ২ কিলোমিটার ভেতরে তাদের সন্ধান পান দেশি-বিদেশি উদ্ধারকারীরা। উদ্ধার অভিযানে অক্সিজেন দিয়ে ফেরার পথে প্রাণ হারান এক ডুবুরি।

অবশেষে ১৭ দিনের রুদ্ধশ্বাস অপেক্ষার অবসান। থাইল্যান্ডের থাম লুয়াং গুহা থেকে একে একে বের করে আনা হয় আটকে পড়া ১২ কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচ এক্কাপোল জানথাওং-কে।

সেসময় পত্রিকার শিরোনামে থাকা এই উদ্ধার অভিযানকে সেলুলয়েডে তুলে ধরেছেন নির্মাতা টম ওয়ালার। চলচ্চিত্রটির নাম দ্যা ক্যাভ। যে ছবিটি এবার আমন্ত্রিত ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে।

নির্মাতা টম ওয়ালার বলেন, সময়ের সাথে মানুষ সব কিছুই ভুলে যায়। আমি চেয়েছি এই সত্য ঘটনাকে চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ধরে রাখতে। এবং বিশ্বের কাছে ফুটিয়ে তুলতে চেয়েছি সেই সময়ের বাস্তব চিত্র।

টম ওয়ালার জানান, সিনেমাটি তৈরি করতে গিয়ে বেশ বেগ পেতে হয়েছে তাকে। সকলের জানা একটি ঘটনাকে চিত্রনাট্যে রূপ দেয়াটা বেশ কঠিন। দ্বোভাষির সহায়তা নেয়া হয়েছে প্রতিটি চরিত্রের জন্য। সিনেমাটিতে মূলত দুইটি গল্প বলার চেষ্টা করেছেন তিনি। কিশোরদের পাশাপাশি চিত্রনাট্যে রয়েছে উদ্ধার অভিযানে অংশ নেয়া মানুষের ত্যাগ। ইতিবাচক ভাবনার প্রয়োগের চেষ্টা করা হয়েছে বলে জানান নির্মাতা টম ওয়ালার।       

উৎসব সংশ্লিষ্টদের প্রত্যাশা প্রজন্মের মনোভাবে নিশ্চয়ই দাগ কাটবে এই ছবিটি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিনোদন খবর