channel 24

সর্বশেষ

  • চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের নতুন সভাপতি এম এ সালাম...

  • সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান

  • এসএ গেমস: ভারোত্তোলনে মাবিয়া আক্তার, জিয়ারুল ইসলাম...

  • ফেন্সিংয়ে ফাতেমা মুজিব স্বর্ণ জিতেছেন; বাংলাদেশের স্বর্ণ ৭

  • কারো নির্দেশে নয়, হস্তক্ষেপমুক্ত বিচার বিভাগ চাই: বিচারপতি নুরুজ্জামান

  • রাষ্ট্রের তিনটি বিভাগের মধ্যে সমন্বয় থাকা প্রয়োজন...

  • একের কাজে অন্যের হস্তক্ষেপ ন্যায়বিচার বাধাগ্রস্ত করে: প্রধানমন্ত্রী

  • খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে নাটক করছে সরকার: ফখরুল...

  • মুক্তি দাবিতে রাজধানীসহ দেশের সব জেলায় বিক্ষোভ কাল

  • স্টামফোর্ডের শিক্ষার্থী রুম্পাকে ধর্ষণ ও হত্যার বিচার দাবিতে...

  • ধানমন্ডি ও সিদ্ধেশ্বরীতে সহপাঠীদের মানববন্ধন

  • অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুতি ও ছাঁটাইয়ের অভিযোগে...

  • এসএ টিভির কার্যালয়ে তালা দিয়েছেন আন্দোলনরত সাংবাদিকরা

  • এসএ গেমস: ভারোত্তোলন: ৭৬ কেজিতে স্বর্ণ জিতেছেন মাবিয়া আক্তার...

  • আসরে এটি বাংলাদেশের পঞ্চম স্বর্ণ...

  • ৮১ কেজি ওজন শ্রেণিতে রৌপ্য জিতেছেন জোহরা খাতুন...

  • ক্রিকেট: নেপালকে ৪৪ রানে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ...

  • স্কোর: বাংলাদেশ ১৫৫/৬ (নাজমুল হোসেন ৭৫*) নেপাল ১১১/৯

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘিরে নানা অসংগতি

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘিরে নানা অসংগতি

ঘোষণা করা হয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৭-১৮'র বিজয়ীদের নাম। তবে সেরার এই তকমা বগলদাবা করতে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছেন অভিনেতা মোশাররফ করিম। কারন হিসেবে জানা যায়, কমলা রকেট ছবিতে তার চরিত্রটি হাস্যরসের না হলেও তিনি পেয়েছেন সেরা কৌতুক অভিনেতার স্বীকৃতি। আর সেখানেই যতো আপত্তি এই অভিনেতার। অন্যদিকে চরিত্র নিয়ে একই অভিযোগ আছে গহীণ বালুচরের ফজলুর রহমান বাবুরও।

প্রতিবছরের মতো এবারও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘিরে তৈরী হয়েছে নানা অসংগতির চিত্রনাট্য। যে দৃশ্যপটে রয়েছেন মোশাররফ করিম এবং ফজলুর রহমান বাবু। এদের প্রথমজন ২০১৮ সালে কমলা রকেট ছবির জন্য এবং দ্বিতীয়জন ২০১৭ সালে গহীণ বালুচর ছবির জন্য পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে সেরা কৌতুক অভিনেতার স্বীকৃতি। আর সেখানেই যতো গণ্ডগোল আর বিতর্কের তর্ক।

সম্প্রতি অভিনেতা মোশাররফ করিম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে জুড়ি বোর্ডকে অনুরোধ করেছেন পুরস্কারটি প্রত্যাহারের। অন্যথায় রাষ্ট্রীয় এই সম্মাননা গ্রহণ করবেন না তিনি। কারণ ছবিতে তার অভিনীত চরিত্রটি হাস্য রসের নয়।

এদিকে যদিও একইমত ফজলুল রহমান বাবুর। তবে নিজের চরিত্রটি কমেডি না হলেও পুরস্কার গ্রহণে আপত্তি নেই এই অভিনেতার। এমন নানা তর্ক-বিতর্কের মাঝেই নির্মাতা বদরুল আনাম সৌদ জানিয়েছেন, জুড়ি বোর্ড নয় বরং ভুলটা বর্তায় তার কাঁধেই। বিভাগ ভিত্তিক মনোনয়ন ও চিত্রের কথা মাথায় রেখেই তিনি প্রস্তাব করেছিলেন নাম।

পুরোনো কাঠমোতে বিভাগ ভিত্তিক পুরস্কার প্রদানের কারণেই এমন বিতর্কের সৃষ্টি হচ্ছে বলে মনে করেন সিনেমা সংশ্লিষ্টরা। আর তাই সিনেমার সার্টিফিকেশনের পাশাপাশি পুরস্কার প্রদানের এই পদ্ধতিতেও পরিবর্তন আনা প্রয়োজন বলে মনে করেন তারা।  

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

বিনোদন খবর