channel 24

সর্বশেষ

  • টেস্টে দ্রুততম ৪০০০ রান ও ২০০ উইকেট সাকিবের

  • শুক্রবারের সাপ্তাহিক ছুটি বদলে ফেলল আমিরাত

  • কোটালীপাড়ায় আরও ৪ আ. লীগ নেতা বহিষ্কার

  • চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেলপথ নির্মাণ কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে

  • পরকীয়া সন্দেহে সামাদকে পিটিয়ে খু ন করল বাবা-ছেলে

  • এসএসসি পাসে লাখ টাকা বেতনে চাকরি দিচ্ছে ইউএসএআইডি

  • ২০০ কোটির প্রতারণার মামলায় ইডির অফিসে জ্যাকুলিন

  • ভেঙে পড়ল ভারতের সামরিক কপ্টার, প্রাণে বাঁচলেন বিপিন রাওয়াত

  • বাকিদেরও ফাঁসি চাই: আবরারের মা

  • পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলে রাতেই নিউজিল্যান্ড যাচ্ছে বাংলাদেশ

  • চট্টগ্রামে যাচ্ছেন পরীমণি

  • নোয়াখালীর কারাগারে হাজতির মৃত্যু

  • হিমাদ্রী বিশ্বাসের ‘চন্দ্রমুখ’

  • ক্যাটরিনার অজানা ৭ তথ্য

  • জনগণের কাছে যা কিছু গ্রহণযোগ্য নয় তা আওয়ামী লীগের কাছেও গ্রহণযোগ্য নয়: শিক্ষামন্ত্রী

চারিদিকে পানি, মরদেহ সৎকার নৌকায়!

চারিদিকে পানি, মরদেহ সৎকার নৌকায়!

পানিতে টইটম্বুর যশোরের ভবদহ অঞ্চল। পানিকে সঙ্গী করেই চলছে ভবদহ অঞ্চলের মানুষের বাঁচা-মরার সংগ্রাম। ওই অঞ্চলের সর্বত্রই যেন এখন পানির নিচে। কারো মৃত্যু হলে দাফন ও সৎকার করতে গিয়ে পড়তে হচ্ছে চরম বিপাকে। 

ইতোমধ্যে এক করুন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে ভবদহ অঞ্চলের হাটগাছা গ্রামে। পানির মধ্যে নৌকার উপরে মরদেহ সৎকার করতে হয়েছে সেখানে। এমনি এক হৃদয়বিদারক দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরপাক খাচ্ছে। অন্তিম যাত্রার এই ছবিটি মানুষের মনে রীতিমত নাড়া দিয়েছে।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ভোররাতে বার্ধক্য জনিত রোগে মারা যান হাটগাছা গ্রামের কালীপদ মণ্ডল (৯২)। বসত ঘরসহ চারিপাশে পানি থাকায় মরদেহ রাখতে হয়েছে নৌকায়। আর নৌকায় রেখেই করতে হয়েছে সৎকার। মৃত কালীপদ মণ্ডল হাটগাছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য মনোজ কান্তি মণ্ডলের পিতা।

মৃত কালীপদ মণ্ডলের ছেলে মনোজ কান্তি মণ্ডল জানান, বসত ঘরের বারান্দায় পানি। বাড়ির চারপাশে পানি থৈথৈ করছে। বাবা মারা যাওয়ায় একটি নৌকায় মরদেহ রাখা হয়েছে। পানির মধ্যে দাঁড়িয়ে আমরা ও গ্রামবাসী মরদেহে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেছি। পানির মধ্যে দাঁড়িয়েই সৎকারের সিংহভাগ কাজ করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: বৃদ্ধ বাবাকে রাস্তায় ফেলে দিলো সন্তান, হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

তিনি আরও বলেন, এভাবে বেঁচে থাকার থেকে মৃত্যু ভালো। এ জলাবদ্ধতার থেকে পরিত্রাণ হবে কবে? আমার বাবার মরদেহ সৎকার করতে হচ্ছে নৌকায়!  

উল্লেখ্য, যশোরের অভয়নগর, মনিরামপুর ও কেশবপুর উপজেলা এবং খুলনার ডুমুরিয়া ও ফুলতলা উপজেলার অংশবিশেষ নিয়ে ভবদহ অঞ্চল। পলি পড়ে এই অঞ্চলের পানি নিষ্কাশনের একমাত্র মাধ্যম মুক্তেশ্বরী, টেকা, শ্রী ও হরি নদী নাব্যতা হারিয়েছে। ফলে নদী দিয়ে পানি নামছে না। বৃষ্টি হলেই এলাকার বিলগুলো উপচে ভবদহ অঞ্চলের বেশির ভাগ অংশ তলিয়ে যায়। সৃষ্টি হয় স্থায়ী জলাবদ্ধতার। গ্রামগুলোর হাজার হাজার বাড়ি পানিবন্দি হয়ে আছে। অনেক শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানও ডুবে গেছে পানিতে। রাস্তা তলিয়ে যাওয়ায় অনেক জায়গা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে আছে। পানীয় জলের সংকট প্রকট। পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা বলে কিছু নেই। কয়েক হাজার মাছের ঘের ও ফসলের খেত পানিতে তলিয়ে গেছে। ঘরের মধ্যে মাচা করে থাকছে লোকজন। শত শত পরিবার উঁচু সড়কে আশ্রয় নিয়েছে।

এস/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর