channel 24

সর্বশেষ

  • ১০ দেশের রাষ্ট্রদূতকে ‌অবাঞ্ছিত ঘোষণার নির্দেশ তুরস্কের

  • পরিসংখ্যানে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা লড়াই

  • নতুন গান 'হাবিবি' নিয়ে আসছে নুসরাত ফারিয়া

  • রাজারবাগ পীরের সম্পদের তথ্য নিয়ে আপিলের শুনানি আজ

  • আগামীকাল আদালতে নেয়া হবে সম্রাটকে

  • শিশু ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর আটক

  • ভারত-পাকিস্তান মহারণ: পরিসংখ্যান কি বলছে?

  • বিয়েতে গড়িমসি করায় প্রেমিকের জিহ্বা কেটে দিলেন প্রেমিকা

  • আজ জাতিসংঘ দিবস

  • চুরি করতে গিয়ে নুরুল দম্পতিকে হত্যা করে রিকশা চালক: পিবিআই

  • স্বপ্নের পায়রা সেতু উদ্বোধন আজ

  • বাবরদের ভারত বধের টোটকা দিয়েছেন ইমরান খান

  • মুহিবুল্লাহ হত্যা: আদালতে আজিজুলের স্বীকারোক্তি

  • প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি পোস্ট ফেসবুকে শেয়ার, ক‌লেজ শিক্ষক আটক

  • নিয়ন্ত্রণে বাড্ডার আগুন

দেবর-ভাবিকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাস্তায় হাঁটানোর ছবি ভাইরাল

দেবর-ভাবিকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাস্তায় হাঁটানোর ছবি ভাইরাল

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার গাজিপুর ইউনিয়নের কোণাগাঁও গ্রামে অনৈতিক কাজের অভিযোগে দেবর-ভাবিকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাস্তায় হাঁটানো হয়। এই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে বিষয়টি আলোড়ন সৃষ্টি করে।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকেলে দুইজনকে শিকলে বেঁধে রাস্তা দিয়ে হাঁটানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়।

আরও পড়ুন: প্রতি ঘণ্টায় ৫টি তালাকের আবেদন

তবে নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর অভিযোগ- তার স্বামী গোপনে আরেকটি বিয়ে করেছেন। তাকে বাড়ি থেকে বিদায় করতে এই নাটক সাজিয়েছেন তার স্বামিসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন। এদিকে গৃহবধূর শ্বশুর ছমদ মিয়া ও পরিবারের লোকজন অভিযোগ করেন, ৭ বছর আগে উপজেলার মানিকভান্ডার গ্রামের জনৈক ব্যক্তির মেয়েকে বিয়ে করেন তার ছেলে ভিংরাজ মিয়া। তাদের ৬ মাসের এক ছেল সন্তানও রয়েছে। গত দুই বছর ধরে গৃহবধু তার চাচাতো দেবর শাকিল মিয়ার (১৮) সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পরেছেন। এক বছর আগে সে শাকিলকে না পাওয়ার কষ্টে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টাও করেন। পরিবারের লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে সুস্থ করে। পরে শাকিলের সাথে কথা বলতে থাকে নিষেধ করে দেয়া হয়। কিন্তু পরিবারের নিষেধ অমান্য করে গোপনে তিনি শাকিলের সাথে সম্পর্ক চালিয়ে যান।

স্থানীয়রা জানান, শাকিলকে তার চাচাতো ভাই ভিংরাজ মিয়ার ঘর থেকে আটক করা হয়। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য আজাদ মিয়াকে জানালে তিনি তাদের আটকে রাখার সিদ্ধান্ত দেন। সে অনুযায়ী রাতে দেবর-ভাবিকে শিকল দিয়ে বেঁধে নির্যাতন করে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। পরে আবার তাদের শিকল দিয়ে বেঁধে রাস্তায় হাঁটানো হয়।

পুলিশ জানায়, বিষয়টি ফেসবুকে দেখলেও পুলিশকে অবগত না করেই কাজটি করা হয়েছে। যদি ভুক্তভোগী নারী মামলা দায়ের করে তাহলে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবো।

এফএইচ/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর