channel 24

সর্বশেষ

  • পাবনায় বিদ্যুতের খুঁটি থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

  • একই দিনে পালিত হল তিন ধর্মের ধর্মীয় উৎসব

  • সহিংসতার আশঙ্কায় ভারতে স্থগিত ‘বাংলাদেশ ফিল্ম ফেস্টিভেল’

  • বাংলাদেশের সংবাদ সম্মেলন বয়কট করলেন সাংবাদিকরা

  • বাড়িতে মাদকের আসর, স্ত্রীর অভিযোগে স্বামীসহ আটক ২

  • আসামিকে ফেসবুক লাইভে জিজ্ঞাসাবাদ, ওসি প্রত্যাহার

  • মালদ্বীপ দূতাবাসে শেখ রাসেল দিবস উদযাপিত

  • ডেঙ্গুতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১১২ জন হাসপাতালে

  • সরকার অরাজকতা সৃষ্টি করে বিএনপির নেতাকর্মীদের নামে মামলা দিচ্ছে: ফখরুল

  • তিস্তা ব্যারেজে রেকর্ড পরিমাণ পানি ছাড়লো ভারত

  • কেরানীগঞ্জে পুলিশ কর্মকর্তার ম র দে হ উদ্ধার

  • কুমিল্লা ঘটনার মূল অভিযুক্ত সীমান্তে ঘোরাঘুরি করছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • বাংলাদেশকে হারাতে পাপুয়া নিউগিনির অনুপ্রেরণা স্কটল্যান্ড

  • ট্রাকের সঙ্গে ইজিবাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নি হ ত ২

  • থানায় ছাত্রলীগ নেতার আ ত্ম হ ত্যা র চেষ্টা!

আশ্রয়ণ প্রকল্পের ৭৮৮৯টি ঘর নির্মাণ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন

আশ্রয়ণ প্রকল্পের ৭৮৮৯টি ঘর নির্মাণ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভূমি ও গৃহহীনদের মৌলিক  অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন। মুজিব শতবর্ষ উপলকক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর সাহসী পদক্ষেপে আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে এসব ব্যক্তিদের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। জীবনের শেষ প্রান্তে এসে সমাজের অবহেলিত ব্যক্তিরা আজ জীবনের রঙিন স্বপ্নের বীজ বুঁনছেন।

রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নে আশ্রয়ণ প্রকল্পে পরিদর্শন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার এসব কথা বলেন।

বিরামপুর উপজেলা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এ পর্যন্ত উপজেলায় ৪৬৫ টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে এছাড়াও জেলায় প্রথম পর্বে ৪৭৬৪ টি এবং দ্বিতীয় পর্বে ৩১২৫ টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

সরেজমিনে আশ্রয়ণ প্রকল্পে গিয়ে বসবাসকারীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, জমিসহ পাকা ঘর পরে সকলেই নিরাপদে বসবাস করছেন। মাথা গোঁজার নিরাপদ ঠাঁই পেয়ে জীবনের শেষ সায়হ্নে এসেছে প্রশান্তির পরশ। হিলির বোয়ালদাড়ের পলিবটতলি গ্রামের গোলে নূর বেওয়া জানান, যেখানে  মাথা গোঁজার মতো এক টুকুরো জমি ছিলো না। সেখানে পাকা ঘর ছিলো তাদের স্বপ্নের মতো। পাকা ঘর পেয়ে তার সকল কষ্টের অবসান হয়েছে।

বিরামপুরে বুচকি গ্রামে আশ্রয়ণ প্রকল্পে বসবাসকারী কয়েকজন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পরিবার জানায়, বাপ দাদার চৌদ্দ পুরুষ থেকে তারা ভূমিহীন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারণে তারা পরিবার নিয়ে নিজেদের একটি ঠিকানা পেয়েছেন।

বিরামপুর ও হাকিমপুর উপজেলা প্রকল্পবাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. কাউসার আলম জানান, জেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণের সার্বক্ষণিক তত্বাবধানে যথাযথভাবে প্রতিটি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরিমল কুমার সরকার জানান, প্রধানমন্ত্রী তাদের মাধ্যমে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের যে উপহার দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা সততা ও বিশ্বস্ততার সাথে প্রতিটি গৃহহীনদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। এসব ঘর নির্মাণে তারাসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ ছাড়াও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এবং ঘরের বরাদ্দ পাওয়া ব্যক্তিদের প্রত্যক্ষ তদারকিতের এবসব ঘরের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকি জানান, 'মুজিববর্ষে এ পর্যন্ত জেলায় ৭৮৮৯টি ঘর নির্মাণ কাজ যথাসময়ে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় থেকে সরাসরি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের বরাবর বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে মনিটরিং টিমের জেলার তের উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাগণ সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রকৌশলী এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাগণের সমন্বয়ে অত্যন্ত সততার সাথে ৭৮৮৯টি ঘরের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করেছেন। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের পরিদর্শন দলসহ সকল পরিদর্শনে এ চিত্র ফুটে উঠেছে। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের বিশেষ টিমসহ সংশ্লিষ্ট টিম দিনাজপুরের আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরের নির্মাণ কাজের তদারকি করে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।'

আরকে

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর