channel 24

সর্বশেষ

  • বেগমগঞ্জে আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হ ত্যা

  • গোখরোকে মৃত্যুর অস্ত্র বানিয়ে বিমার টাকা দাবি

  • পাকিস্তানের তা লে বা ন কে প্রশ্রয় দেয়া উচিত নয়: মালালা

  • প্রকৌশলীর মোটরসাইকেল আটক করায় ট্রাফিক অফিসে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন

  • যশোর শিক্ষাবোর্ডের দুর্নীতির প্রমাণ লোপাটের আশঙ্কা

  • বাণিজ্য-বিনিয়োগ খাতে সহযোগিতা বাড়াতে সম্মত বাংলাদেশ-বেলজিয়াম

  • দেড় কোটি টাকায় বিক্রি হলো হুররাম সুলতান

  • প্রার্থী হয়ে লাউয়ের বীজ বিলাচ্ছেন লাল

  • সংবিধানে মুক্তিযুদ্ধ ও বীর মুক্তিযোদ্ধার বিষয় যুক্ত করতে রিট

  • দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা দিলো ট্রেন

  • নরসিংদীতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সং ঘর্ষে নি হ ত ২

  • মুসলিম থেকে হিন্দু হলেন ইন্দোনেশিয়ার জাতির জনকের মেয়ে

  • বাংলাদেশ ম্যাচের আগে শক্তি বাড়াল ওয়েস্ট ইন্ডিজ

  • আরিয়ানের তদন্তকারী সমীরের বিরুদ্ধে ঘুষের অভিযোগ

  • আবাসিক হোটেল থেকে ঢাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত ম র দে হ উদ্ধার

ছেলের জীবন বাঁচাতে নিজের কিডনি দিলেন মা

ছেলের জীবন বাঁচাতে নিজের কিডনি দিলেন মা

‘মা’ এক অক্ষরের শব্দ। অথচ এই শব্দের ব্যাপ্তি যে কতটা বিশাল তা একমাত্র সন্তানরাই জানে। সন্তানের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য মা পৃথিবীর সব কিছু ত্যাগ করতে পারেন। নিজের জীবনের বিনিময়ে সন্তানের জীবন বাঁচিয়েছেন এমনও অনেক নজির রয়েছে।

আর এমনই এক বিরল দৃষ্টান্তমূলক ঘটনা ঘটেছে রংপুরের পীরগাছা উপজেলার তাম্বুলপুর গ্রামে। প্রাণপ্রিয় সন্তানের জীবন বাঁচাতে নিজের কিডনি দিয়েছেন মা রীনা বেগম। ছেলের হাসিমাখা মুখের জন্য মায়ের অগাধ এ ভালোবাসার কথা এখন ভাসছে নেটদুনিয়ায়।

আব্দুর রশিদ ও রীনা বেগম দম্পতির একমাত্র ছেলে ইউনুস আলী রিপন। সবসময় হাসিখুশি প্রাণবন্ত রিপন হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানালেন তার দুটি কিডনি বিকল। এ অবস্থায় আকাশ যেন মাথায় ভেঙে পড়ে। কে দেবে আশা, কে দেবে ভরসা? দিশেহারা হয়ে পড়ে রিপনের অসহায় পরিবার। রিপনের মা ছেলেকে বাঁচাতে নিজের কিডনি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।  

জানা গেছে, ১০ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) ঢাকার সিকেডি অ্যান্ড ইউরোলজি হাসপাতালে অস্ত্রোপচার করে মায়ের কিডনি ছেলের শরীর প্রতিস্থাপন করা হয়। ছেলের হাসিমাখা মুখের জন্য মায়ের অগাধ এ ভালোবাসার কথা এখন ভাসছে নেটদুনিয়ায় ।

রিপনের চাচা আহসান হাবিব জানান, ছয় সাত মাস আগে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন রিপন। পরে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে বলা হয়। সব পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর জানা যায় তার দুটি কিডনি বিকল হয়ে গেছে। অনেক চেষ্টা করে কোথাও কিডনি পাওয়া যায়নি। পরে রিপনের মা নিজেই ছেলেকে কিডনি দিয়ে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন। বর্তমানে মা ও ছেলে দুজনই ঢাকায় হাসপাতালে আছে।তারা দুজনই সুস্থ আছেন।

এমএম/

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর