channel 24

সর্বশেষ

  • পাবনায় বিদ্যুতের খুঁটি থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

  • একই দিনে পালিত হল তিন ধর্মের ধর্মীয় উৎসব

  • সহিংসতার আশঙ্কায় ভারতে স্থগিত ‘বাংলাদেশ ফিল্ম ফেস্টিভেল’

  • বাংলাদেশের সংবাদ সম্মেলন বয়কট করলেন সাংবাদিকরা

  • বাড়িতে মাদকের আসর, স্ত্রীর অভিযোগে স্বামীসহ আটক ২

  • আসামিকে ফেসবুক লাইভে জিজ্ঞাসাবাদ, ওসি প্রত্যাহার

  • মালদ্বীপ দূতাবাসে শেখ রাসেল দিবস উদযাপিত

  • ডেঙ্গুতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১১২ জন হাসপাতালে

  • সরকার অরাজকতা সৃষ্টি করে বিএনপির নেতাকর্মীদের নামে মামলা দিচ্ছে: ফখরুল

  • তিস্তা ব্যারেজে রেকর্ড পরিমাণ পানি ছাড়লো ভারত

  • কেরানীগঞ্জে পুলিশ কর্মকর্তার ম র দে হ উদ্ধার

  • কুমিল্লা ঘটনার মূল অভিযুক্ত সীমান্তে ঘোরাঘুরি করছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • বাংলাদেশকে হারাতে পাপুয়া নিউগিনির অনুপ্রেরণা স্কটল্যান্ড

  • ট্রাকের সঙ্গে ইজিবাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নি হ ত ২

  • থানায় ছাত্রলীগ নেতার আ ত্ম হ ত্যা র চেষ্টা!

দেশে এখন দুঃশাসন চলছে: কাদের মির্জা

দেশে এখন দুঃশাসন চলছে: কাদের মির্জা

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, এরশাদের স্বৈরাচার, জিয়াউর রহমানের এগুলো দেখেছি। আজকে এগুলো কেন চলছে, বলতে পারবেন? দেশে বিরোধী দল নেই। এ জন্য এগুলো চলছে। সব একতরফা চলছে। এটা হচ্ছে দুঃশাসন, দেশে দুঃশাসন চলছে। একতরফা সব লুটপাট করছে। বলার কেউ নেই। ক্ষমতায় বেশি দিন থাকলে যা হয়, এখন সবাই আখের গোছাতে ব্যস্ত।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কাদের মির্জা এসব কথা বলেন। তিনি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই। সংবাদ সম্মেলনে কাদের মির্জা ঘোষিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরীসহ তাঁর অনুসারী দলীয় নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কাদের মির্জা বলেন, বিএনপি দুর্নীতিতে চার-পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। আজ আপনারা চ্যাম্পিয়ন না, আরও বড় চ্যাম্পিয়ন হবেন, যদি এখন খোঁজ–খবর নেন। আপনাকে শেষ করে দিতেছে, নেত্রী। আপনার সব অর্জন শেষ করে দিতেছে। রাজনীতিবিদ, প্রশাসন দুর্নীতি করে আপনার সব অর্জন নষ্ট করে দিতেছে। ৪৭ বছর রাজনীতি করি। একজন কর্মী হিসেবে এসব মেনে নিতে পারি না।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর পৌরসভা নির্বাচনের ইশতেহার ঘোষণা করতে গিয়ে জাতীয় নির্বাচন, দলের সাংসদ, মন্ত্রী-এমপিদের নিয়ে কথা বলে আলোচনায় আসেন কাদের মির্জা। এরপর কথিত সত্যবচনের নামে বড় ভাই ওবায়দুল কাদের ও ভাবি ইশরান্নেসা কাদেরের বিরুদ্ধে তিনি নানান অভিযোগ করেন। তিনি ভাবির বিরুদ্ধে তাঁকে হত্যার ষড়যন্ত্রের অভিযোগও করেন। এসব কারণে স্থানীয় আওয়ামী লীগে বিভক্তি দেখা দেয়, যা পরে সংঘাতে রূপ নেয়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে দুজন নিহত হওয়া ছাড়া হামলার শিকার হয়ে দুই পক্ষের অনেক নেতা-কর্মীও পঙ্গুত্ব বরণ করেন এবং আহত হন।

আরও পড়ুন: সাংবিধানিক সরকারের অধীনেই আগামীর নির্বাচন: কৃষিমন্ত্রী

সংবাদ সম্মেলনে কাদের মির্জা সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, আমি অন্যায়ের কাছে মাথা নত করব না। আপনারা জানেন, ষড়যন্ত্রকারীদের নীলনকশায় বিরোধীদলীয় সাংসদ মশিউর রহমান রাঙা প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার বিরুদ্ধে বিচার দিয়েছে। আমি নাকি সন্ত্রাসী, আমি নাকি বিতর্কিত। এই রাঙা সেই রাঙা, যে রাঙাকে প্রধানমন্ত্রী পৌরসভার মেয়র থেকে মন্ত্রী করেছেন। আজ সেই রাঙা প্রধানমন্ত্রীকে বলেন স্বৈরাচার। রাঙা সাহেব পরিবহনজগতের শ্রেষ্ঠ চাঁদাবাজ। পরিবহনজগৎকে ধুয়ে–মুছে খেয়েছেন আপনি, আজকে বড় বড় কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত সাংবাদিক মুজাক্কির (বুরহান উদ্দিন ওরফে মুজাক্কির) হত্যার ঘটনায় জড়িত একজনের নাম উল্লেখ করে আবদুল কাদের মির্জা বলেন, মুজাক্কির হত্যার ঘটনায় জড়িত ফাল্গুন (ইকবাল হোসেন ওরফে ফাল্গুন) এখন কোথায়? ঘটনার পর বাদল-রাহাত তাঁকে প্রথমে ভারত পাঠিয়ে দিয়েছেন। তারপর সেখান থেকে কাতারে পাঠানো হয়েছে। সঠিক তদন্ত করলে সব বেরিয়ে আসবে।

নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি ঘোষণা বিলম্বের সমালোচনা করে কাদের মির্জা বলেন, ৯ তারিখে আশা করেছিলাম কমিটি দেবে। সেটাও হয়নি। বলে, স্বপন ইন্ডিয়া গেছে। সে দেশে এলে কমিটি দেবে। এখন বলবে নেত্রী গেছে যুক্তরাষ্ট্রে, উনি আসুক। আর এ দিকে একরামের রামরাজত্ব চলছে পুরো নোয়াখালীতে।’

এদিকে সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলার আসামিকে ভারত হয়ে কাতার পাঠানোর অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কাদের মির্জার ভাগনে ফখরুল ইসলাম ওরফে রাহাত। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, তিনি এ সম্পর্কে কিছুই জানেন না। তাঁকে হেয় করার জন্যই কাদের মির্জা মিথ্যা তথ্য প্রচার করেছেন। 

এমএ/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর