channel 24

সর্বশেষ

  • সৌদি প্রবেশে বাংলাদেশের ১৩৭ পণ্যের শুল্কমুক্ত সুবিধা দাবি

  • আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে মাঠে ফিরলেন তামিম

  • চকলেট ভেবে ইঁদুর মারার ওষুধ খেলো দুই বোন, একজনের মৃ’ত্যু

  • চাঁদা আদায়ের অভিযোগে সুনামগঞ্জে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট

  • করোনাকালে কুড়িগ্রামে বাল্যবিয়ের হিড়িক

  • ৬০ হাজার টাকা বেতনে চাকরি দিচ্ছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স

  • জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান হলেন শাফিন আহমেদ

  • খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ল আরও ছয় মাস

  • চাকরি দিচ্ছে সিটি ব্যাংক

  • ইভ্যালির গ্রেপ্তার কর্ণধারের বিরুদ্ধে আরেক মামলা

  • নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস খাদে, আহত ৩০

  • যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ক্ষতিপূরণ চায় কাবুল হা ম লায় নি হ তদের পরিবার

  • আফগানিস্তানের মেয়েরা প্রাথমিকের অনুমতি পেলেও পায়নি মাধ্যমিকের

  • প্রথমবার মহাকাশ ঘুরে এলেন চার সাধারণ নভোচারী

  • স্বামীর চাপাতির কোপে গুরুতর আহত স্ত্রী

বিলীন হচ্ছে দুইশত বছরের পুরনো শীতলীমাতা মন্দির

বিলীন হচ্ছে দুইশত বছরের পুরনো শীতলীমাতা মন্দির

পাড় না রেখেই পুনঃখনন করা হয়েছে ভরাট হয়ে যাওয়া একটি পুকুর। বর্ষা শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বৃষ্টির পানিতে পুকুরে বিলীন হতে শুরু করেছে ২০০ বছরের পুরনো শীতলীমাতা মন্দিরের দেবোত্তর সম্পত্তি। এতে স্থানীয় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁর মান্দা উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের গোসাইপুর গ্রামে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার চককসবা (কালীগাঁও) বিলের পশ্চিম ধারে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী শীতলীমাতা মন্দির। এটি অনেক পুরনো। প্রতি বছর জ্যৈষ্ঠ মাসের প্রথম সপ্তাহের মঙ্গলবার মন্দিরটিতে পূজা-অর্চনা ও পাঁঠা বলি দেওয়া হয়। মন্দিরের চার পাশে রয়েছে ৪১ শতক দেবোত্তর সম্পত্তি। এর পূর্ব পাশে রয়েছে ব্যক্তিমালিকানার একটি পুকুর। ভরাট হয়ে যাওয়া এ পুকুরটি সম্প্রতি পুনঃখনন করায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে মন্দিরের সম্পত্তি।

আরও পড়ুন: যাত্রীর চাপে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত চলবে লঞ্চ

গোসাইপুর গ্রামের কার্তিক চন্দ্র মন্ডল জানান, পুকুরটি পুনঃখননের সময় দেবোত্তর সম্পত্তির সীমানা নির্ধারণ করে কাজ করার জন্য পুকুর মালিক আলহাজ আইয়ুব আলীকে প্রস্তাব দেয় মন্দির কর্তৃপক্ষ। কিন্তু সেই প্রস্তাব উপেক্ষা করে খননকাজ শুরু করেন পুকুর মালিক আইয়ুব আলী। এ অবস্থায় মন্দির কর্তৃপক্ষ সার্ভেয়ার দিয়ে জরিপসহ দেবোত্তর সম্পত্তির সীমানা নির্ধারণ করে। এ সময় এলাকার লোকজনসহ পুকুর মালিকরাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন। পরবর্তীতে সেই জরিপ না মেনে জোরপূর্বক খননকাজ করেন তারা। একই গ্রামের রবীন্দ্রনাথ সরকার বলেন, এটি ঐতিহ্যবাহী মন্দির। পাড় না রেখে জোর করে পুকুর খনন করায় ইতিমধ্যে দেবোত্তর সম্পত্তির একাংশ পুকুরে বিলীন হয়ে গেছে। এখনই ব্যবস্থা নেয়া না হলে মন্দিরটিও পুকুরে বিলীন হয়ে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

শীতলীমাতা মন্দির কমিটির সভাপতি ডা. বিজয় কুমার প্রামাণিক বলেন, সম্প্রদায়ের বাধা সত্ত্বেও দেবোত্তর সম্পত্তি ঘেঁষে গভীরভাবে পুকুরটি খনন করা হয়েছে। এতে চরম ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে মন্দিরসহ দেবোত্তর সম্পত্তি। এ অবস্থায় মন্দিরসহ দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি। পুকুর মালিক আলহাজ আইয়ুব আলী বলেন, পুকুরটি ওয়ারিশান। এটি লিজ দেয়া আছে। পুকুরে পানি নামাতে গিয়ে বেশকিছু জায়গা ভেঙে গেছে। খুব তাড়াতাড়ি ভাঙন স্থানে মাটি ফেলে মেরামত করে দেয়া হবে।

এএ

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর