channel 24

সর্বশেষ

  • অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে ইউরোপিয়ান সুপার লিগের ভবিষ্যৎ

  • বাংলাদেশকে ভ্যাকসিন দিতে দ্রুত সিদ্ধান্ত চায় চীন

  • ফুরিয়ে আসছে করোনার টিকা, বিকল্প উৎসের খোঁজে সরকার

  • হেফাজত নেতা কোরবান আলী ৭ দিনের রিমান্ডে

  • বাংলাদেশিদের ইউরোপ-আমেরিকা যাবার বাধা কাটলো

  • ঠাকুরগাঁওয়ের শিশু জান্নাত এখন পুরোপুরি সুস্থ

  • এবছর সর্বনিম্ন ফিতরা ৭০ টাকা

  • বিএনপিকে জনগণের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান কাদেরের

  • জয় দিয়ে জিম্বাবুয়ে সিরিজ শুরু পাকিস্তানের

  • ব্যর্থতার বৃত্ত ভেঙে আলোয় উজ্জ্বল শান্ত

  • বিদায় মুখ ঢেকে যায় বিজ্ঞাপনের কবি শঙ্খ ঘোষ

  • শান্তর সেঞ্চুরিতে রাঙানো ক্যান্ডি টেস্টের প্রথমদিন

  • জীবিকার তাগিদ বোঝে না করোনা আতঙ্ক, বোঝে না লকডাউন

  • সুপার লিগে ভাঙনের সুর, চুক্তি অনুযায়ী খেলতে বাধ্য- দাবি পেরেজের

  • ক্যারিয়ারের প্রথম শতক তুলে নিলেন শান্ত

বরগুনায় দরিদ্রদের জন্য ঘর নির্মাণ প্রকল্পে দুর্নীতি

বরগুনায় দরিদ্রদের জন্য ঘর নির্মাণ প্রকল্পে দুর্নীতি

বরগুনা সদরে দরিদ্রদের জন্য দুর্যোগ সহনীয় ঘর নির্মাণে নানা দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। বরাদ্দকৃত টাকা তুললেও ঘর নির্মাণ করছেন না জনপ্রতিনিধিরা। অন্যদিকে, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে রয়েছে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ। দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার হুঁশিয়ারি স্থানীয় প্রশাসনের।

বরগুনা সদরের ফুলঝুড়ি ইউনিয়নে টিআর কর্মসূচির আওতায় ২০১৯-২০ অর্থবছরে, জমি আছে ঘর নেই প্রকল্পে চারটি পরিবারের জন্য দুর্যোগ সহনশীল ঘর বরাদ্দ দেয় সরকার। যা নির্মাণের দায়িত্ব ইউপি সদস্যদের। প্রকল্পটির মেয়াদ শেষ হলেও তৈরি হয়নি সেই ঘর।

একই অবস্থা জেলার অধিকাংশ ইউনিয়নেই। অভিযোগ, প্রতিটি ঘরের জন্য বরাদ্দ প্রায় তিন লাখ টাকা তুলে ফেললেও, ঘর নির্মাণে গড়িমসি করছেন ইউপি সদস্যরা।

ঘর নির্মাণ না হওয়ার পেছনে খোঁড়া যুক্তি দিচ্ছেন অভিযুক্ত জনপ্রতিনিধিরা।

এদিকে, ঘর নির্মাণের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও। যা নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগও করেছেন একজন ইউপি সদস্য শাহ নেওয়াজ সেলিম।

আর অভিযুক্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. মফিজুর রহমান টাকা আত্মসাতের দায় চাপালেন অফিস সহকারীর ওপর। ঘর নির্মাণে অনিয়মের বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস  জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা মো. লুৎফর রহমানের।

২০১৯-২০ অর্থবছরে টিআর কর্মসূচির আওতায় বরগুনায় ২০৫ টি ঘরের জন্য বরাদ্দ ছিলো প্রায় ৬ কোটি ১৫ লাখ টাকা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর