channel 24

সর্বশেষ

  • ঘোলাটে হচ্ছে রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় পরিস্থিতি, ভিসির কুশপুত্তলিকা পোড়ালো ছাত্রলীগ

  • দিনাজপুরে আইনজীবী সমিতির দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১০

  • বনানী কবরস্থানে চিরশয়নে এইচ টি ইমাম

  • তিস্তা নিয়ে ভারতের অবস্থান অপরিবর্তিত: ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • তদন্তে লেখক মুশতাকের মৃত্যু স্বাভাবিক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সৌজন্য সাক্ষাত

  • দক্ষিণাঞ্চলে আরেকটি পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

  • অপরাধ যাই হোক, শিশুদের সাজা সর্বোচ্চ ১০ বছর: হাইকোর্ট

  • দক্ষ নাবিক তৈরিতে চট্টগ্রামে আধুনিক শিপ ব্রিজ সিমুলেটর স্থাপন

  • করোনার ভ্যাকসিন নিলেন প্রধানমন্ত্রী

  • খাগড়াছড়িতে শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় শিক্ষক কারাগারে

  • ধনঞ্জয়ের হ্যাটট্রিক ছাপিয়ে কাইরন পোলার্ডের ছয় ছক্কা

  • আবারও কথিত 'ক্রসফায়ারে' রামুতে যুবকের মৃত্যু, মাদক কারবারি দাবি র‍্যাবের

  • নিউজিল্যান্ডে প্রথমবারের মত অনুশীলনে টিম বাংলাদেশ

  • 'উন্নয়নশীল তালিকাভুক্তির অপেক্ষায় থাকা ১২ দেশের মধ্যে বাংলাদেশেরই রপ্তারি কমবে'

সাজার বদলে সম্প্রীতির বন্ধন গড়ে দিল আদালত

সাজার বদলে সম্প্রীতির বন্ধন গড়ে দিল আদালত

স্বামীর সাজার বদলে সংসারে ভাঙন থেকে রক্ষা পেলো ৫৪টি পরিবার। নিরাপদ আশ্রয় পেলো সন্তানরা। বিচারক তার রায়ে বলেছেন, শুধু শাস্তি নয় আদালত মানুষের মাঝে শান্তির সুবাতাস, সম্প্রীতির বন্ধন গড়ে দেয়। আদালতের এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগে খুশি পরিবারগুলো।

পারিবারিক কলহে গেল দু ব্ছর ধরে আদালতে যাওয়া-আসা করেছেন ফয়সাল আহমদ ও আকলিমা দম্পতি। এ মামলায় আসামি ফয়সালের সাজাও হতে পারতো তিন বছরের। কিন্তু আদালতের ব্যতিক্রমী রায়ে টিকে গেলো সংসার। বাবা-মাকে একসাথে ফিরে পেলো একমাত্র সন্তান। 

তিন মাস পর সুনামগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে ফের ব্যতিক্রমী রায়। ৬৫ টি পারিবারিক মামলার মধ্যে ৫৪ টি পরিবারকে কোন শাস্তি না দিয়ে দেয়া হলো ফুল। তবে ১১ আসামিকে দেয়া হয় সাজা। 

এর আগে ৪৭টি পরিবারকে ভাঙনের হাত থেকে রক্ষা করেছেন, বিচারক মোহাম্মদ জকির হোসেন। 

এ রায়ে উদ্বুদ্ধ হয়ে অন্যান্য পরিবারের মাঝেও একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা, মর্যাদা আর ভালোবাসা বাড়বে বলে আশা সবার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর