channel 24

সর্বশেষ

  • টিকাদানে প্রথম দফায় ৮৫ চিকিৎসক-নার্সকে প্রশিক্ষণ

  • করোনায় দেশে আরও ১৮ জনের মৃত্যু

  • শেষ দিনে চট্টগ্রাম সিটিতে জমজমাট প্রচারণা

  • তামিম-সাকিব-মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহর ফিফটিতে চ্যালেঞ্জিং স্কোর

  • গল টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে বিপর্যস্ত শ্রীলঙ্কা

  • বাগেরহাটে সাদা মাছির আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্থ নারিকেল চাষ

  • গ্রামবাসীর স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মিত হলো ৩শ' ফুট দৈর্ঘ্যের কাঠের সেতু

  • ভারি তুষারপাতে বিপর্যস্ত জম্মু-কাশ্মিরের জনজীবন

  • শেরপুর ও টাঙ্গাইলে পৌর ভোটে প্রার্থীদের নানা প্রতিশ্রুতি, বাস্তবায়ন চান ভোটাররা

  • তামিম-সাকিবের ব্যাটে বড় স্কোরের স্বপ্ন দেখছে স্বাগতিকরা

  • নিরাপত্তায় স্থাপিত আড়াইশো সিসি ক্যামেরা বছর না ঘুরতেই বিকল

  • ফরিদপুরে বিএনসিসি'র উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ

  • খুবিতে অনশনরত আরেক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে

  • ভিক্ষুক বেশে নারীদের শ্লীলতাহানীর ভিডিও ভাইরাল, গ্রেপ্তার ১

  • করোনায় বিশ্বের সব দেশের অর্থনীতিতে বিপর্যয় ঘটলেও উল্টো চিত্র চীনে

কলেজ মাঠে গ্যাস কোম্পানির ভারি নির্মাণ সামগ্রী

কলেজ মাঠে গ্যাস কোম্পানির ভারি নির্মাণ সামগ্রী

শিক্ষার্থীদের খেলা বন্ধ করে রংপুরের মমিনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, হাইস্কুল ও কলেজ মাঠে রাখা হয়েছে ভারি নির্মাণ সামগ্রী। গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড-জিটিসিএল এর তত্ত্বাবধানে এসব লোহার ভারি পাইপগুলো নিয়মিত ট্রাক দিয়ে লোড-আনলোড করা হচ্ছে। এতে ক্ষুব্ধ শিশু-কিশোরসহ এলাকাবাসি। যদিও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের মতে সব নিয়ম মেনে কাজ চলছে।

মমিনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ। এই তিনটি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের জন্য একটিই খেলার মাঠ। যদিও বর্তমানে দেখে কেউ বলতে পারবে না এখানে, একসময় খেলার মাঠ ছিলো। মাঠ জুড়ে গ্যাস লাইন বসানোর কাজে ব্যবহৃত ভারি পাইপ আর সরঞ্জাম রেখেছে গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড। শিক্ষার্থী ও স্থানীয়দের অভিযোগ, যানবাহনের বিকট শব্দ আর এসব সরঞ্জামে অতিষ্ট তারা। 

হাইস্কুল আর কলেজ কর্তৃপক্ষের মতে ইউএনওর নির্দেশে খেলার মাঠের ৮০ শতাংশ দিতে রাজি হয়েছেন তারা। যদিও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের অভিযোগ বর্তমান তাদের ৬০ শতাংশ মাঠও দখলে রয়েছে।

রংপুর মমিনপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ বাবু বিল্ব রঞ্জন রায় বলেন, মাঠের অনুমতি ইউএনও স্যার দিয়ে দিছে। আর যেহেতু সরকারি কাজ আমার কিছু করার নেই। 

রংপুর মমিনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মহিউল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক কোনো অনুমতি না ণীয়ে কিভাবে স্কুলের সামনে এমন পাইপ ফালানোর অনুমতি দিল তা আমরা জানি না। 

যদিও গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড জানান, তাদের চুক্তি অনুযায়ি মাঠে সরঞ্জাম রেখেছে।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইশরাত সাদিয়া সুমি বলেন, সব নিয়মের মধ্যেই আছে। উরা ১ বছরের চুক্তি ভিত্তিক এটা নিয়েছে। 

রংপুর অঞ্চল গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেডের তত্ত্বাবধায়ক মেহেরাজ বলেন, স্কুলের সভাপতির সাথে কথা বলে রাখা হয়েছে। কোনো অবৈধভাবে রাখা হচ্ছে না। 

শিশুদের খেলার সুবিধার্থে ১৪০ শতক জমি দান করে তারা। কিন্তু সেখানে এমন কর্মকাণ্ড কখনই কাম্য নয় বলে জানান এলাকাবাসি। 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর