channel 24

সর্বশেষ

  • যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ: আটক অর্ধশতাধিক, ওয়াশিংটনে সেনা মোতায়েন

  • করোনায় ব্রাজিলে একদিনে সর্বোচ্চ ১ হাজার ২৬২ জনের মৃত্যু

  • করোনার উচ্চ সংক্রমণ ঝুঁকিতে দেশের সব বিমানবন্দর

  • রাজধানীতে জেকেজি হেলথ কেয়ার কর্মীদের বিক্ষোভ

  • বরগুনায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিজিএফের চাল চুরিসহ নানা অভিযোগ

  • যমুনা ও তিস্তার ভাঙনে নির্ঘুম রাত কাটাছে নদীপাড়ের বাসিন্দারা

  • ঘূর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ

  • বেসরকারি হাসপাতাল মালিকদের কাছে জিম্মি চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যখাত

  • করোনা উপসর্গ নিয়ে সারা দেশে আরও ১৫ জনের মৃত্যু

  • নেগেটিভ রোগিকে রাখা হয়েছে করোনা ইউনিটে, আগুনে মৃত্যুর পর দেড় লাখ টাকা বিল দাবি!

  • ৮ জুলাই টেস্ট ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফিরছে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ

  • লালমনিরহাটে বাস শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ

  • করোনায় মারা গেলেন আরও এক পুলিশ সদস্য

  • ঢাকা দ. সিটির দুর্নীতি উৎপাটনের হুঁশিয়ারি তাপসের

  • অবৈধপথে বিদেশ পাড়ি; দালালচক্রের কাছে বন্দি জীবন

ত্রাণ নয়, ভেঙ্গে যাওয়া বাঁধ নির্মাণের দাবি আম্পানে ক্ষতিগ্রস্তদের

ত্রাণ নয়, ভেঙ্গে যাওয়া বাঁধ নির্মাণের দাবি আম্পানে ক্ষতিগ্রস্তদের

ঠাঁই নেয়ার মতো কোনো জায়গা নেই। অনাহারি মানুষ খুঁজছে, বেঁচে থাকার একটু অবলম্বন। ঘূর্ণিঝড় আম্পানে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত, খুলনার কয়রা উপজেলা। ঝড়ের তাণ্ডব আর জলোচ্ছ্বাসে লণ্ডভণ্ড সব। স্থানীয়রা বলছেন বলছেন, ত্রাণ নয়, এখন জরুরি ভেঙ্গে যাওয়া বাঁধ নির্মাণ।

করোনার অদৃশ্য ছোবলের দুঃসময়ে আম্পানের দৃশ্যমান তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড দেশের দক্ষিণাঞ্চল। ডুবেছে ফসলের মাঠ, ডুবেছে বসতভিটা, ভেসে গেছে তিল তিল করে জমানো সম্পদ।

১'শ ৬০ কিলোমিটার গতিবেগের আম্পান নিমিষেই যেনো জীবনকে করে তুলেছে ভাসমান। এই যেমন মধ্যবয়সী হুমায়ুন কবীর। প্রতিবার যে বাঁধ ভেঙে দেয় ঘর, দিয়েছে এবারও। ধৈর্য্যের বাঁধ ভাঙলেও, একবুক হতাশা নিয়ে বসে আছেন সেই ভাঙা বাঁধেই।

শুধু একজন হুমায়ুন কবীর কিংবা একটি গ্রাম নয়, জলে ডোবা দক্ষিণাঞ্চলের প্রায় প্রতিটি গ্রামের চিত্রই এখন চোখের নোনাজল কান্নায়। ঝড় যেখানে কেড়ে নিয়েছে মানুষের প্রাণ, কেড়ে নিয়েছে অর্থনীতি আর বেঁচে থাকার এক টুকরো অবলম্বনও।

অনাহারে অর্ধাহারে কাটানো জীবনে এখন ঠাঁই বলতে নৌকার পাটাতন, নয়তো ভেঙে যাওয়া বাঁধ, আর ডুবতে ডুবতে জেগে থাকা একটিমাত্র সড়ক। তবে সেই পথ জুড়েও তো দেখা নেই কারো আসছে না কোনো সহায়তা।   

শূণ্যতা ছেঁয়ে থাকা হৃদয়ে স্লোগানটা তাই 'এসো নিজেরাই করি'। এছাড়া আর উপায়ইবা কি? তবে চলছে সেনাবাহিনীর রেকি, সাথে তৎপর জেলা পরিষদও। বলছেন, দ্রুতই শুরু হবে বাঁধের সংস্কার কাজ।

এই দুঃসময়ে ত্রাণ নয় সবারই চাওয়া একটি বাঁধ এর। যাতে ভেসে যাবে না ঘর, বরং বাঁধবে আরও মজবুত করে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর