channel 24

সর্বশেষ

  • ঈদের তৃতীয় দিনেও শূন্যতা নগরীতে

  • রাজধানীতে ফিরছে মানুষ, ৩০ মে'র পর বাড়ছে না ছুটি

  • দুর্যোগে নিরাপদ দুরত্বে অবস্থান করাই বিএনপির রাজনীতি: কাদের

  • নিজের করোনা রিপোর্টে স্বাক্ষর করলেন নিজেই!

  • ৩০ মে'র পর বাড়ছে না সাধারণ ছুটি

  • এক্সিম ব্যাংকের এমডিকে হত্যাচেষ্টা, জানেনা কেন্দ্রীয় ব্যাংক

  • ঈদে থানায় প্রীতি ভোজ: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড়

  • ডলফিনের সবচেয়ে বড় বিচরণক্ষেত্র হালদা নদীই যেন এখন মৃত্যুকুপ

  • করোনায় দেশে আরও ২২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪১

  • শুরু থেকে লকডাউন দিলে পরিস্থিতি এতোটা ভয়োবহ হতো না: ফখরুল

  • তামিম ইকবালের সাথে একান্ত আলাপচারিতায় চ্যানেল ২৪

  • আম্পানে বাঁধ ভেঙ্গে ভেসে গেছে ৪ হাজারেরও বেশি চিংড়ি ঘের

  • মুন্সিগঞ্জে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাইক্রোবাস খাদে পড়ে নিহত ৩

  • কৃষি বিজ্ঞানী ও কর্মকর্তাদের প্রণোদনার কথা ভাবছেন কৃষিমন্ত্রী

  • দিনাজপুরে বিষাক্ত মদপানে ৪ জনের মৃত্যু, অসুস্থ ১

ব্যক্তিগত-প্রাতিষ্ঠানিক ত্রাণের তালিকায় নেই শিশু খাদ্য

ব্যক্তিগত-প্রাতিষ্ঠানিক ত্রাণের তালিকায় নেই শিশু খাদ্য

করোনায় কাজ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দরিদ্র জনগোষ্ঠী হয়ে পড়েছেন আরও অসহায়। তবে সরকারের পাশাপাশি তাদের সহযোগীতা করছেন বিত্তবানরা। এই সহযোগীতায় চাল, ডাল, তেল, পেঁয়াজ থাকলেও শিশুদের জন্য নেই কোন খাবার। এতে মহাসংকটে পড়েছে দরিদ্র পরিবারগুলো। এজন্য বিত্তবানদের সদয় দৃষ্টি দেয়ার আহবান জানিয়েছেন তারা।

দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রামন বৃদ্ধির পর অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের খাদ্য যোগানে  সরকারের পাশাপাশি স্বাবলম্বী সমাজের কেউ কেউ এগিয়ে এসে দিচ্ছেন ত্রান সহায়তা। এই ত্রানে চাল, ডাল, তেল, লবনসহ রয়েছে নানান প্রয়োজনীয় দ্রব্য কিন্তু যে সব অসহায় পরিবার গুলোতে একাধিক শিশু রয়েছে সে সকল পরিবার পড়েছেন মহা সংকটে। একদিকে এসব মানুষের আয়ের পথ বন্ধ থাকায় শিশুদেও নিয়ে তারা পড়েছেন বিপাকে ।

দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রামন ছড়িয়ে পরার পর দৈনিক শ্রমজীবি ও দরিদ্র জনগোষ্টির অনেকেই পড়েছে খাদ্য সংকটে। তবে আশার কথা এই খাদ্য সংকট দুরীকরনে এগিয়ে এসেছেন সরকারী বা বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের অনেকেই। কিন্তু যারাই সাহায্য পাচ্ছেন তা দিয়ে দৈনন্দিন চাহিদা কতটুকু পুরন হচ্ছে তাদের ।

সিলেটের ২০নং ওয়ার্ডের পালবাড়ির কলোনীতে তিন সন্তান দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বাস করছেন পবিত্র দাস এবং সবিত্রা রানী দাস, এই কয়েকদিনে তারা সাহায্য পেয়েছেন কিছু চাল ডাল তেল , কিন্তু তাদের শিশুদের যে খাবার প্রয়োজন সেটি তারা পাননি যার কারনে সংকটে পড়েছেন শিশুদেও খাবার নিয়ে।

সিলেটে এমন পরিবার আছে হাজারো। যাদের সবার অবস্থা একই রকম। সরকারী বা বেসরকারী  ভাবে যারা ত্রান সহযোগীতা দিচ্ছেন তারাই বা এসব শিশুদের পুষ্টি খাবার নিয়ে কি ভাবছেন ?

তবে এর বাইরেও রয়েছেন কিছু ব্যাতিক্রম মানুষ। তারা হয়তোবা শিশুদের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন না কিন্তু শিশুরা যাতে মানসিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে জন্য তাদের হাতে তুলে দিচ্ছেন রং তুলি সহ নানান উপকরন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর