channel 24

সর্বশেষ

  • চীনের প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

  • করোনায় ভিন্ন আঙ্গিকে পালিত হচ্ছে পবিত্র শবে বরাত

  • জাতীয় অধ্যাপক ও ভাষা সৈনিক ড. সুফিয়া আহমেদ মারা গেছেন

  • বিশ্বজুড়ে ভারি হচ্ছে লাশের পাল্লা, প্রাণহানি ছাড়িয়েছে ৯০ হাজার

  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পে করোনা সংক্রমন রোধে বিশেষ ব্যবস্থা

  • শবে বরাতে ঘরে বসে ইবাদতের পরামর্শ, কবরস্থান-মাজারে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা

  • দেশে প্রথমবারের মতো একদিনে আক্রান্ত শতাধিক

  • খাগড়াছড়িতে হামের প্রকোপ, আক্রান্ত ২ শতাধিক শিশু

  • অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর স্থগিত

  • লকডাউনের পরও রাজধানীতে মানুষকে ঘরে রাখা যাচ্ছে না

  • ব্যক্তিগত-প্রাতিষ্ঠানিক ত্রাণের তালিকায় নেই শিশু খাদ্য

  • নারায়ণগঞ্জে ডিসি, সিভিল সার্জনসহ কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তা হোম কোয়ারেন্টিনে

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে ৫ টাকায় সবজি বাজার

  • নাটোরের সিংড়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু, পুরো গ্রাম লকডাউন

  • চট্টগ্রামে আরো তিনজন করোনারোগী সনাক্ত

সৌন্দর্য বর্ধনে মিষ্টি কুমড়া

সৌন্দর্য বর্ধনে মিষ্টি কুমড়া

নান্দনিক মিষ্টি কুমড়া। শোভা পাচ্ছে বাসা কিংবা অফিসের টেবিলে। এক সময় মাটির তৈরি শোপিস ঘরের সৌন্দর্য্য বাড়ালেও এখন অনেকেই করছেন জমিতে চাষ হওয়া মিষ্টি কুমড়া ও লাউ। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটে হচ্ছে গবেষণাও। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এ কুমড়ায় বাসার শোভা থাকবে ৬ থেকে ৭ মাস, তাই নাম হয়েছে অর্নামেন্টাল গোর্ড।

অফিস কক্ষের টেবিলে শোভা পাওয়া এই মিস্টিকুমড়া ও লাউগুলোকে হটাৎ দেখলে যেকেউ বলবেন মাটির তৈরি।

কিন্তু রংপুর কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মঞ্জুয়ারা পারভীনের দাবি, অফিস কক্ষে সাজিয়ে রাখা এই পণ্যগুলো এসেছে কৃষকের মাঠ থেকে। যেগুলোকে বলা হচ্ছে অর্নামেন্টাল গোর্ড।  

তার দাবি, তৈরি করা শো-পিচের মত দেখালেও প্রাকৃতিক জেনে অবাক হয়েছেন তিনি। পরে অফিস কক্ষ সাজাতে কিনেছেন ওরনামেন্টাল গোর্ড। অন্যান্য শিক্ষকরা বলছেন, সৌন্দর্য বর্ধনকারী মিষ্টিকুমড়াগুলো দেখে মুগ্ধ হয়েছেন তারা।

দেশের ইতিহাসে অর্নামেন্টাল গোর্ড নিয়েপ্রথম গবেষণা শুরু করেন, বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউটের মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. কবিতা আনজু-মান-আরা। তিনি বলেন, দেশে ওরনামেন্টাল গোর্ডের চাহিদা পুরনে ২০টি জাত নিয়ে চলছে গবেষণা।

রংপুর বুড়ির হাট আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে এই ফসলটি নিয়ে চলছে গবেষণা। রোগ বালাই কম আর বেশী উৎপাদনশীল হওয়া, কৃষকরা গুণবেন বাড়তি মুনাফা, এমনটাই দাবি বিজ্ঞানীদের।

বিজ্ঞানীদের দাবি, চারা রোপনের নব্বই দিনের মধ্যে পরিপক্ক হয় ওরনামেন্টাল গোর্ড। যা বাসা বাড়ি কিংবা অফিসে সাজিয়ে রাখা যায় দশ মাস ধরে।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর