channel 24

সর্বশেষ

  • টক-মিষ্টি স্বাদের লটকন

  • এখনো পাওনা এক টাকাও পায়নি ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্রিকেটাররা

  • কক্সবাজার সৈকতে ভাসছে বর্জ্য, মারা গেছে ২০টি কচ্ছপ

  • পাঁচ প্রতিষ্ঠানের করোনা নমুনা পরীক্ষা স্থগিত

  • ৩ বছর বন্ধের পর কক্সবাজারে পুনরায় শুরু হচ্ছে জন্মনিবন্ধন প্রক্রিয়া

  • সাবরিনা-আরিফ দম্পতির রূপকথার জীবনের নানা গল্প

  • খাগড়াছড়িতে সাবেক ছাত্রদল নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

  • চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ছাত্রলীগের দু'গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত ৭

  • স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজি আবুল কালাম আজাদকে শোকজ

  • এরশাদের মৃত্যুবার্ষিকীর দিন উপনির্বাচন পেছাতে ইসিতে জাপা

  • ডা. সাবরিনা জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট থেকে বরখাস্ত

  • জ্বর-সর্দি ও শ্বাসকষ্টে দেশের বিভিন্ন স্থানে ১০ জনের মৃত্যু

  • উন্মুক্ত স্থানে নয়, ঈদুল আজহার জামাত হবে মসজিদে: ধর্ম মন্ত্রণালয়

  • দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

  • জিজ্ঞাসাবাদে ডা. সাবরিনা সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি: ডিসি হারুন

শিক্ষার্থীদের ৫ টাকায় দুপুরের খাবার দিচ্ছেন শ্যামল সরকার

শিক্ষার্থীদের ৫ টাকায় দুপুরের খাবার দিচ্ছেন শ্যামল সরকার

স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য মাত্র পাঁচ টাকায় মিলছে দুপুরের খাবার। রাজশাহীর বাঘার আড়ানী বাজারে অন্নপূর্ণা হোটেলে মিলছে এমন সুযোগ। যেখানে নিজ হাতে খাবার দেন হোটেল মালিক শ্যামল সরকার ও ছেলে বিপ্লব সরকার।

ঘড়ির কাটায় দুপুর একটা বাজতেই খাবার খেতে দল বেধেঁ অন্নপূর্ণা হোটেলে ঢুকছেন স্কুল শিক্ষার্থীরা।

মাত্র পাঁচ টাকায় ভরপেট খাবার মিলছে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার শ্যমল সরকারের গড়ে তোলা এই হোটেলে। তাইতো দুপুর ২টা পর্যন্ত হোটেলের সব টেবিল দখলে থাকে শিক্ষার্থীদের। ভাতের সাথে থাকে সবজি, মাংসের ঝোল আর ডাল।

শ্যামল সরকারের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন শিক্ষকরাও। বলছেন, এতে বিকেলের ক্লাসে মনোযোগ বেড়েছে শিক্ষার্থীদের।

শিক্ষকরা জানান, ছেলেমেয়েরা যাতে ঠিকমতো লেখাপড়া করতে পারে সারাদিন স্কুলে থেকে সেখান থেকে তারা উপকৃত হচ্ছে। প্রায় বিনামূল্যে খাবারটা পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। এতে বাচ্চাদের শারীরিক মানসিক অবস্থা বেশ ভালো থাকে।

শ্যমল সরকারের সাথে কাজ করছেন ছেলে বিপ্লব সরকারও। মানব সেবার ব্রত নিয়ে বাবা-ছেলে মিলে এমন উদ্যোগ নেন ২০১৫ সালে।

শ্যামল সরকার বলেন, প্রথমে অনেকে বলতো দুয়েক টাকা, টাকা নাই, সেখান থেকে খাওয়াতে শুরু করলাম, তারপর আস্তে আস্তে বেড়ে গেল।

বিপ্লব সরকার বলেন, বাচ্চারা দোকানে এসে বলতো একটা সিঙ্গারা দেন, আমি ওদের সিঙ্গারার বদলে ভাত খাওয়া শিখাইছি।

প্রতিদিন অন্তত ৩০০ মানুষ খাবার খান অন্নপূর্ণা হোটেলে। যাদের মধ্যে বেশির ভাগই স্কুল শিক্ষার্থী।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর