channel 24

সর্বশেষ

  • চলে গেলেন সাবেক ফুটবলার এস এম সালাউদ্দিন

  • বিদেশি কোচদের সাথে চুক্তি পুর্নবিন্যাস করবে বিসিবি

  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না খোলার সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা

  • ট্রেনে কিছুটা মানলেও লঞ্চে উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

  • দীর্ঘতম ছুটি শেষে স্বরূপে রাজধানী

  • সাতক্ষীরায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে ১ জনের মৃত্যু, আহত ২ শিশু

  • খুলনায় প্লাজমা থেরাপি দেয়া করোনা রোগীর মৃত্যু

  • বিদ্যুতের বাড়তি বিল হলে পরবর্তীতে সমন্বয় করা হবে: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

  • ২ মাস পর চালু হল পুঁজিবাজারে লেনদেন; সূচকে ইতিবাচক ধারা

  • কুষ্টিয়ায় নিজে রান্না করে অসহায় মানুষকে খাবার দিচ্ছেন কলেজ ছাত্রী

  • জিপিএ-৫ না পাওয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা

  • স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলাচল শুরু

  • এসএসসির ফলাফল এসএমএস ও অনলাইনে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই উল্লাসের রঙ

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রিভলবার ও গুলিসহ যুবলীগ নেতা আটক

  • চট্টগ্রামে রাস্তায় নেমেছে বাস; বাড়তি ভাড়া আদায়

হস্তশিল্পে স্বনির্ভর মেহেরপুরের দেড় শতাধিক নারী

হস্তশিল্পে স্বনির্ভর মেহেরপুরের দেড় শতাধিক নারী

একটা সময় অভাব ছিল যাদের নিত্যসঙ্গী সেইসব নারীই এখন দাঁড়িয়েছেন নিজের পায়ে। হাল ধরেছেন পরিবারের। হস্তশিল্প বদলে দিয়েছে তাদের জীবনের গল্প। পাটের তৈরি এসব পণ্য চলে যাচ্ছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে।

মেহেরপুরের ভবেরপাড়া গ্রামের মর্জিনা খাতুন। স্বামীর মৃত্যুর পর ছেলে-মেয়ে দিন কাটিয়েছেন খেয়ে না খেয়ে। স্বপ্ন ভঙ্গের গল্পে ভবেরপাড়া চার্চে বেছে নেন হস্তশিল্পের কাজ। স্বল্প সময়েই পাটের পণ্য তৈরি করে হাল ধরেন সংসারের।

মর্জিনা খাতুন বলেন, চারটি মেয়েকে লেখাপড়া শিখালাম এই কাজ করে। আমার ছেলে এখন মাছের ব্যবসা করে। তিন মেয়ে আছে শ্বশুর বাড়ি। আর একটা মেয়ে ঘরে আছে এই মেয়েটাকে নিয়ে আমি হস্তশিল্পের কাজ করে খাচ্ছি।

তার মতো অন্তত দেড়শো নারী এই কাজের সাথে জড়িত। যাদের সংসারে ফিরেছে আর্থিক স্বচ্ছলতা। পাট দিয়ে তৈরি

করছেন ম্যাটস, ওয়ালমেটসহ ৬৫ ধরনের পণ্য। যেগুলো চলে যাচ্ছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে।

শুরুটা ছিল ১৯৭৬ সালে। ভবেরপাড়া চার্চের তৎকালীন ফাদার জন আবেত্তি স্বামীহারা ও ভূমিহীন নারীদের নিয়ে শুরু করেন, পাটজাত পণ্যের ওপর প্রশিক্ষণ। এরপর থেকে কেবলই তাদের বদলে যাওয়ার গল্প।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর