channel 24

সর্বশেষ

  • রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসকের ব্যতিক্রম ত্রাণ বিতরণ

  • করোনা শনাক্তে বিনামূল্যে নমুনা পরীক্ষা শুরু

  • দরকার ছাড়া বেরুলেই ফেরত পাঠানো হচ্ছে ঘরে

  • সপ্তাহ না পেরুতেই ধৈর্যহারা নগরবাসী; দরকার ছাড়াও বেরুচ্ছেন বাইরে

  • পিপিই পরে সাঈদ খোকনের ত্রাণ বিতরণ

  • মুখে মাস্ক পরে ফ্লিমি স্টাইলে ফার্মেসিতে ডাকাতি

  • স্পেনে একদিনে প্রাণহানি ৯৫০, মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে

  • বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ৪৮ হাজার ছাড়িয়েছে

  • গ্রামীণ জনপদে দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল কতটা সম্ভব?

  • চট্টগ্রামে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে কমেছে রোগী, বন্ধ প্রাইভেট চেম্বারও

  • গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪১ জনের নমুনা পরীক্ষা: আইইডিসিআর

  • চট্টগ্রামে বেড়েছে ব্যক্তিগত যানচলাচল, নির্দেশনা মানতে চাইছেন না মানুষ

  • সংকুচিত ব্যাংকিং সেবার চাহিদা পূরণ করছে মোবাইল ব্যাংকিং

  • চট্টগ্রামে করোনার ধাক্কা দীর্ঘায়িত হলে মুখ থুবড়ে পড়বে রেস্টুরেন্ট ব্যবসা

  • মেহেরপুরে সুরক্ষা সরঞ্জাম না থাকায় লাপাত্তা চিকিৎসক

মোটরসাইকেল চুরি করে পালালেন পুলিশ, সিসি ক্যামেরায় ধরা

মোটরসাইকেল চুরি করে পালালেন পুলিশ, সিসি ক্যামেরায় ধরা

কুড়িগ্রাম চীফ জুডিশিয়াল মেজিস্ট্রেট আদালতের সামন থেকে মোটরসাইকেল চুরি করে গ্রেপ্তার হয়েছেন এক পুলিশ সদস্য। তার নাম তরিকুল ইসলাম। তিনি পুলিশ লাইনে কর্মরত ছিলেন। ঘটনার সময় আদালত প্রাঙ্গনে দায়িত্বরত ছিলেন পুলিশের ওই সদস্য।

বর্তমানে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য জেল হাজতে রয়েছেন। সিসি ক্যামেরার ফুটেজের কারণে ধরা পড়ে। এ ঘটনায় মোটরসাইকেলের মালিক আল আমিন বাদী হয়ে মামলা করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, কুড়িগ্রাম চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের প্রোসেস সার্ভার পদের কর্মচারী আল-আমিন আহমেদ মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে মোটর সাইকেল যোগে অফিসে পৌঁছে আদালতের সামনে মোটরসাইকেল রেখে ভবনের ভিতরে যান। এ সময় ভুলে চাবি মোটরসাইকেলে রেখে যান তিনি। ভবনে বায়োমেট্রিক হাজিরা দেয়ার পর তার মনে পড়ে চাবি গাড়ীতে রেখে এসেছেন। পরক্ষণে চাবি নিতে এসে দেখতে পায় মোটরসাইকেলটি নেই। পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করে মোটরসাইকেলের সন্ধান না পেয়ে আদালত ভবনে স্থাপিত সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখতে পায় এক পুলিশ সদস্য মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছেন। পরে আদালত সূত্রে বিষয়টি পুলিশ সুপারকে জানানো হলে পুলিশ সুপার ঘটনা তদন্ত করে সত্যতা পেলে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য তরিকুল ইসলামকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন। পরে ওই পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। তরিকুল ইসলাম পুলিশ লাইনে কর্মরত ওই সময় আদালতে দায়িত্বরত ছিলেন।

এ ঘটনায় কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান বলেন, ঘটনায় নিয়মিত মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তারের পর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর