channel 24

সর্বশেষ

  • রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসকের ব্যতিক্রম ত্রাণ বিতরণ

  • করোনা শনাক্তে বিনামূল্যে নমুনা পরীক্ষা শুরু

  • দরকার ছাড়া বেরুলেই ফেরত পাঠানো হচ্ছে ঘরে

  • সপ্তাহ না পেরুতেই ধৈর্যহারা নগরবাসী; দরকার ছাড়াও বেরুচ্ছেন বাইরে

  • পিপিই পরে সাঈদ খোকনের ত্রাণ বিতরণ

  • মুখে মাস্ক পরে ফ্লিমি স্টাইলে ফার্মেসিতে ডাকাতি

  • স্পেনে একদিনে প্রাণহানি ৯৫০, মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে

  • বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ৪৮ হাজার ছাড়িয়েছে

  • গ্রামীণ জনপদে দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল কতটা সম্ভব?

  • চট্টগ্রামে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে কমেছে রোগী, বন্ধ প্রাইভেট চেম্বারও

  • গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪১ জনের নমুনা পরীক্ষা: আইইডিসিআর

  • চট্টগ্রামে বেড়েছে ব্যক্তিগত যানচলাচল, নির্দেশনা মানতে চাইছেন না মানুষ

  • সংকুচিত ব্যাংকিং সেবার চাহিদা পূরণ করছে মোবাইল ব্যাংকিং

  • চট্টগ্রামে করোনার ধাক্কা দীর্ঘায়িত হলে মুখ থুবড়ে পড়বে রেস্টুরেন্ট ব্যবসা

  • মেহেরপুরে সুরক্ষা সরঞ্জাম না থাকায় লাপাত্তা চিকিৎসক

অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না ভাষা সৈনিক আব্দুল মালেক

অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না ভাষা সৈনিক আব্দুল মালেক

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার ভাষা সৈনিক খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ। তিনি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকও। সত্তরের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে লড়ে হয়েছিলেন সংসদ সদস্য। অথচ সেই মানুষটা এখন অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না। অসুস্থ হয়ে কয়েকমাস ধরে শয্যাশায়ী তিনি।

খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ এক সময় রাজপথ মুখর থাকতো যার স্লোগানে সেই মানুষটিই আজ বিছানায় বন্দি। ৫২ ভাষা আন্দোলনে সক্রিয় অংশ নেয়ার অপরাধে ফেরারি আসামি হয়ে হারান ছাত্রত্ব। পরে সত্তরের নির্বাচনে অল্প বয়সে মুক্তাগাছা আসন থেকে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটে সংসদ সদস্যও নির্বাচিত হন তিনি।

কয়েকমাস আগে স্ট্রোক করার পর তার ডান হাত ও পা অবশ হয়ে যায়। এরপর থেকে বেশ কষ্টে দিন কাটছে এ ভাষা সৈনিকের।

খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহর স্ত্রী সুরাইয়া মালেক বলেন, শুধুমাত্র ভাতার টাকা দিয়ে সংসার চালানো খুবই কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।

খোন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ ছেলে খোন্দকার মনজুর মালেক সুদীপ্ত বলেন, চিকিৎসার ব্যয় মেটানো সম্ভব হচ্ছে না বিধায় বর্তমান পরিস্থিতিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

মুক্তিযোদ্ধা ভাতার যে সামান্য কটা টাকা পান তা দিয়ে চিকিৎসা করানো অসাধ্য হয়ে পড়েছে পরিবারের পক্ষে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর