channel 24

সর্বশেষ

  • ঠাকুরগাঁওয়ে একই পরিবারের ৫ জন রংপুর মেডিকেলের আইসোলেশনে

  • বরিশাল মেডিকেলে করোনা ইউনিটে থাকা একজনের মৃত্যু

  • দেশে করোনা মোকাবিলায় নেই পর্যাপ্ত অবকাঠামো সুবিধা: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

  • ইতালিতে প্রাণহানি ছাড়ালো ১০ হাজার, সংক্রমণ শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

  • করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা মানছেন না অনেকেই

  • রাস্তায় পড়ে থাকা ফিনল্যান্ডের নাগরিককে হাসপাতালে নিলো পুলিশ

  • করোনায় শুধু মানুষই নয় বিপাকে পশু-পাখি

  • বিশ্বজুড়ে ৩০ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি

  • পর্যটকদের স্বর্গরাজ্যগুলো আজ জনমানবহীন

  • ক্রমেই অসহায় হয়ে উঠছে বিশ্ব

  • স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা সরঞ্জাম দিলো স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস

  • আকিজ গ্রুপের হাসপাতাল তৈরিতে জনতার ক্ষোভ

  • জনগণকে সচেতন হবার আহ্বান জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ

  • শৈশব থেকেই বলিষ্ঠ নেতৃত্বের অধিকারী ছিলেন বঙ্গবন্ধু

  • স্পেনে আরও ৮৩২ জনের প্রাণহানি

দেশে পাতা পেঁয়াজের বীজের বাণিজ্যিক উৎপাদনে সফলতা

দেশে পাতা পেঁয়াজের বীজের বাণিজ্যিক উৎপাদনে সফলতা

ভিনদেশি স্প্রিং অনিয়ন বা পাতা পেঁয়াজের বীজের বাণিজ্যিক উৎপাদনে সফল হয়েছে ফরিদপুরের মসলা গবেষনা উপ কেন্দ্র। গবেষকরা বলছেন, পুষ্টিগুণে ভরপুর এই পাতা পেঁয়াজ মুলত উচ্চবিত্তের খাদ্য। তবে বীজ উৎপাদনে সফল হওয়ায় বাড়বে চাষ, নাগালে আসবে নিম্নবিত্তের।

স্প্রিং অনিয়ন বা পাতা পেঁয়াজ। যার বাংলাদেশ উপযোগী জাত বারি পাতা পিঁয়াজ-১।

বিদেশি এই পাতা পেঁয়াজ বীজ সংগ্রহে ব্যস্ত ফরিদপুর মসলা উপকেন্দ্রের চাষিরা। তাদের এই ব্যস্ততা চলবে ফেব্রুয়ারি মাস জুড়ে।    

সাধারণ পিয়াঁজ বীজ এপ্রিল মাসের শুরুতে ঘরে তোলা গেলেও,পাতা পেঁয়াজ বীজ নভেম্বর থেকে টানা ৪ মাস ধাপে ধাপে তুলতে হয়।

গবেষকরা বলছেন, সারা বছরের চাহিদা মেটাতে মাঠে, বসত ভিটা, বাড়ির ছাদের টবে চাষ করা যায় বারি পাতা পেঁয়াজ-১। একবার লাগালে কেটে খাওয়া যায় বারোমাসেই। পেঁয়াজের বিকল্প হিসাবে কেবল রান্নায় ব্যবহার হয় না, উচ্চবিত্তের ঘরে সবজি ও সালাদ হিসাবে খুবই জনপ্রিয় এই মসলা।

মসলা গবেষণা উপকেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মুশফিকুর রহমান বলেন, 'এই পাতা পেঁয়াজ মার্চ মাসে একবার লাগালে সারা বছর উৎপাদন করা যায়। নভেম্বর পর্যন্ত ৩-৪ বার আমরা খেতে পারি অথবা চাষাবাদ করতে পারি।'

স্থানীয়রা মসলা উৎপাদকরা বলছেন, নতুন এই মসলা ব্যপক সাড়া ফেলেছে এ অঞ্চলে। তাদের আসা এতে মিটবে পিঁয়াজের ঘাটতি।

গবেষণা বলছে, ঔষধি গুণাবলি সমৃদ্ধ পাতা পেঁয়াজ চোখের দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি করে, মাথাব্যাথা, ক্ষতের ব্যাথা, ঠান্ডাজনিত রোগ, হৃদরোগের জন্য উপশম।

মুশফিকুর রহমান বলেন, 'এই বারি পাতা পেঁয়াজ-১ পেঁয়াজের বিকল্প হিসেবে ব্যভার করা যায়। যা স্বাদে, গন্ধে ও পুষ্টিতে পেঁয়াজের মতো। এটার পাতা খেতে হয়। এই পাতায় পেঁয়াজের সম্পুর্ণ পুষ্টিগুণ আছে।'

পাতা পেঁয়াজ সব ধরনের মাটিতে জন্মে থাকে। তবে ফলন বেশি হয় বেলে-দো-আঁশ মাটিতে। তাই বীজ প্রদর্শনীর মাধ্যমে চাষ বৃদ্ধি করতে কাজ করছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর