channel 24

সর্বশেষ

  • শনিবার নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি বাংলাদেশ নারী দল

  • ওয়ানডে সিরিজের জন্য প্রস্তুত সিলেট, বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের অনুশীলন

  • ফুটবল ফেডারেশন নির্বাচন ২০ এপ্রিল

  • চসিক নির্বাচনের দিন অফিস খোলার রাখার বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে: ইসি রফিকুল

  • মগবাজার দিলু রোডে আগুনে দগ্ধ দুজনের অবস্থা সংকটাপন্ন

  • রক্তপাত না বাড়িয়ে সমস্যার দ্রুত সমাধান করবে ভারত; আশা কাদেরের

  • কক্সবাজারে ভূমি অধিগ্রহণের ক্ষতিপূরণ নিয়ে ভোগান্তিতে ক্ষতিগ্রস্তরা

  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে জলবায়ুর বিরূপ প্রভাবে দুশ্চিন্তায় আম চাষীরা

  • দোষারোপের রাজনীতিতে মেতে আছেন ভারতের রাজনীতিকরা

  • ব্রেক্সিট বাণিজ্য চুক্তি আলোচনায় যুক্তরাজ্যের প্রস্তাবে ইইউ'র সম্মতি

  • করোনাভাইরাসের প্রভাবে ধস নেমেছে বিশ্ব পুঁজিবাজারে

  • প্রযুক্তি পণ্যের বাজারেও করোনাভাইরাসের প্রভাব

  • রাজধানীতে ১২তম এশিয়া ফার্মা এক্সপো শুরু

  • শিক্ষা ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন নিয়ে সরকার ভাবছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

  • দিল্লিতে সহিংসতা আঞ্চলিক শান্তি-সৌহার্দ্যের অন্তরায়: ফখরুল

৯০ বছর বয়সেও ইংরেজি শেখাচ্ছেন কাঞ্চন আলী

৯০ বছর বয়সেও ইংরেজি শেখাচ্ছেন কাঞ্চন আলী

যে বয়সে মানুষ অবসরে থাকেন, জীবনের শেষ বেলার সময় গোনেন। সেই সময়েও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ইংরেজি শেখাচ্ছেন ৯০ বছর বয়সী শিক্ষক কাঞ্চন আলী সিকদার। দীর্ঘদিনের সঞ্চিত জ্ঞান শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়েই আনন্দ পান তিনি। আর তাকে দেখে শিখছে নতুন প্রজন্ম।

বয়স ৯০ হলেও দেখে বোঝার উপায় নেই। সঠিক শিক্ষার ব্রত নিয়ে এগিয়ে চলছেন শিক্ষক কাঞ্চন আলী সিকদার। জীবনের বাকিটা সময়ও বিলিয়ে দিতে চান মহতী এই কাজে।

দীর্ঘ ৩৮ বছর ইংরেজি বিষয়ে শিক্ষকতা করেছেন। ৭টি প্রতিষ্ঠানে ছিলেন প্রধান শিক্ষক। অবসরে যান দুই যুগ আগে। কিন্তু শিক্ষকতার টান পিছু ছাড়েনি কাঞ্চন আলীর। তাইতো শেষ বয়সেও বিনা পারিশ্রমিকে বরিশালের একটি গ্রামে ছড়িয়ে যাচ্ছেন শিক্ষার আলো।

শিক্ষক কাঞ্চন আলী সিকদার বলেন, শিক্ষা আমি যা জানি তা যদি ছাত্রদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারি তাহলে যে আনন্দ পাবো সেই আনন্দের নাম হলো  বিমলাআনন্দ।

অভিজ্ঞ এই শিক্ষকের পাঠদানে যেমন খুশি শিক্ষার্থীরা; তেমনি সন্তুষ্ট অভিভাবক ও অন্য শিক্ষকরাও।

জ্ঞান দানের আনন্দই শক্তি যোগায় শিক্ষক কাঞ্চন আলীকে। তাকে দেখে হয়তো বয়সের ভারে নুয়ে পড়া ব্যক্তিরাও প্রেরণা পাবেন।


যে বয়সে মানুষ অবসরে থাকেন, জীবনের শেষ বেলার সময় গোনেন। সেই সময়েও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ইংরেজি শেখাচ্ছেন, ৯০ বছর বয়সী শিক্ষক কাঞ্চন আলী সিকদার। দীর্ঘদিনের সঞ্চিত জ্ঞান শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়েই আনন্দ পান তিনি। আর তাকে দেখে শিখছে নতুন প্রজন্ম।

বয়স ৯০ হলেও দেখে বোঝার উপায় নেই। সঠিক শিক্ষার ব্রত নিয়ে এগিয়ে চলছেন শিক্ষক কাঞ্চন আলী সিকদার। জীবনের বাকিটা সময়ও বিলিয়ে দিতে চান মহতী এই কাজে।

দীর্ঘ ৩৮ বছর ইংরেজি বিষয়ে শিক্ষকতা করেছেন। ৭টি প্রতিষ্ঠানে ছিলেন প্রধান শিক্ষক। অবসরে যান দুই যুগ আগে। কিন্তু শিক্ষকতার টান পিছু ছাড়েনি কাঞ্চন আলীর। তাইতো শেষ বয়সেও বিনা পারিশ্রমিকে বরিশালের একটি গ্রামে ছড়িয়ে যাচ্ছেন শিক্ষার আলো।

শিক্ষক কাঞ্চন আলী সিকদার বলেন, শিক্ষা, আমি যা জানি তা যদি ছাত্রদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারি তাহলে যে আনন্দ পাবো সেই আনন্দের নাম হলো বিমলাআনন্দ।

অভিজ্ঞ এই শিক্ষকের পাঠদানে যেমন খুশি শিক্ষার্থীরা; তেমনি সন্তুষ্ট অভিভাবক ও অন্য শিক্ষকরাও।

জ্ঞান দানের আনন্দই শক্তি যোগায় শিক্ষক কাঞ্চন আলীকে। তাকে দেখে হয়তো বয়সের ভারে নুয়ে পড়া ব্যক্তিরাও প্রেরণা পাবেন।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

দেশ 24 খবর